Advertisement

Self Help

পুজোর ক্লান্তি কাটিয়ে কীভাবে ফিরবেন পুরনো রুটিনে? রইল তারই হদিশ

Swaralipi BhattacharyyaSwaralipi Bhattacharyya  |  Oct 9, 2019
পুজোর ক্লান্তি কাটিয়ে কীভাবে ফিরবেন পুরনো রুটিনে? রইল তারই হদিশ

Advertisement

চারটে দিনের হুজুগ শেষ। আজ থেকে ফের কাজে ফিরতেই হয়েছে আপনাকে। কিন্তু সকালে উঠে কি ক্লান্ত মনে হচ্ছিল নিজেকে? সেটাই স্বাভাবিক। নিয়মের মধ্যে তো ছিলেন না পুজোর (Durga Puja) সময়। ফলে শরীর বিদ্রোহ করবেই। সঙ্গে মনও ক্লান্ত। চারদিনের আনন্দ চূড়ান্ত মিস করছেন নিশ্চয়ই। বার বার ফেসবুক বা ইনস্টাগ্রাম চেক করছেন, সেলফিতে কটা লাইক পড়ল? কিন্তু এর মধ্যেই কাজও করতে হবে। অফিস তো আর ল্যাদের কথা শুনবে না! সেখানে পারফরম্যান্সই শেষ কথা। কীভাবে কাটিয়ে উঠবেন ক্লান্তি? কীভাবে ফ্রেশ (fresh)হবেন? কীভাবেই বা ফিরবেন পুরনো শেপে, রুটিনে? তারই হদিশ দেওয়ার চেষ্টা করলাম আমরা। 

  • কাজের শেষে বাড়ি ফিরে হালকা গরম জলে পা ডুবিয়ে আধঘণ্টা বসে থাকুন। রিল্যাক্সেশনের জন্য আদর্শ।
  • জলে পা ডুবিয়ে বসে থাকার সময় জলের মধ্যে বাথ সল্ট বা এসেনশিয়াল অয়েল দিতে পারেন। আরাম গ্যারান্টি।
  • পা ডুবিয়ে রাখার সময়ে হার্বাল টি, গ্রিন টি খেলে তরতাজা লাগবে। বেছে নিন নিজের পছন্দের পানীয়।
  • আর গরম চায়ে যদি মন না ওঠে তাহলে ট্রাই করুন ঠান্ডা জুস।
  • চারদিনের হুল্লোড়ের পর যদি ঘাম বা বৃষ্টিতে ভিজে ঠান্ডা লেগে যায়, ভেপার নিলেও আরাম পাওয়া যায়। আর ধীরে-ধীরে সিজন চেঞ্জ হচ্ছে। ফলে আগে থেকেই সাবধান হওয়া ভাল।
  • পুজোর সময় এক্সারসাইজ (exercise) করতে কার ভাল লাগে! আপনিও ব্যতিক্রম নন। চারটে দিন একেবারেই এক্সসারসাইজ হয়নি হয়তো। তাই আজ থেকে ধীরে-ধীরে ফের শুরু করুন। সকালে উঠে ফ্রি হ্যান্ড করে নিলে অনেকটা ঝরঝরে লাগবে।
  • বাড়ি ফিরে একটু নিজের মতো একা থাকুন। মেডিটেশন করতে পারেন। নয়তো সোজা বিছানায় শুয়ে পড়ুন। হালকা গান চালিয়ে দিন। একটু পরে দেখবেন শরীরের সব পেশি শিথিল হয়ে এসেছে। আরাম বোধ হচ্ছে। চাইলে ঘুমিয়েও (sleep) নিতে পারেন। শুধু শরীর নয়, মনও বিশ্রাম পাবে এতে।
  • যদি এখনই জিমে যেতে ইচ্ছে না করে, বাড়িতেই হালকা ব্যায়াম করুন। মেরুদণ্ড সোজা করে বসে ঘাড় উপরে-নীচে করুন। কাঁধের উপরে হাতের বুড়ো আঙুল রেখে হাত দুটো ক্লকওয়াইজ, অ্যান্টি ক্লকওয়াইজ ঘোরান। একটু স্ট্রেচ করুন। এতে ঘাড়, কাঁধ, কোমরের আরাম হবে।
  • পা দুটো সামনের দিকে ছড়িয়ে বসুন। এ বার হাত দিয়ে পায়ের আঙুল ধরার চেষ্টা করুন। এ ভাবে ৩০ সেকেন্ড থাকুন। আরাম পাবেন। রাতে ঘুমোনোর সময়ে পায়ের তলায় বালিশ দিয়ে রাখুন। পা উঁচু থাকলে মাসলগুলো রিল্যাক্সড হবে।
  • পুজোর সময় অতিরিক্ত খাওয়াদাওয়া কিন্তু ক্লান্তি ডেকে আনে। ফলে আজ থেকেই নর্মাল ডায়েটে ফিরুন। বাড়ির তৈরি খাবার খান। আর তেল, মশলা কয়েকটা দিন এড়িয়ে চললেই ভাল। এতে মুখে স্বাদও ফিরবে। আবার মেদও ঝরবে নিয়মমাফিক।
  • পুজোর সময় হয়তো সবসময় হাইজিন মেনটেন করা সম্ভব হয়নি। আজ থেকে ব্যাক টু প্যাভিলিয়ন। ব্যাগে স্যানিটাইজার মাস্ট। খাওয়ার আগে হাত ধুয়ে নিন। রাখতে পারেন ওয়েট টিসুও। কাজের ফাঁকে পরিশ্রান্ত মনে হলে মুখে, ঘাড়ে, গলায় বুলিয়ে নিন। চটজলদি ফ্রেশ হয়ে যাবেন।
  • সবচেয়ে জরুরি হল ঘুম। যেটা গত চারদিন একেবারেই হয়নি সম্ভবত। তাই আজ থেকে অন্তত সাত ঘণ্টার ঘুম মাস্ট। এতেই কাটতে পারে ক্লান্তি।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty – POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়…