home / Care
খুসকি দূর করতে কাজে লাগান মুলতানি মাটি

খুসকি দূর করতে কাজে লাগান মুলতানি মাটি

মুলতানি মাটিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম, সিলিকা এবং ক্যালসিয়াম, সেই সঙ্গে মজুত রয়েছে আয়রন, ক্যালসাইট এবং ডলোমাইট, যা স্ক্যাল্পের ভিতরে পুষ্টির ঘাটতি যেমন দূর করে, তেমনি টক্সিক উপাদানের মাত্রাও কমায়। ফলে ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটতে সময় লাগে না। (how to use fullers earth in hair care)

সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির খারাপ প্রভাব এবং বায়ু দূষণের মার সহ্য করার পরেও যদি চুল সুন্দর এবং মোলায়েম করে তুলতে হয়, তাহলে স্ক্যাল্প ও চুলের যত্নে মুলতানি মাটির ব্যবহার মাস্ট। কিন্তু প্রশ্ন হল চুলের পরিচর্যায় এই প্রাকৃতিক উপাদানটিকে কীভাবে কাজে লাগানো যেতে পারে?

খুশকির সমস্যা দূর করতে

বাস্তবিকই খুশকির মতো ত্বকের রোগের প্রকোপ কমাতে মুলতানি মাটি বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। তবে এক্ষেত্রে কিন্তু সরাসরি এই মাটিটা স্ক্যাল্পে লাগালে কিন্তু চলবে না। বরং ৪ চামচ মুলতানি মাটির সঙ্গে ৬ চামচ মেথি বীজ এবং ১ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর সেই পেস্টটা স্ক্যাল্পে এবং চুলে লাগিয়ে কম করে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। সময় হয়ে গেলে হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে চুল। (how to use fullers earth in hair care)

এইভাবে সপ্তাহে একবার এই বিশেষ হেয়ারপ্যাক টি কে কাজে লাগালেই দেখবে খুশকির প্রকোপ কমতে শুরু করেছে।

রুক্ষ চুলকে বলুন বাই বাই

মুলতানি মাটি যে শুধু ত্বকের পরিচর্যাতেই কাজে আসে এমন নয়। বরং চুলের যত্নেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে এই প্রাকৃতিক উপাদানটি। যেমন ড্রাই হেয়ারের সমস্যা দূর করতে মুলতানি মাটির কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে।

এক্ষেত্রে ৪ চামচ মুলতানি মাটির সঙ্গে হাফ কাপ দই এবং অর্ধেক লেবু থেকে সংগ্রহ করা রস মিশিয়ে একটি হেয়ারপ্যাক বানিয়ে নিতে হবে। তারপর সেই মিশ্রনটি ধীরে ধীরে স্ক্যাল্প এবং চুলে লাগিয়ে কম করে ২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হব। তারপর সালফেট ফ্রি শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে চুল। এইভাবে সপ্তাহে ২-৩ দিন চুলের যত্ন (how to use fullers earth in hair care) নিলেই দেখবে ফল মিলবে একেবারে হাতে-নাতে!

হেয়ার ফল কমাতে

মাত্রাতিরিক্ত হারে চুল পড়ার কারণে কি চিন্তায় রয়েছো, তাহলে ঝটপট ২ চামচ মুলতানি মাটির সঙ্গে ১ চামচ লেবুর রস, ১ চামচ গোলমরিচ এবং ২ চামচ দই অথবা অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে সেই হেয়ারপ্যাক টি স্ক্যাল্পে লাগিয়ে ফেলো। তারপর ৩০ মিনিট হয়ে গেলে ভালো করে ধুয়ে ফলো চুল।

এই পেস্টটি নিয়মিত কাজে লাগালে চুলের গোড়ায় অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্তে প্রবাহ বাড়তে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই পুষ্টির ঘাটতি দূর হওয়ার কারণে চুল এতটাই শক্তপোক্ত হয়ে ওঠে (how to use fullers earth in hair care) যে হেয়ার ফলের আশঙ্কা প্রায় থাকে না বললেই চলে!

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

11 Feb 2022

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text