Advertisement

বলিউড ও বিনোদন

পরিচালক হিসেবে বলিউডে প্রথম ছবিতে অনিন্দিতা দাশগুপ্তর সাবজেক্ট ‘ধর্ষণ’

Swaralipi BhattacharyyaSwaralipi Bhattacharyya  |  Mar 11, 2020
পরিচালক হিসেবে বলিউডে প্রথম ছবিতে অনিন্দিতা দাশগুপ্তর সাবজেক্ট ‘ধর্ষণ’

Advertisement

সিনেমাকে ভালবাসে তাঁর এই প্রফেশনে আসা। সিনেমার সঙ্গে এক অন্যরকম আত্মার সম্বন্ধ অনুভব করেন তিনি। তিনি অর্থাৎ বাঙালি পরিচালক অনিন্দিতা দাশগুপ্ত। কুমহান (Kumhan) নামেই সিনে মহল এবং নিজের পরিচিতদের কাছে বেশি পরিচিত তিনি। ইন্ডাস্ট্র্রিতে নিজস্ব কায়দায় ছবি তৈরী তথা গল্প বলার জন্যই পরিচিত তিনি। তাঁর কাজ ইতিমধ্যেই বেশ কিছু জায়গায় প্রশংসিত। অনিন্দিতার কাজ দর্শককে পজিটিভ ভাবে ভাবতে সাহায্য করে।

কনটেন্ট ইজ কিং। এই কথাটা এখন ইন্ডাস্ট্রিতে প্রায়শই শোনা যায়। আর এই কথাটা অনিন্দিতার কাছেও যেন বেদবাক্য। তিনি মনে করেন, স্ক্রিপ্টই আসল হিরো। স্ক্রিপ্ট ভাল না হলে যত বড় অভিনেতাই থাকুন না কেন, কোনও ছবি ভাল হতে পারে না। অর্থাৎ চিত্রনাট্যকে প্রাথমিক ভাবে হতে হবে সিনেমার স্ট্রং পয়েন্ট। পরবর্তীতে অনেক সময় সেটাই একমাত্র স্ট্রং পয়েন্ট হয়ে দাঁড়ায়। এ হেন পরিচালক এবার বলিউডে (Bollywood) তাঁর যাত্রা শুরু করবেন। 

অনিন্দিতার বলিউড এন্ট্রির স্ক্রিপ্ট সাইকো অ্যানালিটিক্যাল। তাঁর কথায়, “আমাদের সামাজিক পরিস্থিতির কারণে কখনও কখনও কোনও ব্যক্তির মানসিক অবস্থা এমন পর্যায়ে চলে যায় যে সে ক্রাইম করে ফেলে। সেই জায়গা থেকেই এই গল্প তৈরি হয়েছে।”

চিত্রনাট্য অনুযায়ী, ধর্ষণের ঘটনা পর্দায় তুলে ধরবেন পরিচালক। ধর্ষকের চরিত্রটি সামাজিক প্রেক্ষাপটে দেখাবেন তিনি। ধর্ষণের মতো ঘটনায় যিনি দোষী এবং যিনি ভুক্তভোগী, এই দুজনের পারস্পরিক অভিজ্ঞার নিরিখে এগোবে এই ছবির গল্প। সামাজিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে এই ধরনের ঘটনার কী কী সমাধান হতে পারে, তাও দেখানোর চেষ্টা করবেন পরিচালক।

পরিচালকের কথায়, “যে কোনও ছবি তৈরি করতেই প্রচুর পরিশ্রম করতে হয়। এই ছবির ক্ষেত্রেও প্রচুর এফর্ট রয়েছে। প্রায় ১৮ মাস ধরে শুটিং করেছি আমরা। ২০১৮-র শেষে শুরু করেছিলাম। ২০২০-তে এসে শেষ হল। কলকাতা, মুম্বই আর নাসিকে শুটিং করেছি।”

নিঃসন্দেহে অত্যন্ত স্পর্শকাতর একটি বিষয় নিয়ে ছবি তৈরি করেছেন কুমহান। এক্সপেরিমেন্টাল সাবজেক্টও বলা যেতে পারে। এই বিষয়ের উপর ইতিমধ্যেই অনেক ছবি হয়েছে টলিউডে এবং বলিউডে। তার মধ্যে থেকেও নিজের ভাবনার আঙ্গিকে একেবারে নতুন কিছু দর্শককে দেখাতে পারবেন বলে কনফিডেন্ট কুমহান। আসলে বর্তমান সমাজ ভাবনাও উঠে আসবে এই ছবির হাত ধরে। এখনও পর্যন্ত এই ছবির অভিনেতা-অভিনেত্রীর বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি পরিচালক। ধীরে ধীরে তাঁদের নাম প্রকাশ করবেন তিনি।ভাবনার নতুনত্ব তো বটেই, সিনেম্যাটিক ট্রিটমেন্টের দিক থেকেও যে এই বাঙালি পরিচালক বলিউডকে নতুন কিছু উপহার দিতে চলেছেন, সে ব্যাপারে নিশ্চিত তাঁর ঘনিষ্ঠরা। সব মিলিয়ে আর কিছুদিনের অপেক্ষা। তারপরই বড়পর্দায় মুক্তি পাবে এই ছবি। 

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

২০২০ শুরু করুন আমাদের দারুণ দারুণ প্ল্যানার আর স্টেটমেন্ট সোয়েটশার্ট দিয়ে। এগুলো সবকটাই আপনারই মতো একশ শতাংশ মজার এবং অসাধারণ! ওহ হ্যাঁ, শুধুমাত্র আপনার জন্য রয়েছে ২০ শতাংশ ছাড়ের ব্যবস্থাও। দেরি কিসের আর, এখনই POPxo.com/shop থেকে কেনাকাটা সেরে ফেলুন আর নিজেকে আরেকটু পপ আপ করে ফেলুন!