Advertisement

Festive

পুজোর ফ্যাশন: হ্যান্ড ব্যাগের লেটেস্ট কালেকশন!

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Sep 13, 2021
পুজোর ফ্যাশন: হ্যান্ড ব্যাগের লেটেস্ট কালেকশন!

ছোটবেলা থেকে মা-কে দেখে আসছি সেই এক ধরনের ব্যাগ (handbags) নিয়ে সব জায়গায় যান! সেটা তাঁর কর্মক্ষেত্র হোক কিংবা বিয়েবাড়ি অথবা দুর্গা পুজোতে (Durga Puja) ঠাকুর দেখতে যাওয়া! সেই এক ব্রাউন রঙের একটা হ্যান্ডব্যাগ (handbags)! আর আমি ঠিক উল্টো। আমার বাবা এক-এক জায়গার জন্য, এক-এক অনুষ্ঠানের জন্য এক-এক রকমের ব্যাগ লাগে। তা সে আমাকে যে যাই বলুক না কেন! যেমন অনুষ্ঠান সেরকম পোশাক বা সাজ যদি হতে পারে, তা হলে জুতসই ব্যাগ কেন নেওয়া যাবে না বলুন তো? আর দুর্গা পুজোতে যদি একটু স্টাইল না-ই করলাম, তা হলে আর কী করলাম!

আমাদের মেয়েদের গোটা সংসারটাই যদিও থাকে ওই একটি হ্যান্ডব্যাগের মধ্যেই, তবুও সব জায়গায় তো আর একটা ঢাউস ব্যাগ নিয়ে হাজির হওয়া চলে না। মানছি, একটু বড় ব্যাগ হলে একসঙ্গে তাতে মেকআপের জিনিসপত্র থেকে শুরু করে টাকার ব্যাগ পর্যন্ত সবই টুকটাক জিনিস রাখতে সুবিধে হয়। কিন্তু তা বলে যে ব্যাগ নিয়ে আপনি অফিস যেতে পারেন, সেই ব্যাগ নিয়ে নিশ্চয়ই পার্টিতে যেতে পারেন না! আবার যে ধরনের ব্যাগ আপনি কোথাও বেড়াতে গেলে নেবেন, তেমন ব্যাগ নিয়ে নিশ্চয়ই বিয়েবাড়ি যাবেন না! কাজেই, কয়েকটা বেসিক ব্যাগ আপনার কিন্তু সংগ্রহে রাখা উচিত, যেগুলো আপনি ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে ব্যবহার করতে পারেন, এমনকী এবার দুর্গা পুজোতে ঠাকুর দেখতে যাওয়ার সময়েও!

সফিস্টিকেটেড লেদার স্যাচেল

সকালের দিকে যদি কাছে-পিঠে কোথাও ঠাকুর দেখতে যান, তা হলে সঙ্গে নিতে পারেন একটি লেদার স্যাচেল। যদিও লেদার স্যাচেল বেশিরভাগ মহিলাই অফিসে নিয়ে যাওয়ার জন্য ব্যবহার করেন, তবে পুজোর সময়ে বন্ধুদের সঙ্গে কাছে-পিঠে কোথাও গেলে বা পাড়ার মণ্ডপে বসে আড্ডা দেওয়ার সময়েও এই ধরনের একটি ব্যাগ নিয়ে বেরতে পারেন। ভারতীয় হোক বা পশ্চিমি, যে-কোনও পোশাকের সঙ্গেই কিন্তু এই ব্যাগটি মানানসই।

ঝকমকে বোহো

আপনার যদি বেশ চকমকে জিনিস পছন্দ হয়, তা হলে কিন্তু বোহো স্টাইলের ব্যাগও নিতে পারেন। রঙিন এই ব্যাগগুলো আপনি দুর্গা পুজোর সময়ে সকালে বা রাতে, যখন ইচ্ছে ক্যারি করতে পারেন, সঙ্গে পোশাক যেন অবশ্যই মানানসই হয়, সেটা মাথায় রাখবেন।

ঢাউস টোটে সংসার

টোট ব্যাগ কিন্তু খুব কাজের! যদি আপনি সঙ্গে ছোট বাচ্চা নিয়ে বেরোন দুর্গা পুজোর সময়, তা হলে কিন্তু বেশ কাজে লাগবে এই ব্যাগটি। আবার যদি আপনার সারাদিনের প্রোগ্রাম থাকে, মানে, সকালে একদিকে যাবেন আবার সন্ধেয় পোশাক বদলে অন্যদিকে যাবেন ঠাকুর দেখতে, তা হলেও টোট ব্যাগ নিতে পারেন। এতে অনেক জিনিস একসঙ্গে ক্যারি করতে পারবেন।

ফ্লেক্সিবল ক্রস বডি

লেদার স্যাচেলের আর একটি ভ্যারাইটি বলা যেতে পারে এই ধরনের ব্যাগকে। সপ্তমীর দিন যদি জিনস-টপ পরেন অথবা ফর্মাল কোনও পশ্চিমি পোশাক পরেন, তা হলে এই ব্যাগটি কিন্তু বেশ ভাল যাবে তার সঙ্গে। এমনকী, দুর্গা পুজোর পরেও এই ব্যাগগুলো নিয়ে কিন্তু অনেক জায়গায় যেতে পারেন। যদি আপনিও একটা ব্যাগের মধ্যেই অনেক জিনিস ক্যারি করতে পছন্দ করেন, তা হলে একটু বড় মাপের ক্রস বডি ব্যাগ কিনতে পারেন। আবার অল্প জিনিস নিলে ছোট সাইজের ব্যাগ ভাল। সবচেয়ে ভাল বিষয় হল, এই ব্যাগগুলোতে স্ট্র্যাপ লাগানো থাকে যা টেনে ছোট বা বড় করা যায়।

ঝাড়া হাত পায়ে ঘুরুন স্লিং ব্যাগ নিয়ে

স্লিং ব্যাগে যদিও খুব বেশি জিনিস আপনি ক্যারি করতে পারবেন না, কিন্তু মজার বিষয় হল, এই ব্যাগ নিয়ে কিন্তু আশেপাশে টুক করে ঘুরে আসা যায়। যদি আপনি দুর্গা পুজোর সময়ে ঝাড়া হাত-পায়ে ঘুরতে চান, তা হলে স্লিং ব্যাগ কাঁধে ঝুলিয়ে বেরিয়ে পরুন।

ক্লাসি ক্লাচে মাতান অষ্টমী

দুর্গা পুজোর দিনগুলোর মধ্যে অষ্টমীর সন্ধেটা যেন সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয় সাজগোজের দিক থেকে! জমকালো পোশাকের সঙ্গে নিতে পারেন একটি গোল্ডেন ক্লাচ অথবা পোশাকের রঙের সঙ্গে কনট্রাস্ট করেও ক্লাচ নিতে পারেন। তবে মাথায় রাখবেন, যেহেতু ক্লাচে খুব বেশি জিনিস আঁটে না কাজেই মেকআপের একগাদা সরঞ্জাম নেবেন না!

সব ছবি ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!