logo
Logo
User
home / রূপচর্চা ও বিউটি টিপস
কেমন হবে সকালের স্কিন কেয়ার রুটিন

কেমন হবে সকালের স্কিন কেয়ার রুটিন

হঠাৎ সকালবেলা উঠে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে দেখলেন আপনার ত্বকের জেল্লা উধাও বা সেখানে বলিরেখা দেখা দিয়েছে। আর ওমনি পড়িমরি করে পার্লারে ছুটলেন বা সঙ্গে সঙ্গে জোর কদমে কোমর বেঁধে রূপচর্চায় (morning skin care routine for women) নেমে পড়লেন, এমনটা করা অর্থহীন। তার চেয়ে এখন থেকেই বা আজ থেকেই অল্প অল্প করে রুটিন মেনে ত্বকের যত্ন নিতে শুরু করুন। দেখবেন অনেক জটিল সমস্যার সমাধান সহজেই হয়ে গেছে।

একটা অর্ডার মেনে চলা খুব প্রয়োজন। অনেকেই জানেন না কোন প্রসাধনীর পরে কোনটা ব্যবহার করতে হয়। চাকরি করতে, বাজার করতে বা ছেলে মেয়েকে স্কুলে পৌঁছে দিতে অনেক মহিলাকেই সকালবেলা বাড়ির বাইরে বেরোতে হয়। তাই সকালবেলার স্কিন কেয়ার রুটিন এমনভাবে করতে হবে যাতে সকালে বাইরে বেরোলে সূর্যের ক্ষতিকর অতিবেগুনী রশ্মি, ধুলো, ধোঁয়া ও দূষণের হাত থেকে ত্বককে রক্ষা করা যায়।

ক্লেনজিং: ঘুম থেকে উঠেই ঠান্ডা জল দিয়ে (হ্যাঁ, শীতকালেও) মুখে ঝাপটা দিন। তারপর আপনার ত্বকের উপযোগী কোনও মাইল্ড ফেস ক্লেনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন।

টোনিং: ত্বকের প্রকার অনুযায়ী টোনার বাজারে পাওয়া যায়। অনেক টোনারেই ভিটামিন-বি এবং অ্যাণ্টি-অক্সিডেন্ট থাকে, যা ত্বকের পক্ষে উপযোগী। তবে টোনারের মূল কাজ হল ত্বকের পিএইচ সমতা বজায় রাখা। আপনার ক্লিনজার যদি সেই কাজ করতে সক্ষম হয়ে থাকে তাহলে এই দ্বিতীয় ধাপটি মাঝে মধ্যে স্কিপ করলেও সমস্যা নেই।

অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সিরাম: সিরাম হচ্ছে এমন একটি প্রসাধনী যা ঘন হয় এবং এতে অনেক উপকারি উপাদান থাকে। তাই টোনার স্কিপ করলেও সিরাম স্কিপ করা একদম উচিৎ হবে না। দিনের বেলা ব্যবহার করার জন্য অ্যাণ্টি অক্সিডেন্ট সিরামই সবচেয়ে ভালো। কারণ এটি ত্বকের জ্বালা দূর করে এবং দূষণ ও সূর্যের ক্ষতিকর অতিবেগুনী রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে।

আই ক্রিম: সাধারণত মেয়েদের উচিৎ কুড়ির কোঠায় বয়স হলেই দিনে অন্তত দুবার আইক্রিম ব্যবহার করা। আমরা অনেকেই জানি আমাদের মুখের ত্বকের প্রকার এবং চোখ ও চোখের চারপাশে ত্বকের প্রকার আলাদা। চোখের চারপাশে ত্বকের প্রকার অনেক বেশি স্পর্শকাতর বা ডেলিকেট হয়। তাই তার জন্য এমন আইক্রিম বেছে নেওয়া উচিৎ যা ফাইন লাইনস বা বলিরেখা এবং কোলাজেন নষ্ট হওয়া রোধ করতে পারে। 

স্পট ট্রিটমেন্ট: আপনার মুখে যদি অ্যাকনে থাকে তাহলে এই পঞ্চম ধাপটি আপনার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। তবে তার আগে কোনও রূপ বিশেষজ্ঞ বা ত্বক বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করে নেওয়া বিশেষ প্রয়োজন। সাধারণত বেঞ্জল প্যারক্সাইড আছে এমন কোনও ক্রিম দিয়ে স্পট ট্রিটমেন্ট করা যায়। তবে খেয়াল রাখবেন স্পট ট্রিটমেন্ট কিন্তু ত্বক শুষ্ক করে দেয়। তাই সারা মুখে এই ক্রিম কখনওই লাগাবেন না। ঠিক যতটা প্রয়োজন এবং যে জায়গায় অ্যাকনে হয়েছে সেখানেই লাগাবেন।

ময়শ্চারাইজার: ত্বকের যত্নে সবচেয়ে দরকারি জিনিস হল এই ময়শ্চারাইজার। যারা মনে করেন তাদের ত্বক তৈলাক্ত বলে তাদের ময়শ্চারাইজার লাগবে না, তারা একদমই ভুল ভাবেন। কারণ তৈলাক্ত ত্বকেরও ময়শ্চারাইজার প্রয়োজন। এমনিতেই আমাদের ত্বক থেকে কিছু স্বাভাবিক সেবাম বা তেল বেরোয় যা আমাদের ত্বককে পিচ্ছিল ও তৈলাক্ত রাখে। তা স্বত্বেও আমাদের আলাদা করে ময়শ্চারাইজার প্রয়োজন হয়।

সানস্ক্রিন: দিনের বেলার জন্য ত্বকের রুটিন কেয়ারের সপ্তম ও শেষ ধাপ হল সানস্ক্রিন। সানস্ক্রিন ব্যবহার করার আগে কয়েকটা দরকারি কথা মাথায় রাখতে হবে। আপনি যদি রাসায়নিকযুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করেন তাহলে সেটা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করার বেশ কিছুক্ষণ পরে লাগাবেন। যদি আগে সানস্ক্রিন লাগিয়ে পরে ময়েশ্চারাইজার লাগান তাহলে এই ময়েশ্চারাইজার কোনও কাজেই আসবে না কারণ ততক্ষণে সানস্ক্রিনের রাসায়নিক ত্বকের উপর একটি আবরণ তৈরি করে ফেলেছে।তাই রাসায়নিকযুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহারের চেয়ে খনিজ যেমন জিঙ্কযুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করা অনেক বেশি কার্যকরী হবে।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!       বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

03 Feb 2022

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text