home / রূপচর্চা ও বিউটি টিপস
ঠাকুরমা-দিদিমাদের সৌন্দর্যের গোপন রহস্য লুকিয়ে আছে এই ফেসপ্যাকগুলির মধ্যে!

ঠাকুরমা-দিদিমাদের সৌন্দর্যের গোপন রহস্য লুকিয়ে আছে এই ফেসপ্যাকগুলির মধ্যে!

আচ্ছা, কোনওদিন ভেবে দেখেছেন, আমাদের ঠাকুরমা-দিদাদের সময় তো এত সব ক্লেনজার, টোনারের আবিষ্কার হয়নি, তা হলে তাঁরা কীভাবে ত্বকের যত্ন নিতেন, তা কখনও ভেবে দেখেছেন? না, তা তো কখনও ভাবিনি! ভাবেননি বলেই তো আজ নানা প্রসাধনী কিনে টাকার ধ্বংস করছেন, যেখানে আমাদের হেঁশেলেই এমন কিছু প্রাকৃতিক উপাদান মজুত রয়েছে, যেগুলিকে কাজে লাগিয়ে তৈরি ফেসপ্যাক মুখে লাগালে ত্বকের সৌন্দর্য তো বাড়েই, সঙ্গে ত্বকের বয়সও কমে। মিলিয়ে যায় বলিরেখা। শুধু তাই নয়, ব্রণ থেকে দাগ-ছোপ, ছোট-বড় হরেক রকমের ত্বকের (Skin) সমস্যার থেকেও মুক্তি মেলে অল্প দিনেই। তাই তো বলি, ফেসিয়াল-টোনিং-এর পিছনে হাজার-হাজার টাকা খরচ না করে বরং একবার ঠাকুরমা-দিদার সময়কার বেশ কিছু ফেসপ্যাক মুখে লাগিয়ে দেখুন। উপকার যে পাবেন, সেকথা হলফ করে বলতে পারি।

১. ধনেপাতা এবং হলুদ গুঁড়ো

এই দুই উপাদানকে কাজে লাগিয়ে ‘এক সে বারকার এক’ সুস্বাদু নানা পদ যেমন রান্না করা যায়, তেমনই ত্বকের যত্নেও হলুদ এবং ধনে পাতার কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। বিশেষ করে ধনে-হলুদ মিশিয়ে তৈরি ফেসপ্যাক মুখে লাগালে ব্ল্যাকহেড দূর হয়, সঙ্গে ত্বকের তেলতেলে ভাবও কমে। ফলে ব্রণর মতো ত্বকের সমস্যার ফাঁদে পড়ার আশঙ্কা আর থাকে না। ফেসপ্যাকটি তৈরি করবেন কীভাবে, তাই ভাবছেন নিশ্চয়ই? এক্ষেত্রে চামচদুয়েক হলুদ গুঁড়োর সঙ্গে চামচচারেক ধনেপাতা এবং অল্প করে জল মিশিয়ে নিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করে ফেলুন। রাতে শুতে যাওয়ার আগে সেই পেস্টটা সারা মুখে লাগিয়ে নিন। সকালে উঠে ঠান্ডা জল দিয়ে মুখে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে বারদু’য়েক এই ভাবে ত্বকের যত্ন নিলে উপকার পাবেই পাবেন।

১. ধনে পাতা এবং হলুদ গুঁড়ো

দাগ-ছোপের কারণে কি চিন্তায় রয়েছেন? তা হলে ঝটপট চামচদুয়েক মুলতানি মাটির সঙ্গে আধ চামচ হলুদ গুঁড়ো, সম পরিমাণ চন্দনগুঁড়ো এবং এক চামচ পাতি লেবুর রস মিশিয়ে তৈরি পেস্টটি মুখে লাগাতে শুরু করুন। সপ্তাহে বারদুয়েক এই মিশ্রণটি মুখে লাগালে মুলতানি মাটিতে উপস্থিত magnesium chloride-এর গুণে ব্রণর দাগ মিলিয়ে যেতে সময় লাগবে না। অন্যদিকে হলুদ এবং লেবুর রসে উপস্থিত নানা উপকারী উপাদানের কারণে ত্বকের ভিতরে pH level-এর ভারসাম্য ফিরে আসবে, যে কারণে ত্বকের জেল্লা বাড়তে সময় লাগবে না। তবে পেস্টটা মুখে লাগানোর পরে কম করে মিনিটদশেক অপেক্ষা করে তবেই ধোবেন, না হলে কিন্তু কোনও উপকারই মিলবে না।

২. মুলতানি মাটি এবং পাতি লেবুর রস

সারা বছরই যাঁদের ত্বক খুব শুষ্ক থাকে, তাঁদের জন্য এই ফেসপ্যাকটি আদর্শ। কারণ, ত্বকের হারিয়ে যাওয়া আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনতে দইয়ের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। এদিকে ত্বকের উপরে জমে থাকা মৃত কোষের আবরণ সরিয়ে ফেলতে বেসনের জুড়ি মেলা ভার। আর যদি দই-বেসনের সঙ্গে অল্প করে মধু মিশিয়ে নিতে পারেন, তাহলে তো কথাই নেই। সেক্ষেত্রে ত্বক ভিতর থেকে এতটাই সুন্দর হয়ে উঠবে যে বাইরের লাবণ্য বাড়তে সময় লাগবে না। এত সব উপকার পেতে চামচদুয়েক বেসনের সঙ্গে এক চামচ করে দই এবং মধু মিশিয়ে নিয়ে সেই পেস্ট মুখে এবং গলায় লাগিয়ে মিনিটপাঁচেক আপেক্ষা করুন। সময় হওয়া মাত্র ঠান্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এই ফেসপ্যাকটি মুখে লাগালে ত্বক নিয়ে আর কোনও চিন্তাই থাকবে না।

৩. দই এবং বেসন

পেট ঠান্ডা রাখতে এবং শরীরে প্রদাহের মাত্রা কমাতে মেথির যেমন কোনও বিকল্প নেই, তেমনই ত্বকের যত্নে এই প্রাকৃতিক উপাদনটি কাজে লাগালেও নানা উপকার পাওয়া যায়। বিশেষ করে ব্রণর প্রকোপ কমতে সময় লাগে না। এক্ষেত্রে এক গ্লাস জলে চামচতিনেক মেথি ভিজিয়ে সারা রাত রেখে দিতে হবে। পরদিন সকালে মেথি বীজগুলি পিষে নিয়ে তৈরি পেস্ট সারা মুখে লাগিয়ে মিনিটপনেরো অপেক্ষা করতেই হবে। যখন দেখবেন পেস্টটা ড্রাই হতে শুরু করেছে, তখন ঠান্ডা জল মুখ ধুয়ে নেবেন। সপ্তাহে বারদুয়েক মেথির পেস্ট মুখে লাগালেই ব্রণর প্রকোপ কমবে। সঙ্গে দাগ-ছোপও মিলিয়ে যাবে।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!

20 Aug 2019
good points

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text