logo
Logo
User
home / ওয়েলনেস
শীতে শ্বাসকষ্ট হয়? ঘরোয়া উপায়ে যত্ন নিন ফুসফুসের

শীতে শ্বাসকষ্ট হয়? ঘরোয়া উপায়ে যত্ন নিন ফুসফুসের

শীতকালে বৃষ্টি! ভাল লাগে বলুন তো? কোথায় শীতের দুপুরে মিঠে রোদে বসে কমলা লেবু খাবো আর গুনগুন করে গান গাইব, তা না, প্যাচপ্যাচে বৃষ্টি আর স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়া! সেগুলোও না হয় মেনে নেওয়া যেত, কিন্তু এই স্যাঁতস্যাঁতে ঠান্ডা আবহাওয়ায় সর্দি-কাশির দাপট যে বেড়েছে বড্ড। আর এখন কাশি হলেই ভয় লাগছে। (natural ways to take care of lungs and get rid of asthma due to corona virus)

এমন অনেকেই রয়েছেন, যারা শীতে আনন্দই করতে পারেন না। শীত এলেই শুরু হয়ে যায় কাশি আর তারপরে শ্বাসকষ্ট। যত বেশি ঠান্ডা বাড়ে, অনেকেরই ফুসফুসের সংবেদনশীলতাও বাড়ে। অন্যদিকে শীতকালে জীবাণু অন্য সময়ের তুলনায় অনেক বেশি সক্রিয় থাকে। এছাড়া রয়েছে ধুলো। বাতাসে আর্দ্রতা কমে যায় সাধারণত শীতের সময়ে। ফলে প্রচন্ড ধুলোবালির পরিমান বেড়ে যায়। এর এই সবগুলোই ফুসফুসের সংবেদনশীলতা বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট। ফলে শুরু হয়ে শ্বাসকষ্ট।

শ্বাসকষ্টের বাড়াবাড়ি হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে দেরি করবেন না। কারণ, এই মুহূর্তে ঠিক কী কারণে শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা দেখা দিচ্ছে তা জেনে নেওয়া জরুরি। তবে, রইল কিছু ঘরোয়া পরামর্শও, যা আপনাকে শ্বাসকষ্টের সমস্যা থেকে তাৎক্ষণিক আরাম দেবে এবং শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা থেকে আপনার ফুসফুসকেও রক্ষা করবে (natural ways to take care of lungs and get rid of asthma due to corona virus)

প্রাণায়াম করা

নিয়মিত প্রাণায়াম করলে শ্বাসের উপরে নিয়ন্ত্রণ তৈরি হয়। এছাড়াও কিছু কিছু প্রাণায়াম রয়েছে যা ফুসফুসের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। আনুলোম-বিলোম, নাড়িশুদ্ধি, কপালভাতি অথবা ভ্রামরী নিয়মিত করতে পারলে ফুসফুস ভাল থাকবে এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যাও থাকবে না।

এক্সারসাইজ করা

চিকিৎসক এবং ফিটনেস বিশেষজ্ঞদের মতে, ফুসফুস ভাল রাখতে চাইলে নিয়মিত এক্সারসাইজ করাটা মাস্ট। প্রশিক্ষকের তত্ত্বাবধানে শ্বাসের জন্য ব্যায়াম করতে পারেন। শুধু শীতকালে না, সারা বছরই ব্যায়াম করাটা জরুরি। এছাড়া আপনি চাইলে নানা যোগমুদ্রা প্র্যাক্টিস করতে পারেন যাতে আপনার ফুসফুস স্ট্রং হয়। (natural ways to take care of lungs and get rid of asthma due to corona virus)

ভেপার নেওয়া

সর্দি-কাশি দূর করার জন্য ভেপার নেওয়া অত্যন্ত পুরনো একটি পদ্ধতি। পুরনো হলেও এর মত কার্যকরী পদ্ধতি কিন্তু খুব কমই রয়েছে। ফুসফুসে যে মুহূর্তে জীবাণু আক্রমণ করে, তখন থেকেই ফুসফুস সংবেদনশীল হয়ে পড়ে। অনেক সময়ে সর্দির প্রকোপ এত বেশি হয় যে বুকে কফ জমে যায় এবং তা থেকে শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। ফুটন্ত জলে কারভল মিশিয়ে যদি স্টিম বা ভেপার নিতে পারেন, অর্থাৎ নাক দিয়ে ধোঁয়া টেনে মুখ দিয়ে ছাড়তে পারেন, সেক্ষেত্রে কিন্তু ফুসফুস পরিষ্কার হয় এবং জীবাণু নাশ হয়। এমনকী, চিকিৎসক ও গবেষক মহলের একাংশের দাবি, করোনা ভাইরাস পরাজিত করতে স্টিম নেওয়া কিন্তু খুব ভাল একটি অপশন।

নিয়ন্ত্রিত কাশি

কাশি হলে কীভাবে নিয়ন্ত্রণ করবেন তাই ভাবছেন তো? না, কাশি চেপে রাখার কথা বলছি না, তবে একটি বিশেষ ছন্দে যদি কাশেন, সেক্ষেত্রে ফুসফুসের উপরে চাপ পড়ে না। ফলে ফুসফুস দুর্বল হয়ে পড়ার আশঙ্কা অনেকটা কমে। আর সেই সঙ্গে শ্বাসকষ্টের সমস্যাও অনেকটা কমে যায়। কীভাবে প্র্যাক্টিস করবেন বলে দিচ্ছি। যে-কোনও পরিষ্কার জায়গায় দাঁড়িয়ে বা বসে মাথা সামনের দিকে ঝুঁকিয়ে দিন। এবার ধীরে ধীরে কিন্তু বড় করে শ্বাস নিন এবং সামান্য মুখ খুলে কাশুন। এভাবে কয়েকবার করুন, দেখবেন কাশির দমক এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। (natural ways to take care of lungs and get rid of asthma due to corona virus)

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

24 Jan 2022

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text