Advertisement

বিনোদন

এয়ারপোর্টে পৌঁছলেন নুসরত জাহান ও নিখিল জৈন, শুরু হল NJ বিবাহ অভিযান

Doyel BanerjeeDoyel Banerjee  |  Jun 16, 2019
এয়ারপোর্টে পৌঁছলেন নুসরত জাহান ও নিখিল জৈন, শুরু হল NJ বিবাহ অভিযান

Advertisement

অবশেষে হবু স্বামী নিখিল জৈন আর বাড়ির লোকের (Nikhil Jain) সঙ্গে ইস্তাম্বুলের (Istambul) বোদরুমের পথে রওনা দিলেন নুসরত জাহান (Nusrat Jahan)। কলকাতা এয়ারপোর্টে (airport) মধ্য রাতে দলবল নিয়ে পৌঁছে যান দু’জনেই। নিখিলের মুখে ছিল প্রশান্ত হাসি। বোঝাই যাচ্ছিল, সুন্দরী হবু স্ত্রী পেয়ে দারুণ খুশি নিখিল জৈন। খুশি যে নুসরতও (Nusrat Jahan) যথেষ্ট হয়েছেন, সেটা তাঁর মুখ দেখে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছিল। বলা চলে এক প্রকার বিনা মেকআপেই ছিলেন নায়িকা। তা সত্ত্বেও তাঁর মুখে ছিল এক অদ্ভুত লাবণ্য। আর এই লাবণ্য কখনওই মেকআপ (makeup) থেকে আসে না। এই লাবণ্য আর আভা আসলে যে ভালবাসার, সেটা আর আলাদা করে বলে দিতে হবে না। নিখিল আর নুসরতের নামের আদ্যক্ষরের মধ্যে রয়েছে আশ্চর্য মিল! দুজনেরই নাম আর পদবির আদ্যাক্ষর এক, NJ! আর তাই দুটো একসঙ্গে জুড়ে তৈরি হয়েছে নতুন হ্যাশট্যাগ #theNJaffair! 

বলা হচ্ছিল যে, বিয়ের দিন ডিজাইনার সব্যসাচীর লেহঙ্গা পরবেন নুসরত। নিখিলের পোশাকও সব্যসাচীই ডিজাইন করেছেন। তবে শোনা যাচ্ছে যে নুসরতের গায়ে হলুদের দিন নিখিলের বাড়ি থেকে কনের জন্য যে তত্ত্ব আসে সেখানে ছিল একটি লাল বেনারসি। আর এই শাড়িটি নুসরতের শাশুড়ি-মা নিজে পছন্দ করে পাঠিয়েছেন হবু পুত্রবধূর জন্য। নুসরতের বেশ পছন্দ হয়েছে সেই শাড়ি আর তিনি নাকি সেটাও পরতে পারেন বিয়ের অনুষ্ঠানে। 

গায়ে হলুদের প্রসঙ্গ যখন উঠল তখন একটা খবর আপনাদের না দিয়ে পারছি না। গায়ে হলুদের দিন যথেষ্ট আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন নুসরত। পরের দিনই ছিল ফাদার্স ডে। তাই বাবাকে জড়িয়ে হাউ-হাউ করে কেঁদে ফেলেন তিনি। মেয়েরা বিয়ে করে বাবার কাছ থেকে অন্য বাড়িতে চলে যায়। বোঝা যাচ্ছে, নুসরতও সেই একই কথা ভেবে কষ্ট পাচ্ছেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, নুসরত তাঁর বাবার নয়নমণি। নির্বাচনী প্রচারের সময় নুসরতের বাবা প্রায় সারাক্ষণ মেয়েকে সঙ্গ দিয়েছেন। প্রচণ্ড গরমে নুসরত ক্লান্ত হয়ে পড়লে তাঁকে জল ও মিষ্টি খাইয়ে দিয়েছেন। নায়িকা সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ারও করেন। তবে গায়ে হলুদের ছবিটি দেখে নুসরতের অনেক ভক্তেরই চোখে জল এসে গেছে।  

বাবাকে ফাদার্স ডে’র শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নায়িকা। বাবাকে “আই লাভ ইউ ড্যাডি” বলেছেন নুসরত। তিনি এও বলেছেন যে বাবার কাছ থেকেই প্রথম মানবতার শিক্ষা পেয়েছেন তিনি। বাবা তাঁর সব সময় খেয়াল রেখেছেন। নুসরত প্রার্থনা করেছেন সব মেয়েরাই যেন তাঁর মতো বাবা পায়। 

আজ সঙ্গীত আর মেহন্দি দিয়ে শুরু হবে নুসরত ও নিখিলের বিবাহ অনুষ্ঠান। কাল হবে একটি পার্টি। যেখানে বোহেমিয়ান থিম রাখা হয়েছে। তারপর ১৯ তারিখ বিয়ে হবে। বিয়ের পর ইউরোপের কোনও শহরে হনিমুনে যাওয়ার ইচ্ছে আছে নিখিল ও নুসরতের। তবে ২৫ তারিখের মধ্যে নুসরতকে দেশে ফিরতেই হবে, কারণ সেই দিন তিনি সাংসদ হিসেবে কাজে যোগ দেবেন। ৪ জুলাই কলকাতার বন্ধু বান্ধব ও ইন্ডাস্ট্রির জন্য পার্টি দেবেন তিনি। তার নিমন্ত্রণপত্রও পৌঁছে গিয়েছে সকলের কাছে!

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!