Advertisement

ডি আই ওয়াই লাইফ হ্যাকস

#POPxoLucky2020: জেনে নিন, রাশি অনুযায়ী আপনি মানুষটি ঠিক কীরকম, সোজাসাপটা নাকি ভারী কুচুটে

Parama SenParama Sen  |  Dec 18, 2019
#POPxoLucky2020: জেনে নিন, রাশি অনুযায়ী আপনি মানুষটি ঠিক কীরকম, সোজাসাপটা নাকি ভারী কুচুটে

জানি, একথা বলার সঙ্গে-সঙ্গে গেরামভারী মুখ করে আপনি জিজ্ঞেস করবেন যে, আচ্ছা, তা হলে আমি খুনি হব নাকি নোবেলজয়ী ইকনমিস্ট, সেটা তা হলে আমার রাশি (sun sign) ঠিক করবে? রাম কহো, তাই কখনও হয় নাকি। শোনেননি, মানুষ নিজের ভাগ্য আসলে নিজেই গড়ে? আপনার ক্ষেত্রেই বা তার ব্যতিক্রম হবে কেন শুনি? আসলে আমরা বলছি, কারও রাশির উপর তার চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য (Characteristics) অনেকটাই নির্ভর করে। কোনও মানুষকে চেনার সময় যদি জানতে পারেন তিনি তুলা নাকি মীন, মকর নাকি ধনু, বৃশ্চিক নাকি সিংহ, তা হলে তার মনটা আগে থেকেই অনেকটা পড়ে ফেলতে পারবেন। নতুন বছরে আমরা পা দিতে চলেছি। শুরু হতে চলেছে নতুন দশকও। তাই সেখানে ঢোকার আগে নতুন কিছু জেনে নিতে পারলে মন্দ হয় না, বলুন? তাই আমরা নিয়ে এসেছি রাশিপুরাণ, মানে, রাশি অনুযায়ী নিজেকে এবং অন্যদের চিনে নেওয়ার খতিয়ান।

১. মেষ রাশি

২১ মার্চ থেকে ২০ এপ্রিলের মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি মেষ রাশির জাতক-জাতিকা।

এটি হল রাশিচক্রের প্রথম রাশি, ফলে এর আচরণ অনেকটা সদ্যোজাত শিশুর মতো, আপনভোলা, নিজেকে নিয়েই যে মেতে থাকে। শিশুর মতোই নিজের খুশি, ভাল লাগা-মন্দ লাগা জাহির করতে এরা একটুও পিছপা হয় না। এদের মনে কোনও ভণিতা নেই। সোজা কথা পরিষ্কার মুখের উপরে বলে দেয়। এরা অকুতোভয় এবং নিজেদের কাজকর্ম ও কথাবার্তা নিয়ে নিঃসংশয়। কোনও কিছু লুকিয়েচুরিয়ে করাটা এদের ধাতে নেই। 

পজিটিভ দিক: সাহসী, দৃঢ়প্রতিজ্ঞ, আত্মবিশ্বাসী, উৎসাহী, আশাবাদী, সৎ, প্যাশনেট

নেগেটিভ দিক: অধৈর্য, মুডি, বদরাগী, হঠকারী, আগ্রাসী

২. বৃষ রাশি

২১ এপ্রিল থেকে ২০ মে-র মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি বৃষ রাশির জাতক-জাতিকা।

রাশিটির নামই যখন বৃষ, তখন এই রাশির জাতক-জাতিকারা যে একটু একগুঁয়ে, লম্বা-চওড়া হবে, তা তো বলাই বাহুল্য। তবে এরা কিন্তু পরিশ্রমী, মাথার ঘাম পায়ে ফেলে কাজ করতে পারে। তবে এই পরিশ্রম এরা চট করে করতে চায় না, খুব পিছনে পড়ে থাকলে তবে বৃষ রাশির লোকদের দিয়ে কাজ করানো যায়। এরা ভারী দিলখোলা মনের মানুষ। কিন্তু একগুঁয়ে বলে নিজেদের পছন্দ-অপছন্দের গুরুত্ব এদের কাছে সবচেয়ে বেশি। তার বাইরে এদের ঠেলে নিয়ে যাওয়াটা একটু সমস্যার।

পজিটিভ দিক: বিশ্বস্ত, ধৈর্যশীল, বাস্তবতাবাদী, নিবেদিতপ্রাণ, ভরসাযোগ্য, স্থিতিশীল

নেগেটিভ দিক: একরোখা, ভীষণ আঁকড়ে থাকতে চায়, একটুও মানিয়েগুছিয়ে চলতে পারে না 

 

৩. মিথুন রাশি

২১ মে থেকে ২০ জুন-এর মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি মিথুন রাশির জাতক-জাতিকা।

মিথুন রাশির লোকেদের মন বোঝা ভারী কঠিন। কারণ, তাদের মধ্যে থাতে দ্বৈত সত্ত্বা। ওই একটা গানের লাইন আছে না, কখনও পিঙ্গল, কখন সবুজ, কখন বুঝি আর কখন অবুঝ…এটা মনে হয় মিথুন রাশির লোকেদের কথা ভেবেই লেখা হয়েছিল। এরা এই ভারী সহজ-সরল, তো এই ভারী কঠিন-কঠোর। কাজেই একটু সমঝে চলুন এদের। তবে উপরে-উপরে এটা কিন্তু চট করে লোকের মন জিতে নিতে ওস্তাদ।  

পজিটিভ দিক: নরমসরম, স্নেহপ্রবণ, কৌতূহলী, মানিয়েগুছিয়ে চলতে জানে, তাড়াতাড়ি শিখে নেয়

নেগেটিভ দিক: নার্ভাস, কোনও কনসিস্টেন্সি নেই, সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে

৪. কর্কট রাশি

২১ জুন থেকে ২২ জুলাই-এর মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি কর্কট রাশির জাতক-জাতিকা।

এরা কল্পনার ডানায় ভর করে উড়ে যেতে পারে বহুদূর। বাস্তবের সঙ্গে এদের প্রায় কোনও সম্পর্ক নেই, নিজেদের দূরদৃষ্টির উপর এদের অগাধ বিশ্বাস এবং তার উপর ভিত্তি করেই জীবনের সব সিদ্ধান্ত নিতে পছন্দ করে এরা। তবে কর্কট রাশির লোকেরা ভারী প্রেমিক মনের মানুষ। যাকে ভালবাসে, তার জন্য এরা সবকিছু করতে পারে। তাদের কাছ থেকে কোনও আঘাত পেলে এরা একেবারে ভেঙে পড়ে। কিন্তু কারও প্রেমে পড়ার আগে এরা অনেকবার ভাববে, তারপর সিদ্ধান্ত নেবে।

পজিটিভ দিক: অতিরিক্ত মাত্রায় কল্পনাপ্রবণ, বিশ্বস্ত, ভাবুক, সহানুভূতিশীল, পটাতে ওস্তাদ

নেগেটিভ দিক: মুডি, নিরাশাবাদী, সন্দেহপ্রবণ, নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে

৫. সিংহ রাশি

২৩ জুলাই থেকে ২২ অগস্ট-এর মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি সিংহ রাশির জাতক-জাতিকা।

এটি হল রাশিচক্রের (zodiac sign) রাজা রাশি! পৃথিবীর বাকি সকলে এদের কথা শুনে চলুক, কারণ, এদের জ্ঞান, বিচারশক্তি এবং বিবেচনার কোনও জুড়ি নেই। আমরা নই, এমনটা সিংহ রাশির লোকেরা নিজেদের সম্বন্ধে ভাবে। এদের ভরসা করতে পারেন, বিশ্বাস করতে পারেন, কারণ, তার দাম এরা দিতে পারে। এরা জন্ম নেতা, যে-কোনও পরিস্থিতিতে এরা নেতৃত্ব দিয়ে সকলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে। অবশ্য, অনেক সময় সেটাই সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। কারণ, সেই একই গ্রুপে আর কোনও নেতা থাকলে সিংহ রাশির লোকেরা মোটেও পছন্দ করে না।

পজিটিভ দিক: ক্রিয়েটিভ, ভাবপ্রবণ, দাতাকর্ণ, ভাল মনের, হাসিখুশি, রসিক

নেগেটিভ দিক: অবাধ্য, একরোখা, নিজেকে নিয়েই থাকতে ভালবাসে, অলস, একবগ্গা

৬. কন্যা রাশি

২৩ অগস্ট থেকে ২২ সেপ্টেম্বর-এর মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি কন্যা রাশির জাতক-জাতিকা।

সারা জীবন জ্ঞান আহরণ করতে পারলে কন্যা রাশির লোকেরা আর কিছু চায় না। এরা বইয়ের মধ্যে ডুবে থাকতে ভালবাসে, বইপোকা বললেও এদের কম বলা হয়! এরা ভারী ঠোঁটকাটা। সত্যি কথাটা মুখের উপর বলে দিতে পছন্দ করে, তা উল্টো দিকের ভাল লাগল কী লাগল না, তাতে এদের কিচ্ছুটি যায়-আসে না। এই জন্য কন্যা রাশির লোকেদের বন্ধুর সংখ্যা খুব কম হয়। তবে এদের মুখের কথাকে মনে না নিয়ে যদি আপনি এদের সঙ্গে বন্ধুত্ব টিকিয়ে রাখতে পারেন, তা হলে দেখবেন, এদের চেয়ে বিশ্বস্ত বন্ধু আর নেই। 

পজিটিভ দিক: বিশ্বস্ত, খুঁটিনাটি বিচার করে চলে, দয়ালু, পরিশ্রমী, প্র্যাকটিক্যাল

নেগেটিভ দিক: লাজুক, চিন্তাশীল, অতিরিক্ত সমালোচনা করে, খালি কাজ নিয়েই বাঁচে

৭. তুলা রাশি

২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ২২ অক্টোবর-এর মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি তুলা রাশির জাতক-জাতিকা।

এই রাশির সিম্বলটিই বলে দেবে তুলা রাশির মানুষেরা আসলে ঠিক কেমন। এদের মতো ব্যালান্সড সাইন রাশিচক্রে আর নেই। এরা কোনও বিতর্কে জড়ায় না। ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগান, বাঙাল-ঘটি, চিংড়ি-ইলিশ, কোনও কিছু নিয়ে তর্ক করা এদের ধাতে নেই। অন্যরা যখন তর্ক করে সেটাকে প্রায় ঝগড়া পর্যায়ে নিয়ে চলে গিয়েছে, তখনও তুলা রাশির লোকেরা দুই দলকেই সাপোর্ট করার চেষ্টা করে নিজেদের মতো করে। এরা ঘরে-বাইরে সকলের প্রিয় হয়। কিন্তু কেউ যদি কোনও তুলা রাশির লোককে কোনও কারণে চটিয়ে ফেলেন, তা হলে সাবধান। এরা চুপচাপ থাকবে, কিন্তু একদিন-না-একদিন নিজের অপমানের বদলা নেবেই! 

পজিটিভ দিক: মিলেমিশে কাজ করতে পছন্দ করে, বিতর্ক থেকে গা বাঁচিয়ে চলে, লোকজন পছন্দ করে, সোজাসাপটা

নেগেটিভ দিক: সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে, কোনও ঝামেলায় জড়াতে চায় না, রাগ পুষে রাখে, হীনম্মন্যতায় ভোগে

৮. বৃশ্চিক রাশি

২৩ অক্টোবর থেকে ২১ নভেম্বর-এর মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি বৃশ্চিক রাশির জাতক-জাতিকা।

নিজেদের লক্ষটা বৃশ্চিক রাশিক লোকেদের কাছে ভারী পরিষ্কার এবং সেই দিকে সব বিপদ-বাধা তুচ্ছ করে এগিয়ে যেতেই এবং সেটি হাসিল করতে পছন্দ করে এরা। যে-কোনও পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে ডরায় না এরা। এদের অদম্য মনোভাব ও সাহসের কাছে হার মানে অনেক বড়-বড় বিপদও। অত্যন্ত কঠিন সমস্যাও এরা হেলায় সমাধান করে দেয়। কিন্তু বৃশ্চিক রাশির লোকেদের সঙ্গে কখনও পঙ্গা নিতে যাবেন না। এরা কখনও-কখনও উগ্র মূর্তি ধারণ করে আপনার এইসা খারাপ হাল করবে যে, আপনি আর কিচ্ছুটি করার মতো জায়গায় থাকবেন না।

পজিটিভ দিক: সাহসী, প্যাশনেট, একগুঁয়ে, বিশ্বস্ত বন্ধু, সবকিছুতে ঝাঁপিয়ে পড়ে

নেগেটিভ দিক: চট করে কোনওকিছু বিশ্বাস করে না, হিংসুটে, গোপনীয়তা রাখতে ভালবাসে, হিংস্র মনোভাবাপন্ন

৯. ধনু রাশি

২২ নভেম্বর থেকে ২১ ডিসেম্বর-এর মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি ধনু রাশির জাতক-জাতিকা।

এরা হল ভারী ভাবুক এবং জাগতিক সুখ-দুঃখকে এরা ভারী ছোটখাটো জিনিস বলে মনে করে। এদের কাছে চিন্তার বিষয় অনেক বড় কিছু। এরা একটু দার্শনিক গোছের। আলু-পটলের দাম নিয়ে আলোচনা করার চেয়ে থিওরি অফ রিলেটিভিটি নিয়ে আলোচনা করতে এরা অনেক বেশি স্বচ্ছন্দ। এরা আবার বেশ দানবীর টাইপেরও হয়। আপনার বন্ধু-বান্ধবদের তালিকায় ধনু রাশির কেউ থাকলে নিশ্চিন্ত থাকবেন, সে আপনাকে ভাল উপহার দেবেই।

পজিটিভ দিক: দিলখোলা, মতবাদে বিশ্বাসী, রসিক

নেগেটিভ দিক: যতটা করতে পারবে, তার চেয়েও বেশি বিশ্বাস করে, অধৈর্য, বাচাল

১০. মকর রাশি

২২ ডিসেম্বর থেকে ১৯ জানুয়ারি-র মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি মকর রাশির জাতক-জাতিকা।

সিংহ রাশির পরে রাশিচক্রের দ্বিতীয় নেতা রাশিটি হল এই মকর রাশির লোকেরা। এরা মনেপ্রাণে বিশ্বাস করে যে, জীবনে ছোট কিছু করার জন্য এদের জন্ম হয়নি। বরং এরা চাইলে পৃথিবীর ইতিহাস বদলে দিতে পারে। এদের উপর আপনি মন খুলে বিশ্বাস করতে পারেন। এরা কোনওদিন আপনাকে ঠকাবে না। তবে এদের বন্ধুর সার্কল খুব একটা বড় হয় না। কারণ, এরা সকলের সামনে নিজেদের মেলে ধরতে পারে না।

পজিটিভ দিক: ভরসার যোগ্য, নিয়মানুবর্তিতায় বিশ্বাসী, নিজের উপর লাগাম পরাতে ভালবাসে, দায়িত্ব নিয়ে কাজ করাতে পারে

নেগেটিভ দিক: সবজান্তা, ক্ষমা করতে পারে না, সবকিছু মন্দ কিছু হওয়ার আশঙ্কা করে

১১. কুম্ভ রাশি

২০ জানুয়ারি থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারি-র মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি কুম্ভ রাশির জাতক-জাতিকা।

এরা খুবই ক্রিয়েটিভ এবং বুদ্ধিমান মানুষ। এদের বন্ধুদের সার্কল খুব বড়, কারণ, ঝাঁকের কই হয়ে থাকতে এরা খুবই পছন্দ করে। তবে এরা আবার মাঝে-সাঝে একটু বদরাগীও হয়ে যায় বটে। আসলে নিজেদের মতো করে কাজ করতে খুব ভালবাসে কুম্ভ রাশির লোকেরা। কেউ যদি তাদের পথটিকে বেঠিক বলে এবং তাদের অন্য কোনও রাস্তা ধরে চলার পরামর্শ দেয়, তা হলেই বিপদ!

পজিটিভ দিক: উদারমনস্ক, স্বাবলম্বী, মানবিকতা বোধ আছে, স্বাধীনচেতা

নেগেটিভ দিক: অল্পেতেই মাথা গরম করে ফেলে, একেবারেই মানিয়েগুছিয়ে চলতে পারে না, যে-কোনও ঝামেলা থেকে গা বাঁচিয়ে চলতে ভালবাসে

১২. মীন রাশি

১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০ মার্চ-এর মধ্যে আপনার জন্মদিন হলে আপনি মীন রাশির জাতক-জাতিকা।

মিনমিনে মীন! এই রাশিক লোকেদের এভাবে বর্ণনা করলে খুব একটা ভুল হবে না। আসলে এদের ব্যক্তিত্বই অনেকটা এরকম। নেতিয়ে পড়া টাইপস। তবে নিজেদের আশপাশের মানুষদের ভারী গুছিয়ে খেয়াল রাখে এরা। তাদের কথা শুনে চলে, তাদের মতামতের গুরুত্ব দেয়। আবার অনেকসময় এরা নিজেদের একটা আলাদা দুনিয়া তৈরি করে ফেলে এবং সেই দুনিয়ার একা বাসিন্দা হিসেবে দিব্যি সুখে-শান্তিতে থাকে।

পজিটিভ দিক: শিল্পী মানুষ, নরমসরম, জ্ঞানী, গানবাজনা নিয়ে থাকতে ভালবাসে, কল্পনাপ্রবণ

নেগেটিভ দিক: ভিতু, বেশি বিশ্বাস করে ফেলে, দুঃখী, বাস্তব থেকে পালিয়ে চলতে ভালবাসে, বিপ্লবী

https://bangla.popxo.com/article/try-these-notebooks-from-popxo-brand-new-zodiac-collection-in-bengali

এই দশকটি আমরা শেষ করতে চলেছি #POPxoLucky2020-র মাধ্যমে। যেখানে আপনারা প্রতিদিন পাবেন নতুন-নতুন সারপ্রাইজ। আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম…আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার আগামী বছরটা POPup করে ফেলুন!