home / মেকআপের সরঞ্জাম
বিয়ের কনের জন্য কিছু প্র্যাক্টিক্যাল মেকআপ শপিং গাইড রইল

বিয়ের কনের জন্য কিছু প্র্যাক্টিক্যাল মেকআপ শপিং গাইড রইল

আপনি সাজতে ভালবাসুন ছাই না ভালবাসুন, মেকআপ আপনার বেস্ট ফ্রেন্ড হোক ছাই না হোক, আপনার সংগ্রহে হরেক রকমের মেকআপ প্রোডাক্ট থাকুক ছাই না থাকুক, আপনি যদি বিয়ের কনে হন, তা হলে মেকআপ শপিং আপনাকে করতেই হবে। তর্কের খাতিরে ধরে নিচ্ছি যে, মেকআপ করতে কিংবা সাজুগুজু করতে মেয়ে মাত্রই ভালবাসে আর সে যদি বিয়ের কনে হয়, তা হলে বেনারসি কেনার মতো প্রসাধনী কেনাটাও অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কাজ হয়ে দাঁড়ায়। (practical bridal makeup buying tips)

আর বেশিরভাগ হবু কনেই তখন বুঝতে পারেন না যে, ঠিক কেনা উচিত আর কোনটাই বা বাদ দিলেও চলে। আর বিয়ের কনের ক্ষেত্রে মেকআপ ব্যাপারটা আরও জরুরি হয়ে দাঁড়ায় বিয়ে-পরবর্তী সময়ের জন্যও। তখন একগাদা অনুষ্ঠানে যেতে হয়, যেখানে নতুন বউয়ের একটু সাজুগুজুর প্রয়োজন তো হয়ই। ফলে মেকআপ কিটের দরকার পড়বেই। তাই আমরা এসে গিয়েছি সেই গুরুতর সমস্যার সমাধান নিয়ে। হবু কনের মেকআপ কিটে কী-কী থাকা জরুরি এবং কেন জরুরি, সেকথা তো বলা হলই, সঙ্গে রইল একগুচ্ছ মেকআপ প্রোডাক্টের সাজেশনও। 

প্রাইমার

এই প্রোডাক্টটির প্রয়োজন মুখের সব ত্রুটি ঢেকে একটি প্রাথমিক বেস তৈরি করে দেওয়ার জন্য। যাঁরা ভাবছেন যে, তাঁদের ত্বক এতটাই নিখুঁত যে, দাগছোপের সেখানে কোনও প্রশ্নই নেই, তাঁদের উদ্দেশ্যে বলছি, ফাউন্ডেশন ত্বকে সঠিকভাবে মিলিয়ে দেওয়ার জন্যও প্রাইমারের প্রয়োজন হয়। সুতরাং, বিয়ের কনের মেকআপ কিটে এই প্রোডাক্টটি থাকা চাই-ই। তবে কেনার সময় নিজের স্কিন টোনের সঙ্গে মিলিয়ে নেবেন এবং ত্বকের ধরনের উপর নির্ভর করে প্রাইমার বেছে নেবেন।

ফাউন্ডেশন

প্রাইমারের পর যে প্রোডাক্টটি সবচেয়ে বেশি জরুরি, সেটি হল ফাউন্ডেশন। ফুল কভারেজ দেওয়ার জন্য এটি চাই-ই। আমাদের অনেকেরই ধারণা আছে যে, ফাউন্ডেশন মুখে একটা কেক টাইপের ব্যাপার আনে। কিন্তু সেটা আদৌ ঠিক নয়। আসলে ফাউন্ডেশন ত্বকে ন্যাচারাল লুক আনে, মুখের বিভিন্ন অংশে ত্বকের রং সাধারণতই আলাদা হয়। এই সমস্যার সমাধানেই ব্যবহার করা হয় ফাউন্ডেশন। সেটি আপনি কীভাবে ফাউন্ডেশন এর অ্যাপ্লাই করছেন, তার উপর নির্ভর করবে সেটি কেক লাগছে নাকি ত্বকের সঙ্গে জাস্ট মিশে যাচ্ছে।

কনসিলার

বিয়ের আগে-পরে যতই ত্বকের যত্ন নিন না কেন, একেবারে দাগছোপ থাকবে না, এক-আধটা ব্রণ-ফুসকুড়িও নয়, সেটা তো আর হতে পারে না। আর তাই প্রয়োজন পড়বে কনসিলারের। এটিও হবু কনের মেকআপ কিটে থাকা দরকার।

ব্লাশ অন

যাঁরা কন্টোরিং করতে একেবারেই পছন্দ করেন না কিংবা হাইলাইটারও যাঁদের একটু অতিরিক্ত মনে হয়, তাঁদের জন্য ব্লাশ অন একেবারে পারফেক্ট। এটি লাগাতেও সহজ এবং মোটেও সমস্যা তৈরি করে না। কাজেই দু’-তিনটে শেডের ব্লাশ অন কিনে রাখুন। সময়ে-অসময়ে কাজে দেবে।

কমপ্যাক্ট

এটির প্রয়োজনের কথা আলাদা করে বুঝিয়ে বলার দরকার নেই। শুধুমাত্র কেনার সময় ম্যাট লুক দেয় এমন কমপ্যাক্ট কিনবেন মনে করে।

লিপস্টিক

এইটা কিন্তু সকলেই ভারী মন দিয়ে কেনেন। তবে চেষ্টা করুন বেশ কয়েকটি সব ধরনের শেড কিনে রাখতে। তাতে সব ধরনের অনুষ্ঠানে পরার মতো রং আপনার কিটে থাকবে।

চোখের মেকআপ

চোখের মেকআপের জন্য এর প্রতিটিই খুব জরুরি। কোহল পেনসিল কিংবা আইলাইনার মোটামুটি আমরা সকলে এমনিতেই ব্যবহার করি। কনের শপিংয়ে তার সঙ্গে যোগ করুন মাসকারা ও আইশ্যাডো প্যালেট। বিয়ের পর বিয়েবাড়ি যেতে কাজে আসবে।

নেল পলিশ

দয়া করে শুধু লাল আর গোল্ডেন কালার কিনে ব্যাগ ভর্তি করবেন না। বিয়ের পরের কথা ভেবে কিনুন। অফিসে যেতে হলে নুড শেডস চাই আবার ছোটখাটো অনুষ্ঠানে পরার জন্য একটু ব্রাইট কোনও রং। সেট কিনতে পারেন। এই ধরনের সেটে অনেক রংয়ের কম্বিনেশন থাকে। তাতে আখেরে সুবিধে হয়।

ব্রাশ ও বিউটি ব্লেন্ডার

এটি শেষে বললেও, এর গুরুত্ব কিন্তু সবচেয়ে বেশি! ভাল ব্রাশ কিংবা বিউটি ব্লেন্ডার না থাকলে কিন্তু যত ভাল প্রোডাক্ট কিনে ঝুলি ভর্তি করুন না কেন, মেকআপ মোটেও ভাল হবে না। হবু কনের ঝুলিতে থাকা চাই একটি করে আইশ্যাডো ব্রাশ, ব্লাশ অন ব্রাশ, বিউটি ব্লেন্ডার, ফাউন্ডেশন ব্রাশ, লিপস্টিক ব্রাশ ও আইব্রো ব্রাশ।

এছাড়াও কিনবেন মেকআপ রিমুভার, কটন বলের বেশ কয়েকটি প্যাকেট এবং ফেস ওয়াইপস। ব্যস, তা হলেই কনের মেকআপ শপিং শেষ!

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

19 Nov 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text