বিনোদন

মেয়ে আদিরাকে মিডিয়ার চক্ষুর আড়ালে মানুষ করতে চান রানি, তাকে শক্তিশালী হতেও শেখাচ্ছেন তিনি

Parama SenParama Sen  |  Dec 17, 2019
মেয়ে আদিরাকে মিডিয়ার চক্ষুর আড়ালে মানুষ করতে চান রানি, তাকে শক্তিশালী হতেও শেখাচ্ছেন তিনি

সেলেবদের ভাই নানা রকমের শখ হয়। রানি মুখোপাধ্যায়ের (Rani Mukherji) শখ হল, মেয়ে আদিরা চোপড়াকে (Adira Chopra) তিনি একেবারেই মিডিয়ার (media glare) সামনে আসতে দেবেন না। লোকচক্ষুর অন্তরালে রেখে তিল-তিল করে বড় করে তুলবেন তাকে। তারপর একদিন সক্কলের সামনে এনে হয়তো চমকে দেবেন! শুনলেও ভাল লাগে। তাঁদের হাতে কত্ত অপশন, সেসব নিয়ে ভাবার কত্ত সময়! আর আমাদের দেখুন, সবকিছু সামলে ওঠারই ফুরসত পাই না, তো এসব নিয়ে ভাবব! আমাদের ছেলেপুলেরা তো আর তৈমুর-আদিরা নয় যে, লোকে তাদের ছবি তোলার জন্য হেদিয়ে মরবে…

হালফিলে বলিউডে এই বাচ্চা নিয়ে আদিখ্যেতাটা আর জাস্টে নেওয়া যাচ্ছে না। আপনাদের পাঁঠা, আপনারা ল্যাজে কাটুন, মাথায় কাটুন, যেখানে খুশি কাটুন গে। তা নিয়ে ইয়া লম্বা-লম্বা সাক্ষাৎকার দেওয়া, পেরেন্টিং নিয়ে নিজেদের মতামত জানানো, এত কিছুর কী দরকার আছে জানি না বাপু। একদল আছেন করিনা কপূরের মতো, নিজের প্রেগন্যান্সি থেকে শুরু করে তৈমুরের বড় হওয়া পর্যন্ত সবকিছু এতটাই খোলাখুলি করছেন বা জানাচ্ছেন যে, মাঝে-মাঝে কেমন যেন ধাঁধা লাগে, তৈমুর তাঁর খোকন নাকি আমাদের সকলের! তৈমুর হাসলে ছবি, কাঁদলে ছবি, লাফালে ছবি, আলাদা-আলাদা সোশ্যাল মিডিয়া পেজ তার নামে, পুতুল তার নামে, সেই পুতুল নিয়ে আবার বৈমাত্রেয় দিদি সারা আলি খানের ন্যাকামো…তৈমুর লংও এতটা ফুটেজ পাননি ইতিহাস বইয়ে যতটা তাঁর নেমসেক পাচ্ছে! 

কেউ-কেউ আবার একতা কপূর-করণ জোহর-তুষার কপূরের মতো। বলা নেই, কওয়া নেই দুম করে ছানাপোনা নিয়ে হাজির, বল্লেন আমরা তো সরোগেট-সরোগেট খেলছিলাম। বাঃ, তা সে আপনাদের পয়সাকড়ি আছে, আপনারা যা খুশি খেলুন গে। সমস্যা হচ্ছে ছানাপোনাদের। এমনিতেই দুনিয়ায় এসে তারা বেমালুম ভেবলে আছে, তার মধ্যে আবার মিডিয়ার সঙ্গে লুকোচুরি! একতা কপূর কিছুতেই ছেলের মুখ দেখাবেন না। এদিকে তুষার কপূর দেখাচ্ছেন। ওদিকে নেহা ধুপিয়া দেখাবেন না মেয়েকে কেমন দেখতে, তার পিছন থেকে ছবি দেখে-দেখে লোকে যখন ক্লান্ত, তখন তাঁর শ্বশুরমশাই এবং প্রাক্তন ভারতীয় স্পিনার বিষেন সিংহ বেদি নাতনির ছবি পোস্ট করে ফেললেন…

যাক গে, কথা হচ্ছিল রানি মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে। রানি এমনিতেই একটু প্রাইভেট পার্সন, আর ততোধিক প্রাইভেট হলেন তাঁর স্বামী আদিত্য চোপড়া। যশরাজের অফিসেই তাঁকে প্রায় দেখা যায় না তো মিডিয়ার সামনে তিনি আসবেনটাই বা কী করে? অবশ্য মাঝে যেসব অত্যন্ত খাজা ছবি প্রোডিউস করেছিলেন, তাতে তাঁর জনসমক্ষে না আসাটাই উচিত। যাক গে, এহেন বাবা-মায়ের মেয়ে আদিরাকে যে সামনে আনা হবে না, তা তো বলাই বাহুল্য। সম্প্রতি রানি একটি শো-এ জানিয়েছেন যে, মেয়েকে তিনি এখন থেকেই বোঝাতে শুরু করেছেন যে, সে সবচেয়ে শক্তিশালী, কাজেই যে-কোনও পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়ার শক্তি তার আছে।

আমরা বলি কী, ওটা অত যত্ন করে না বোঝালেও চলবে। যার বাবার কোম্পানির নাম যশরাজ ফিল্মস, সে যে অনেকের চেয়ে বেশি শক্তিশালী, তা তো জানাই। তবে মেয়েকে যেমন জোর করে মিডিয়ার দিকে ঠেলে দেওয়ার দরকার নেই, ঠিক তেমনই তাকে জোর করে মিডিয়া থেকে লুকিয়ে রাখারও দরকার আছে কি? এমনিই শান্তিতে বড় হতে দিন না…

 

এই দশকটি আমরা শেষ করতে চলেছি #POPxoLucky2020-র মাধ্যমে। যেখানে আপনারা প্রতিদিন পাবেন নতুন-নতুন সারপ্রাইজ। আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম…আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার আগামী বছরটা POPup করে ফেলুন!