Love

আপনার বর বা বয়ফ্রেন্ড কি কথায় কথায় রেগে যান? জেনে নিন কিভাবে ডিল করবেন

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Sep 1, 2020
আপনার বর বা বয়ফ্রেন্ড কি কথায় কথায় রেগে যান? জেনে নিন কিভাবে ডিল করবেন

সম্পর্ক (relationship) হল কাচের  ফুলদানির মত, একবার ভেঙে গেলে জোড়া লাগানো খুব মুশকিল। কাজেই যে কোনও সম্পর্কের ক্ষেত্রে বেশ কিছু বিচার বিবেচনা করে তবেই সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত। যে মানুষটির সঙ্গে আপনি সম্পর্কে (relationship) রয়েছেন, তাকে যে আপনি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে চেনেন, এমনটা নাও হতে পারে। আপনি হয়তো ভাবছেন আপনার বয়ফ্রেন্ড (boyfriend) বা বরকে (husband) হয়তো ভালভাবেই চেনেন, কিন্তু কোনও বিশেষ পরিস্থিতিতে ঠিক কেমন আচরণ তিনি করবেন, তা কিন্তু আপনি জানেন না। অনেকের বয়ফ্রেন্ড বা বর কথায় কথায় রেগে যান এবং স্থান-কাল-পাত্র ভুলে যান সেই মুহূর্তে। এখন প্রশ্ন হল, এমন বদরাগী (angry) বয়ফ্রেন্ড (boyfriend) বা বরের (husband) সঙ্গে ঠিক কীভাবে আপনি ডিল করবেন; কারণ, ভালবাসা তার নিজের জায়গায়, কিন্তু আপনার আত্মসম্মানের দায়িত্বও আপনারই!

অনেকেই হয়তো বলবেন আত্মসম্মান বাঁচিয়ে সম্পর্কে (relationship) ইতি টানাই বুদ্ধিমানের কাজ। কিন্তু সত্যি বলতে কী, সম্পর্ক ভেঙে বেরিয়ে আসা সবসময়ে সহজ নয়। বদরাগী বয়ফ্রেন্ড বা বরের সঙ্গে ঠিক কীভাবে ডিল করবেন, সে বিষয়ে কয়েকটি টিপস দিলাম আমরা।

নিজের আত্মসম্মান বিসর্জন না দিয়েও বদরাগী বয়ফ্রেন্ড বা বরের সঙ্গে কীভাবে ডিল করবেন

স্বামী-স্ত্রীয়ের মধ্যে সম্পর্ক এমন হওয়া উচিত নয় (ছবি – হইচই ডট কমের সৌজন্যে)

১। আপনার বয়ফ্রেন্ড বা বর যদি কথায় কথায় রেগে যান, সেক্ষেত্রে সেই মুহূর্তে কোনওরকম বচসায় যাবেন না। রাগ হলে অনেকেই নিজেকে সামলাতে পারেন না, ভুলভাল কথা বলেন সামনের মানুষটিকে। যদিও বার বার এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব নয়, কিন্তু কোনও কোনও সময়ে মানসিক শান্তি বজায় রাখতে বয়ফ্রেন্ড বা বরের কথা কানে না নেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ।

২। প্রতিটি সম্পর্কেই একটু আধটু অধিকারবোধ থাকে। তা আপনার বয়ফ্রেন্ড বা বরের দিক থেকেও থাকতে পারে আবার আপনার দিক থেকেও। কিন্তু প্রতিটি বিষয়ে যদি তিনি অধিকারবোধ জাহির করেন, সেক্ষেত্রে আপনার পার্টনারকে বুঝিয়ে বলুন যে তাঁর এই আচরণে আপনাদের সম্পর্ক নষ্ট হচ্ছে। যদি তিনি বোঝেন ভাল, না হলে একটা সময়ের পর সম্পর্ক থেকে আপনিই বেরিয়ে আসতে হবে।

অনেক স্বামী-স্ত্রী জনসমক্ষে ঝগড়া করে অন্যদের অপ্রস্তুত করে ফেলেন (ছবি – অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওর সৌজন্যে)

৩। অনেকের বয়ফ্রেন্ড বা বরের মধ্যে একটি অদ্ভুত আচরণ লক্ষ্য করা যায় – তাঁরা সব ব্যাপারে নিজের প্রেমিকা বা স্ত্রীকে কন্ট্রোল করেন। প্রেমিকা বা স্ত্রী কী খাবেন, কী পরবেন, কোথায় যাবেন, কখন বাড়ি ফিরবেন – মানে প্রতিটি বিষয়ে নাক না গলালে তাঁদের চলে না। আপনি যদি কথা না শোনেন, সেক্ষেত্রে অনেক সময়েই ঝগড়া ও অশান্তি হয়। এমন পরিস্থিতিতে সরাসরি তাঁকে বলুন, আপনি নিজেও একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ এবং আপনি নিজের খেয়াল রাখতে পারেন।

৪। আজকাল স্বামী-স্ত্রী দু’জনেই আয় করেন। অনেক সময়ে স্ত্রীর আয় স্বামীর থেকে বেশি হয়। শুনতে খারাপ লাগলেও বেশিরভাগ স্বামীই এই বিষয়টি মেনে নিতে পারেন না এবং ফল স্বরূপ কথায় কথায় অশান্তি বা রাগ প্রকাশ করেন। এরকম পরিস্থিতি হলে প্রথমে ভাল করে বরকে বোঝান যে আপনার আয় বেশি মানেই আপনার চোখে আপনার স্বামীর সম্মান কমে গেল অথবা আপনি তাঁকে কম ভালবাসবেন এমনটা নয়। বরং, আজকাল বাজারদর এত বেশি যে দু’জনে আয় না করলে সংসার চালানো সমস্যা।

মূল ছবি – হইচই ডট কমের সৌজন্যে 

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!