home / লাইফস্টাইল
ট্রায়াল রুমে সাবধান – রইল সেফটি টিপস

ট্রায়াল রুমে সাবধান – রইল সেফটি টিপস

আমাদের মহিলাদের যতই পোশাক থাকুক না কেন, কোথাও যাওয়ার সময়ে পরে যাওয়ার মতো কিছুই খুঁজে পাওয়া যায়না। অগত্যা আবার পোশাক কিনতে হয়! আসলে আর কিছুই না, কেনাকাটা করার আরও একটা ছুতো পাওয়া যায়। তবে যখন আপনি জামাকাপড় কিনতে যান এবং পছন্দ করা পোশাকটি আপনাকে কেমন মানিয়েছে, সেটা দেখার জন্য trial room-এ যান, তখন কিন্তু কয়েকটি অত্যন্ত জরুরি বিষয় মাথায় না রাখলেই নয়। না, শুধু আপনার সুরক্ষার কথা আমি বলছি না, trial room ব্যবহার করার কিছু আদবকায়দা রয়েছে, সে সম্বন্ধেও আপনাকে জানতে হবে। আজ আমরা trial room কীভাবে ব্যবহার করতে হয় এবং সেখানে ঢোকার আগে বা ঢুকে কী-কী বিষয় মাথায় রাখতে হয় তা নিয়েই আলোচনা করব।

ট্রায়াল রুম ব্যবহারে সতর্কতা

পোশাক কেনার আগে সেটি আপনার গায়ে হচ্ছে কিনা, তা দেখার জন্য আমরা trial room ব্যবহার করি। তবে ইদানীং মহিলাদের সুরক্ষা নিয়ে নানা সমস্যা দেখা দিচ্ছে এবং ট্রায়াল রুমের ভিতরে নানা জায়গায় লুকনো ক্যামেরা বসানো থাকায় সেসব সমস্যা আরও বেশি করে হচ্ছে। আপনি যে ট্রায়াল রুম ব্যবহার করছেন, সেখানেও লুকনো ক্যামেরা রয়েছে কিনা তা জানার বেশ কিছু উপায় আমরা জানাচ্ছি এবং যদি লুকনো ক্যামেরার হদিশ আপনি পান, তা হলে কী করবেন, তাও জানানো হল।

লুকোনো ক্যামেরা রয়েছে কিনা বলে দেবে আপনার মোবাইল ফোন

আজ্ঞে হ্যাঁ, একদম ঠিক পড়েছেন! যদি ট্রায়াল রুমে লুকনো ক্যামেরা থাকে, তা হলে তা খুব সহজেই আপনি বুঝতে পারবেন আপনার মোবাইল ফোনের সাহায্যে। যদি দেখেন যে আপনার মোবাইল ফোনে সিগন্যাল আসছে না, তাহলে বুঝবেন যে trial room-এ রয়েছে hidden camera। কারণ, লুকনো ক্যামেরা থাকলে সেখানে মোবাইল ফোনের সিগন্যাল ব্লক হয়ে যায়। দোকানের ট্রায়াল রুমে ঢুকে নতুন পোশাক ট্রাই করার আগে নিজের মোবাইল ফোন থেকে কাউকে কল করে দেখুন, যদি আপনার কল কানেক্ট হয়ে যায়, তা হলে কোনও চিন্তা নেই। তবে যদি কল না করতে পারেন, সেক্ষেত্রে কিন্তু বুঝতে হবে লুকনো ক্যামেরা রয়েছে!

এই পরিস্থিতিতে কী করবেন – দোকানের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা বলুন। যদি সাহায্য না পান, সেক্ষেত্রে আপনাকে পুলিশের দ্বারস্থ হতেই হবে।

আঙুলের সাহায্যে আয়না পরীক্ষা

না, না, ভয় পাবেন না, হলিউডের বোকা-বোকা হরর ফিল্মের মতো trial room-এ ভূত নেই! তবে তার চেয়েও ভয়ের ব্যাপার কিন্তু থাকতেই পারে। আর সেটা হল আয়না। টু-ওয়ে মিরর বলে একটা বিষয় রয়েছে সেটা জানেন কি? এই ধরনের আয়নাতে সামনের দিকটা আয়নার মতো দেখতে হলেও পিছন দিকে পারদ থাকে না, বরং আয়নার পিছনে হয়তো এমন কেউ বসে আছে, যে আপনার সমস্ত বিষয়ে নজর রাখছে! কীভাবে বুঝবেন যে, আপনি যে ট্রায়াল রুমে ঢুকেছেন সেখানকার আয়নাতে এরকম কোনও কারসাজি করা আছে কিনা? পোশাক বদলানর আগে আয়নায় নিজের আঙুল ছুঁইয়ে দেখুন যে, আপনার আঙুল আর আয়নার প্রতিবিম্বের মধ্যে কোনও গ্যাপ আছে কিনা। যদি থাকে, তা হলে বুঝবেন যে, এটি সাধারণ আয়না, এতে কোনও কারসাজি করা নেই। আর যদি না থাকে, তা হলে বিপদ!

এই পরিস্থিতিতে কী করবেন – দোকানের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা বলুন। যদি সাহায্য না পান, সেক্ষেত্রে আপনাকে পুলিশের দ্বারস্থ হতেই হবে।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

06 Dec 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text