logo
Logo
User
home / রূপচর্চা ও বিউটি টিপস
বিকিনি ওয়াক্সের পর কিভাবে নিজের যত্ন নেবেন

বিকিনি ওয়াক্সের পর কিভাবে নিজের যত্ন নেবেন

আমাদের মধ্যে মোটামুটি সবাই কখনো না কখনো বিকিনি ওয়াক্স (bikini wax) করিয়েছি এবং এটাও জানি যে কতটা ব্যাথা লাগে! কিন্তু স্টাইল করতে গেলে তো একটু ব্যাথা সইতে হবেই, তাই না? আর তা ছাড়া হাইজিন (hygiene) বলেও তো একটা ব্যাপার আছে। কিন্তু সমস্যা হলো যে অনেকেই বিকিনি ওয়াক্স (bikini wax) করানোর পর ঠিক ভাবে স্কিনের যত্ন (skincare) নেন না। অনেক সময় আমরা ঠিকভাবে বুঝতেও পারি না যে কিভাবে ওই বিশেষ জায়গার যত্ন (skincare) নেওয়া উচিত। তাই আজ সে ব্যাপারেই কথা বলবো। বিকিনি ওয়াক্স করানোর পর কিভাবে স্কিনের যত্ন (skincare) নেবেন, কি কি করবেন আর কি কি করবেন না – সব বলবো।

গরম জল লাগাবেন না

সারাদিন কাজের পরে বাড়ি ফিরে গরম জলে (warm water) স্নান করতে যে কি আরাম সেটা আর আমি কি বলবো, আপনারা নিজেরাই জানেন। সারাদিনের ক্লান্তি দূর করে দেয় শাওয়ার থেকে পড়তে থাকা গরম জল (warm water)। কিন্তু যেদিন বিকিনি ওয়াক্স (bikini wax) করিয়ে আসবেন সেদিন একটু এই রুটিনটা পাল্টান, অর্থাৎ গরম জলে (warm water) স্নান করবেন না। যেহেতু আপনার ওই বিশেষ জায়গাটির স্কিন অত্যন্ত নরম এবং সংবেদনশীল (sensitive) তাই বিকিনি ওয়াক্স (bikini wax) করানোর সময় এবং পরে rash বেরোতে পারে এবং গরম জলে (warm water) সেটা আরো বেশি বাড়তে পারে। তাই সেদিন ঠান্ডা জলেই স্নান করুন।

ময়শ্চারাইজ করতে ভুলবেন না

একদম! শুধু গায়ে হাতে পায়ে ময়েশ্চারাইজার (moisturizer) লাগালেই হবে? বিকিনি ওয়াক্সের (bikini wax) পরে স্কিনের যে যত্ন (skincare) নিতে হবে! ত্বককে নরম এবং আদ্র রাখার জন্য নিয়মিতভাবে ময়েশ্চারাইজার (moisturizer) ব্যবহার করুন। শুধু যে আপনার শরীরের খোলা অংশেই ত্বক শুস্ক হয়ে যায় তা কিন্তু নয়, শরীরের যে অংশগুলো ঢাকা থাকে, সেখানেও ত্বক শুস্ক হতে পারে। ফলে ময়েসচারাইজ (moisturizer) করা খুব দরকার, বিশেষ করে বিকিনি ওয়াক্স (bikini wax) করানোর পরে, কারণ সেই সময় ওই জায়গার স্কিনে কোনো আব্রু থাকে না

পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখুন

ওয়াক্সিং করানোর পরে যদি বিকিনি এরিয়াটা লাল হয়ে থাকে,  র‍্যাশ বেরোয় তাহলে জায়গাটা পরিষ্কার করা খুব দরকার, এবং এই সমস্যার উপশমও প্রয়োজন। যেহেতু জায়গাটা খুব নরম এবং সংবেদনশীল (sensitive), তাই আপনি ঠান্ডা এলোভেরা জেল কিংবা মেডিকেটেড কোনো লোশন ব্যবহার করতে পারেন। সেটাফিল লোশন খুব ভালো কাজ দেয়, চাইলে ব্যবহার করতে পারে, এর কোনো সাইড এফেক্ট নেই।

এক দিন জিম যাওয়া বন্ধ করুন

বিকিনি ওয়াক্স করেই সঙ্গে সঙ্গে ব্যায়াম করতে ছুটবেন না। যেহেতু আমাদের বিকিনি লাইন খুব সংবেদনশীল এবং নরম, কাজেই ওয়াক্স করার পর একটু ব্যথা হতে পারে। তার উপরে আপনি যদি আবার ব্যায়াম করেন, সেখানে টান লাগতে পারে বা ঘেমে গিয়ে চুলকানি হতে পারে।

রেজার ছোঁয়াবেন না

না না না! রেজার (razor) ভুল করেও ছোঁবেন না। দরকার হলে বাড়ির সব রেজার (razor) লুকিয়ে রাখুন। বিকিনি ওয়াক্স (bikini wax) করানোর কদিন পর থেকে আপনার স্কিনটা আর অতটা স্মুদ থাকেনা তাই মনে হতেই পারে যে একবার রেজার (razor) ব্যবহার করে নি, কিন্তু দাঁড়ান! এতো কষ্ট করে, এতো ব্যাথা সহ্য করে আর সাহস করে যখন বিকিনি ওয়াক্সিংটা (bikini wax) করেই ফেললেন, তখন আর রেজার (razor) ব্যবহার করে সেটা নষ্ট করবেন না। আর তা ছাড়া ওই নরম জায়গায় রেজার লাগালে rash বেরোনোর সম্ভাবনা থাকতে পারে, তাতে আপনারই অস্বস্তি!

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

07 Apr 2022

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text