Advertisement

বাড়ির সাজসজ্জা

বাড়ি পরিষ্কার করার সময় কি ব্লিচের সঙ্গে ভিনিগার মেশান? এখন থেকে আর সেটা করবেন না

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Mar 12, 2021
বাড়ি পরিষ্কার করার সময় কি ব্লিচের সঙ্গে ভিনিগার মেশান? এখন থেকে আর সেটা করবেন না in bengali

Advertisement

ঘরদোর সব সময়েই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা উচিত। বিশেষ করে এই মুহূর্তে করোনা ভাইরাস ছাড়াও আরও অনেক ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া এবং জীবাণুদের সংখ্যা যে হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে, বাড়িঘর সাফসুতরো রাখার (these cleaning agents can not be mixed together) পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। বিশেষ করে রান্না ঘর এবং বাথরুম ঝকঝকে-তকতকে রাখা একান্ত প্রয়োজন। তাতে ব্যাকটেরিয়ার উপদ্রব বাড়ার আশঙ্কা কমে। ফলে রোগ-ব্যাধি ধারেকাছেও ঘেঁষতে পারে না। তবে এক্ষেত্রে একটা বিষয় খেয়াল রাখা একান্ত প্রয়োজন। আজকাল অনেকেই নানা রকমের ক্লিনিং এজেন্ট একসঙ্গে মিশিয়ে নিয়ে ব্যবহার করেন। ভাবেন, তাতে ঘরদোর আরও ভাল ভাবে পরিষ্কার হবে। কিন্তু আদতে এমন কোনও সুফলই মেলে না। বরং এই কারণে শরীরের অনেক ক্ষতি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। জেনে নিন, কোন-কোন উপাদান একসঙ্গে মেশালে (these cleaning agents can not be mixed together) এমন বিপদ ঘটতে পারে…

১। ভিনিগারের সঙ্গে ব্লিচ

ছবি সৌজন্য – পেক্সেলস ডট কম

ব্লিচের সঙ্গে ভিনিগারের মতো অ্যাসিডিক উপাদান মেশালে সঙ্গে-সঙ্গে ক্লোরিন এবং ক্লোরামাইনের মত বিষাক্ত গ্যাস সৃষ্টি হয়, যা কোনও ভাবে শরীরে প্রবেশ করলেই বিপদ! সেক্ষেত্রে শ্বাসনালীর ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা যেমন থাকে, তেমনই ত্বকের সংস্পর্শে এলে পুড়ে যাওয়ার ভয়ও থাকে। এমন বিষাক্ত গ্যাসের কারণে চোখে চুলকানি এবং ফুসফুসের ক্ষতি হতে পারে। তাই সাবধান!

২। ব্লিচের সঙ্গে টয়েলেট ক্লিনার

ছবি সৌজন্য – পেক্সেলস ডট কম

বেসিন-কমোডের হলদে ছোপ দূর করতে টয়লেট ক্লিনারের সঙ্গে ব্লিচ মেশাবেন ভাবছেন? ভুলেও এই কাজটা করতে যাবেন না যেন! কারণ, টয়লেট ক্লিনারের সঙ্গে কোনও কিছুই মেশানো উচিত নয়। বিশেষ করে ব্লিচ মেশালে তো শরীরের ক্ষতি হবেই হবে! ব্লিচের সঙ্গে এমন তরল মেশানো মাত্র বিষাক্ত গ্যাস (these cleaning agents can not be mixed together) সৃষ্টি হয়, যা চোখ জ্বালা এবং শ্বাস কষ্ট হওয়ার মতো সমস্যা ঢেকে আনতে পারে।

৩। ব্লিচ ও অ্যামোনিয়া

ছবি সৌজন্য – পেক্সেলস ডট কম

বাড়িঘর পরিষ্কার করতে অনেকেই অ্যামোনিয়া এবং ব্লিচ ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু আসলে এই দু’টি উপাদান ভুলেও একসঙ্গে মেশানো উচিত নয়। কারণ, অ্যামোনিয়া এবং ব্লিচ মিশে গিয়ে টক্সিক ক্লোরামাইন ভেপার তৈরি হয়, যা নিশ্বাস নেওয়ার সময় শরীরে প্রবেশ করলে গলায় ক্ষত সৃষ্টি হতে পারে। এমনকী, শ্বাস-প্রশ্বাসের কষ্ট হওয়ার আশঙ্কাও থাকে।

৪। দু’ধরণের ড্রেন ক্লিনার

ছবি সৌজন্য – পেক্সেলস ডট কম

বেসিনের পাইপে ময়লা জমলে ড্রেন ক্লিনার ব্যবহার করতেই পারেন। কিন্তু একটা ড্রেন ক্লিনার ব্যবহারের পরেও যদি জমা জল বেরিয়ে না যায়, তাহলে ভুলেও আরেকটা ক্লিনার ব্যবহার করবেন না। তাতে করে পাইপ নষ্ট হয়ে যেতে পারে। শুধু তাই নয়, অতিরিক্ত ড্রেন ক্লিনারের কারণে শ্বাস কষ্ট হওয়ার মতো সমস্যা হওয়ার আশঙ্কাও থাকে। তাই এবার থেকে এমন ভুল এড়িয়ে চলার চেষ্টা করবেন, তাতে আপনারই মঙ্গল।

৫। হাইড্রোজেন পারঅক্সাইডের সঙ্গে ভিনিগার

ছবি সৌজন্য – পেক্সেলস ডট কম

টাইলসের নাছোড়বান্দা দাগ তুলতে নিশ্চিন্তে হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড ব্যবহার করুন না, তাতে কোনও ক্ষতি নেই! কিন্তু ভুলেও এর সঙ্গে ভিনিগার মেশাতে যাবেন না যেন! বলতেই পারেন, ভিনিগারও তো ঘর পরিষ্কারের কাজে লাগে, মেশালে ক্ষতি কী? (these cleaning agents can not be mixed together) তাহলে জেনে রাখুন, হাইড্রোজেন পারঅক্সাইডের সঙ্গে ভিনিগার মেশানোমাত্র এমন অ্যাসিড উৎপন্ন হয় যা ত্বকের ক্ষতি করতে পারে। এমনকী, ফুসফুস এবং নাকের ক্ষতি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাও থাকে।

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!       

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!