Love

মধুচন্দ্রিমার মধুর আমেজ সারাজীবন বজায় রাখতে মেনে চলুন এইপাঁচটি টিপস

Doyel BanerjeeDoyel Banerjee  |  Jun 24, 2019
মধুচন্দ্রিমার মধুর আমেজ সারাজীবন বজায় রাখতে মেনে চলুন এইপাঁচটি টিপস

ভালবেসে বিয়ে করুন বা বাবা-মায়ের দেখে দেওয়া পাত্রকে বিয়ে (marriage) করুন, হনিমুন (honeymoon) ফেজ (phase) বা মধুচন্দ্রিমা হল সব মেয়েদের জীবনেই একটা স্পেশ্যাল ব্যাপার। তবে অনেকে বলেন মধুচন্দ্রিমার সময় স্বামী স্ত্রীর মধ্যে যে ভালবাসা সেটা নাকি সাড়া জীবন থাকে না। আর সারা জীবনই বা বলছি কেন? সেতো অনেক দুরের ব্যাপার। হনিমুন ফুরিয়ে গেলেই জীবনে এত জটিলতা এসে যায় তখন প্রেম ভালবাসা জানলা দিয়ে পালিয়ে যায়! আমরা চাই না আপনার জীবনে এরকম কিছু একটা হোক। বরং এটা চাই যে, এই মধুচন্দ্রিমা শুধু স্মৃতি হয়ে না থেকে তার মধুর আমেজ সারা জীবন বজায় থাকুক। রইল কয়েকটি রোম্যান্টিক টিপস (tips) যা অনুসরণ করলে আপনাদের হনিমুন আর শেষ হবে না!

হাসিখুশি থাকুন

pixabay

জীবনে নানা বাধা বিপত্তি আসেবেই। সেই সব কাটিয়েই এগিয়ে চলতে হয়। বেশি চাপ না নিয়ে হাসিখুশি থাকুন। দেখবেন, জীবন অনেকটা সহজ হয়ে গেছে। একসঙ্গে বেড়াতে যান, সিনেমা দেখুন। মাঝে-মাঝে ফোনে মজার ছবি বা কোট শেয়ার করুন। হাসির চেয়ে বড় ওষুধ আর কিছু হয় না। কিপ স্মাইলিং।

পরস্পরকে অনুপ্রাণিত করুন

pixabay

স্বামীর অফিসে কোনও সমস্যা হলে আপনি যেমন তাঁর পাশে দাঁড়াবেন, ঠিক তেমনই আপনার কর্মক্ষেত্রে বা ব্যক্তিগত পরিসরে কোনও সমস্যা হলে তিনি আপনাকে সাপোর্ট করবেন, এটাই কাম্য। পারস্পরিক বোঝাপড়াটা এক্ষেত্রে কাম্য।

শারীরিক মিলনে নিয়ে আসুন ঊষ্ণতা আর তীব্র আবেগ

pixabay

মধুচন্দ্রিমা হয়ে গেছে বা বিয়ের পর বেশ কিছু বছর কেটে গেছে বলে এটা ভাববেন না যে, শারীরিক মিলনের প্রয়োজনীয়তা আর নেই। বরং সেটা আরও বেশি করে প্রয়োজন। তবে এই মিলনকে নিত্যদিনের রোজনামচার মতো করে ফেলবেন না। মিলনের সময় মনে করুন, এটাই প্রথমবার। সেই তীব্রতা আর ঊষ্ণতার ছোঁয়া নিয়ে আসুন।

হাতে হাত রাখুন

pixabay

যখন কোথাও যাচ্ছেন, বা একসঙ্গে সিনেমা দেখছেন, স্বামীর হাতের উপর হাত রাখুন। তিনিও আপনার হাত নিজের মুঠোয় রাখতে চাইবেন। কাছাকাছি আসার জন্য সব সময় যৌনতার প্রয়োজন নেই। হালকা স্পর্শও অনেক সময় কাজ দেয়। হাতের উপর হাত রাখা মানে নির্ভরতা আর ভালবাসা। এই অনুভূতি যেন তাঁর মনে জাগে, সেই জন্যই হাত ধরে থাকবেন।

সারপ্রাইজ দিন

pixabay

মাঝে-মাঝে স্বামীকে চমকে দিতে ভালই লাগে, তাই না? আর তিনিও ভালবাসেন আপনাকে সারপ্রাইজ দিতে। তবে তার মানে এই নয় যে, সব সময় কিছু না কিছু উপহার দিতে হবে। হঠাৎ করে অফিসে চলে যান। নিজে হাতে টিফিনে দারুণ কিছু একটা তৈরি করে দিন। বা তিনি ভালবেসে যে শাড়িটা আপনাকে দিয়েছেন, সেটা তিনি অফিস থেকে ফেরার আগে পরে ফেলুন। বেল বাজলে আপনিই দরজা খুলুন। স্বামী খুশি না হয়ে পারবেন না। তাছাড়াও মাঝে-মাঝে উনি যেটা ভালবাসেন সেই রকম কিছু ছোট-ছোট উপহার দিন। আশা করি আপনিও উল্টো দিক থেকে সেরকমই মিষ্টি সারপ্রাইজ পাবেন। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!