home / লাইফস্টাইল
প্যানডেমিকে নতুন শহরে শিফট করছেন? এই টিপস সঙ্গে রাখুন

প্যানডেমিকে নতুন শহরে শিফট করছেন? এই টিপস সঙ্গে রাখুন

যদিও এই প্যানডেমিক পরিস্থিতিতে বেশিরভাগ কোম্পানিই ওয়ার্ক ফ্রম হোমের প্রস্তাব দিচ্ছে। কিন্তু অনেক কোম্পানির কাজের স্বার্থে কর্মীদের অফিসে যেতেই হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে যাঁরা চাকরি বদল করেছেন, তাঁদের অনেককেই শহরও বদলে ফেলতে হয়েছে। কিংবা কয়েকদিনের মধ্যেই শহর বদলে ফেলতে হবে। প্যানডেমিকে নতুন শহর (new city) যাওয়ার পরিকল্পনা থাকলে কয়েকটি টিপস আপনাকে মাথায় রাখতেই হবে।

নতুন শহর (new city) , নতুন জীবন। উৎসাহ মনের মধ্যে থেকেই যায়। একা স্বাধীনভাবে থাকতে পারবেন ভেবে অন্যরকম লাগে কি না? তবে নতুন শহরে এসেই সবার অভিজ্ঞতা একরকম হয় না। কারও অভিজ্ঞতা ভাল হয়, কেউ আবার নতুন পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারেন না। তবে কয়েকটি সাধারণ সমস্যায় প্রায় সবাইকেই পড়তে হয়। এই পরিস্থিতিতে শিফট করলে বেশি সতর্ক থাকতে হবে আপনাকে।

সম্ভব হলে টিকাকরণ করিয়ে নিন

অনেক রাজ্যে এই নিয়ম ইতিমধ্য়েই চালু হয়েছে। অন্য রাজ্য থেকে সেই রাজ্যে যেতে গেলে আরটিপিসিআর নেগেটিভ রিপোর্ট বা টিকাকরণের সার্টিফিকেট থাকা বাধ্য়তামূলক। যদিও টিকাকরণে সংক্রমণে আশঙ্কা শূন্য হয়ে যায় বলে কোনও গবেষণায় প্রমাণিত যায়নি। কিন্তু নিজের স্বার্থে আপনি এই টিকাকরণ করিয়ে নিতে পারেন।

(new city) স্থানীয় হাসপাতাল, চিকিৎসক এবং পুলিশের যোগাযোগ রাখুন

নতুন শহরে শিফট করার পর সবথেকে বেশি সমস্যা হয়, স্থানীয় আবহওয়ার সঙ্গে মানিয়ে উঠতে। তাই প্রথমদিকে বেশ ঘনঘনই শরীর খারাপ হতে পারে। এতেও ভেঙে পড়বেন না। ওটা সাময়িক। আপনি ঠিক হয়ে যাবেন। তবে স্থানীয় হাসপাতাল ও একজন ডাক্তারের নম্বর সবসময় কাছে রাখুন। অসুস্থ হলে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করুন। পরিবারের কেউ সঙ্গে নেই। তাই আপনার দায়িত্ব আপনাকেই নিতে হবে। এটাই জীবনের থেকে আমাদের শেখার।

নিরাপত্তা সবথেকে বড় ইশ্যু। নতুন শহরের পরিবেশ কেমন, সেখানে সবাই কেমন হবে তা বুঝে উঠতে অনেকটা সময় লেগে যায়। কী করবেন বুঝে উঠতে পারেন না। কিন্তু নিরাপত্তার বিষয়টাও সবসময় মাথায় রাখতে হবে। তাই প্রথমেই স্থানীয় পুলিশ স্টেশনের নম্বর কাছে রেখে দেবেন। কোনও বিপদ হলেই তাদের যোগাযোগ করুন।

নতুন শহরে (new city) যাওয়ার আগে একবার শহরটিকে জেনে নিন

আপনাকে যদি কলকাতা থেকে আজ মুম্বই শিফট হতে হয়। তবে আপনি কী করবেন সবার প্রথম? এদিকে আপনি কখনও মুম্বই যাননি। আপনার কোনও পরিচিত যদি সেই শহরে থাকেন, তাঁকে যোগাযোগ করুন। সেই জায়গায় বাড়িভাড়া কেমন, কী কী জিনিস হাতের কাছে আপনি পাবেন। তা ভালভাবে জেনে নিয়ে নোট ডাউন করে নিন। সেখানে লোকাল গাড়ি, মেট্রো, ট্রেন সেসব বিষয়েও একটু পড়াশোনা করে রাখুন। শহরের (new city) এক এক জায়গায় বাড়ি ভাড়া এক এক রকম হয়। আপনার অফিসের কাছে কোন বাড়ি আপনি নেবেন, সেইটা আগে থেকেই আইডিয়া করে নিন। স্থানীয় দোকান-বাজারও চিনে রাখুন ইন্টারনেটে। নতুন শহরে শিফট (new city) হতে সাহায্য হবে।

ধীরে ধীরে শহরটা চিনে নিন, ক্লান্ত হবেন না

অফিসের কাজের চাপ, তারপর একা হাতে সব সামলানো…প্রথমে হিমশিম খাবেন। কখনও মনে হবে আর পেরে উঠছেন না। তাও ভেঙে পড়বেন না। মনে রাখবেন, আপনার জীবনের সবথেকে সুন্দর সময় এটাই। যা আর ফিরে আসবে না। আপনার নিজের চোখ দিয়ে আপনি জীবনটা দেখছেন, যেখানে আপনাকে কেউ বাধা দেওয়ার নেই। নিজের কাজ সবটা নিজে করাতেও তো মজা রয়েছে না কি? ছুটির দিনে বাড়ির কাজ সেরে সময় নিয়ে বেরিয়ে যান। স্থানীয় এলাকাগুলো চিনে নিন। ঘোরার জায়গাও চিনতে পারেন। শহরটা চিনতে শুরু করলে দেখবেন ভাল লাগছে। নতুন শহরে শিফট করেও তখন ভালই লাগবে।

POPxo এখন চারটে ভাষায়!ইংরেজিহিন্দিমারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন
#POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন
নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

05 Aug 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text