home / ওয়েলনেস
গরমে ঘামাচির হাত থেকে সুরক্ষিত থাকুন

গরমে ঘামাচির হাত থেকে সুরক্ষিত থাকুন

যেরকম গরম পড়েছে, মনে হচ্ছে, ফ্রিজ থেকে বের করা আইসক্রিমের মতো গলে যাব! পাখা, এসি, কুলার সবকিছু একসঙ্গে ডাহা ফেল করে যাচ্ছে! স্বস্তি মিলছে না একদম। কিন্তু পাপী পেটের জন্য তো আর গরম বলে ঘরে বসে থাকা যায় না। স্কুল-কলেজে না হয় গরমের ছুটি বলে একটি দুর্লভ বস্তু আছে। অফিসে তো আর সেটি নেই। তা ছাড়া ব্যাঙ্ক, পোস্ট অফিস হ্যান-ত্যান নানা কাজে বাইরে তো বেরতেই হয়। আর বাইরে বেরলেই সূর্যের প্রবল দাপটে সারা শরীরে একগাদা হিট র‍্যাশ, ঘামাচি (tips to combat heat rash and prickly heat), চুলকানি, জ্বালা, এসব হবেই। খুবই সামান্য ব্যাপার। সেরেও যে যাবে না, তা নয়। কিন্তু বড়ই অস্বস্তিদায়ক আর বিরক্তিকর। তাই আমরা নিয়ে এসেছি কয়েকটি সহজ ঘরোয়া সমাধান, যার মাধ্যমে আপনি হিট র‍্যাশ বা ঘামাচির হাত থেকে সহজে মুক্তি পেতে পারবেন এই গরমে।

কেন হয় হিট র‍্যাশ

যখন ত্বকের স্বেদ গ্রন্থি বা ঘাম বেরনোর রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়, তখন ঘাম ত্বকের উপরিভাগে এসে বাষ্পীভূত হতে পারে না। সেই ঘামই ত্বকের উপর জমে গিয়ে হিট র‍্যাশ তৈরি করে।

হিট র‍্যাশ রোধ করার উপায়

হিট র‍্যাশ বা ঘামাচি যাতে না হয় বা কম হয়, তার জন্য প্রথমেই এই পাঁচটি পন্থা অবলম্বন করা উচিত।

১) যতটা সম্ভব ঠান্ডা ঘরে, যেখানে পাখা, এসি বা কুলার চলছে, সেখানে থাকুন। ঘরে যদি বেশি আলো আসে, পর্দা টেনে ঘর ছায়া-ছায়া করে রাখুন।

২) সারা দিন যত পারেন জল পান করুন। কোল্ড ড্রিঙ্কস নয়, ডাবের জল, নুন-চিনির শরবত, ইলেকট্রল বা ওআরএস পান করুন।

৩) ফ্যাশন কনশাস থাকুন, তবে একগাদা লেয়ারিং পোশাক একদম নয়। এইসময় সুতির পোশাক পরাই বুদ্ধিমানের কাজ।

৪) বাড়িতে থাকলে এবং বাইরে থেকে এসে একটু বসেই ঠান্ডা জলে স্নান করুন। একাধিক বার স্নান করতে পারেন, কোনও অসুবিধে নেই তাতে।

৫) কড়া গন্ধযুক্ত ট্যালকম পাউডার ব্যবহার করবেন না।

রইল কিছু ঘরোয়া টোটকার হদিশ

১। ত্বকের জ্বালা আর চুলকানি (tips to combat heat rash and prickly heat) বন্ধ করতে যুগ-যুগ ধরে ভারতবর্ষে চন্দনের ব্যবহার চলে আসছে। চন্দন পাউডার জলে মিশিয়ে প্রলেপ তৈরি করে লাগান। যদিও চন্দনে অ্যালার্জি হওয়ার আশঙ্কা নেই বললেই চলে, তবে তাও একবার প্যাচ টেস্ট করে নেবেন।

২। অ্যালো ভেরা বা ঘৃতকুমারীর মধ্যে আছে সেই গুণ, যা ত্বকের জ্বালা কমায় ও সংক্রমণ রোধ করে। যেখানে হিট র‍্যাশ হয়েছে সেখানে সরাসরি লাগাতে পারেন এই জেল।

৩। ঘামাচি হলে যে জ্বালা বা চুলকানি হয়, সেটা কমিয়ে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে ওটমিল। তার জন্য আপনাকে নাতিশীতোষ্ণ স্নানের জলে ১ থেকে ২ কাপ ওটমিল ভিজিয়ে রাখতে হবে ২০ মিনিট। জল একদম ঠান্ডা হলে সেই জলে স্নান করুন। ওটমিল বেটে করে মুখে বা শরীরে যেখানে হিট র‍্যাশ হয়েছে সেখানে লাগাতে পারেন।

৪। স্নানের জলে নিমপাতা দিয়ে স্নান করুন। বা নিমপাতা ফুটিয়ে সেই জল স্নানের জলে মিশিয়ে স্নান করুন আরাম পাবেন। নিমপাতা বেটে পেস্ট করেও ঘামাচিতে লাগাতে পারেন। নিমের কুলিং এফেক্ট আর অ্যান্টিসেপটিক গুণ কাজে দেবে।

৫। বাইরে বেরলে একটা টাওয়েল রুমালে বরফের টুকরো মুড়ে নিয়ে বেরোন। সেটা মাঝে-মাঝে মুখে ঘষুন। তাতেই যে ঘামাচি বা হিট র‍্যাশ সেরে যাবে, সেটা বলছি না। কিন্তু জ্বালা থেকে আরাম পাবেন। যদি বেশ কিছুক্ষণ বাইরে থাকতে হয় তা হলে আইস বক্সও ক্যারি করতে পারেন।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!        

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

18 May 2022

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text