home / ডি আই ওয়াই লাইফ হ্যাকস
এই টিপসগুলো মেনে চললে ড্রাই ক্লিনিং-এর জন্য দামি পোশাক আর লন্ড্রিতে পাঠাতে হবে না

এই টিপসগুলো মেনে চললে ড্রাই ক্লিনিং-এর জন্য দামি পোশাক আর লন্ড্রিতে পাঠাতে হবে না

আমাদের রোজকার পরার পোশাক (everyday clothes) না হলেও, এমন অনেক পোশাক রয়েছে যা জলে কাচা যায় না, ড্রাই ক্লিন (dry clean) করাতে হয়। সিল্ক বা অন্যান্য দামী ফ্যাব্রিকের পোশাক আমরা বেশিরভাগ সময়েই ড্রাই ক্লিনিং-এ পাঠাই। তবে অনেক সময়েই দেখা যায় ড্রাই ক্লিনিং করিয়ে আনার পর পোশাকগুলো (expensive outfits) তাদের ঔজ্জ্বল্য হারিয়ে ফেলে। এছাড়াও ড্রাই ক্লিনিং বড্ড খরচসাপেক্ষ। আর জমকালো শাড়ি ইত্যাদি ড্রাই ক্লিনিং-এ দিলে ফেরত পাওয়ার সময়ে কেমন পুরনো আর ম্যাড়ম্যাড়ে দেখতে লাগে। মোট কথা, ড্রাই ক্লিনিং-এর ক্ষেত্রে সব দিক থেকেই টাকা খরচ হয়। তার থেকে এটা অনেক বেশি হত যদি বাড়িতেই ড্রাই ক্লিনিং-এর ব্যবস্থা করা যেত! সেজন্যই তো আমরা এমন কিছু উপায়ের কথা এই প্রতিবেদনে শেয়ার করছি যাতে আপনিও অনায়াসে বাড়িতেই ড্রাই ক্লিনিং করাতে পারেন।

দামি পোশাক বাড়িতেই ড্রাই ক্লিনিং করার দারুণ টিপস

বাড়িতে কীভাবে ড্রাই ক্লিন করবেন (ছবি -পেক্সেলস ডট কমের সৌজন্যে)

১। পোশাকে কোথাও দাগ লেগে গেলে সম্পূর্ণ পোশাকটি ধোওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই। যেখানে দাগ লেগেছে, সেখানে মাইল্ড কাপর কাচার সাবান উষ্ণ জলে মিশিয়ে লাগিয়ে রাখুন। কিছুক্ষণ পর একটি স্পঞ্জের সাহায্যে আস্তে আস্তে ঘষে দাগ তুলে ফেলুন। শুকনো তোয়ালে বা টিসু দিয়ে মুছে নিন।

২। সিল্কের ফ্যাব্রিক বা অন্যান্য রেশমের ফ্যাব্রিক কখনও সরাসরি রোদে শুকতে দেবেন না। এতে ফ্যাব্রিক নষ্ট হয়ে যায় এবং রং জ্বলে যায়। ঘরে হাওয়ায় শুকিয়ে নিন।

৩। দামি জমকালো পোশাকের লেবেলে কাচার নিয়মাবলী থাকে।  সতগিক নিয়ম মেনে তবেই কাচুন।

৪। দামি পোশাকে যদি কখনও দাগ লেগে যায়, সেক্ষেত্রে নুন ও বেকিং পাউডার মিশিয়ে দাগ লাগা অংশে কিছুক্ষণ রেখে দিন। কিছুক্ষণ পর ভেজা তোয়ালে দিয়ে মুছে নিন।

৫। যদি আপনার পোশাকে কফি বা গ্রিজ লেগে যায়, সেক্ষেত্রে তুলোয় করে অল্প ভিনিগার নিন। এবার কফি বা গ্রিজের দাগের উপরে ভিনিগার সমেত তুলো বুলিয়ে নিন। দেখবেন ধীরে ধীরে দাগ উঠে যাচ্ছে। পর ঠান্ডা জলে তোয়ালে ভিজিয়ে পোশাকটি মুছে নিন।

৬। সব পোশাক লন্ড্রিতে ড্রাই ক্লিনিং-এর জন্য দেওয়ার প্রয়োজন নেই। সুতি, পলিয়েস্টর, অ্যাক্রেলিক ফ্যাব্রিক বাড়িতেই মাইল্ড ডিটারজেন্ট দিয়ে কাচা সম্ভব।

৭। ওয়েট ড্রাই ক্লিনিং-এর ক্ষেত্রে কখনই কড়া ডিটারজেন্ট ব্যবহার করবেন না। সম্ভব হলে কাচার লিকুইড সোপ বা শ্যাম্পু ব্যবহার করুন।

৮। যদি আপনার পোশাকে কোনও দাগ না থাকে, কিন্তু ঘামের গন্ধ থেকে থাকে আর তা দূর করার জন্য আপনি ড্রাই ক্লিনিং-এ পোশাকটি পাঠাতে চান, তাহলে আর লন্ড্রিতে পাঠানোর দরকার নেই। একবার একটু স্টীম দিয়ে দিন। আপনার বাড়িতে যদি স্টীমার না থাকে, তাহলে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার বা হেয়ার ড্রায়ারের সাহায্যেও আপনি পোশাকে স্টীম দিতে পারেন।

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

14 Sep 2020

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text