home / পেরেন্টিং টিপস
আপনার মেয়েকে শক্ত হাতে গড়ুন, যাতে সে কোনওদিন অন্যায় মুখ বুজে মেনে না নেয়

আপনার মেয়েকে শক্ত হাতে গড়ুন, যাতে সে কোনওদিন অন্যায় মুখ বুজে মেনে না নেয়

কয়েক দশকে সময় ও পরিস্থিতি অনেকটাই বদলে গিয়েছে। এক সময় কন্যা সন্তান জন্মালে পরিবারের উপর যেরকম প্রভাব পড়ত। আজ আর পরিস্থিতি সেরকম নয়। বেশিরভাগ পরিবারেই এখন ছেলে ও মেয়েকে সমান চোখে দেখা হয়। সমান অধিকার ও সমান ভালবাসা দিয়েই বড় করা হয়। কিন্তু একটি শিশুর জন্য পরিবার যেমন সুরক্ষিত ও নিরাপদ স্থান, পরিবারের বাইরের পরিবেশ ততটা সুরক্ষিত ও নিরাপদ নাও হতে পারে। বাইরের নানারকম মন্তব্য ও পরিস্থিতি তার মনোবল ভেঙে দিতে পারে। তাই আপনার মেয়ে-কে সেভাবেই গড়ে তুলুন। সেভাবেই শিক্ষা দিন (empower your girl child)। যাতে সে কখনও নিজেকে বাকি কারও থেকে কম না মনে করে। তার কাছে যেন এই বিষয়টি নিশ্চিত থাকে যে, সমাজের আর চার পাঁচজনের মতোই তার অধিকার সমান সমান। সেই নিয়ে কয়েকটি পরামর্শ দিই আপনাকেও।

সে ‘সুন্দর’ না হলেও হবে (empower your girl child)

প্রথম থেকেই আপনার মেয়েকে তার রূপ এবং সৌন্দর্য নিয়ে প্রশংসা করা বন্ধ করে দিন। খেয়াল রাখুন, চারপাশের মানুষও যেন তা না করেন। তাই বলে যে তাকে প্রশংসা করবেন না, তা কিন্তু নয়। তাকে ‘সুন্দর’ ‘প্রিন্সেস’ এসব না বলে তাকে ‘স্মার্ট’ ও ‘বুদ্ধিমান’ বলুন। তার কাজের প্রশংসা করুন। যদি সে কোনও পাজল খুব সহজেই সমাধান করে, সেই কাজের প্রশংসা করুন। সে যদি তার অগোছালো ডেস্ক গুছিয়ে রাখে, তবে তার প্রশংসা করুন। তার মধ্য়ে মূল্যবোধ গড়ে তুলুন। তার শারীরিক বৈশিষ্ট্য নিয়ে কোনও মন্তব্য় নয়। তার দয়ালু, আগ্রহী, সৃজনশীল, শিল্পী, শক্তিশালী (empower your girl child) , স্মার্ট, আত্মবিশ্বাসী সত্ত্বাকে গুরুত্ব দিন। প্রশংসা করুন।

তাকে উড়তে দিন (empower your girl child)

ছোট থেকেই মেয়েদের নানা রকম কাজ করতে বারণ করা হয়। এই বারণ করার বিষয়টি শুরু হয় পরিবার থেকেই। একটি বয়স পার করার পরেই তাকে নানা রকম বাধা ও মন্তব্য শুনতে হয়। নিতান্তই মেয়েকে নিয়ে দুশ্চিন্তা করেই বাবা ও মায়েরা এই ধরনের নিষেধ মেয়ের উপর চাপিয়ে দেন। কখনও তার পোশাক নিয়ে মন্তব্য করেন। কখনও তার জীবনশৈলী নিয়ে মন্তব্য করেন। কখনও তাকে নিজের পছন্দের কাজ করতেও বাধা দেওয়া হয়। এতে আপনার শিশুর মননে আঘাত লাগে। আপনার মেয়ের দুটি সুন্দর ডানা রয়েছে। তাতে দেখুন অনেক অনেক রং। কোনও রং শৈশবের, কোনও রং কৈশোরের, কোনও রং যৌবনের। সেই সব রংকে নিজের মতো উজ্জ্বল হয়ে উঠতে দিন। তাকে আটকে রাখবেন না। ওদের উড়তে দিন (empower your girl child) ।

আপনার মেয়ের প্রকৃত ‘রোল মডেল’ হয়ে উঠুন (empower your girl child)

সব সময় মনে রাখবেন, আপনিই আপনার মেয়ের কাছে অন্যতম উদাহরণ। আপনাকে যদি সে দিনের পর দিন অন্যায় সহ্য করতে দেখে, তাহলে কিন্তু সে মুখ বুজে সব মেনে নিতেই শিখবে। আপনাকে যদি সে পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করতে দেখে, তবে সে আপনার মতোই লড়াই করতে শিখবে। তাই আপনি তার প্রকৃত রোল মডেল হয়ে উঠুন। যাতে আপনি ও আপনার মেয়ে একে অপরের গর্ব হয়ে ওঠেন। যাতে আপনারা একে অপরের হাত ধরে বলতে পারেন, আমরা কোনোদিন অন্য়ায় মেনে নিইনি (empower your girl child) !

মূল ছবি সৌজন্য – কাহানি ২

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজিহিন্দিমারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

28 Jul 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text