home / চুলের যত্ন নিয়ে নানা টিপস
স্ক্যাল্পের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে আপনিও ব্যবহার করুন আপেল সাইডার ভিনিগার

স্ক্যাল্পের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে আপনিও ব্যবহার করুন আপেল সাইডার ভিনিগার

স্ক্যাল্পের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য আপেল সাইডার ভিনিগার ব্যবহার করতে পারেন। অনেকেই হয়তো ইতিমধ্যেই (apple cider vinegar) আপেল সাইডার ভিনিগার ব্যবহার করেছেন। যাঁরা করেননি, তাঁরাও শুরু করুন। কেন (apple cider vinegar) আপেল সাইডার ভিনিগার ব্যবহার করবেন, সেই বিষয়ে আজ আলোচনা করা যাক।

গবেষণায় দেখা গিয়েছে, মোট জনসংখ্যার অর্ধেকের বেশি এই খুশকির সমস্যায় জর্জরিত। শুধু শীতেই নয়, সারা বছর খুশকির সমস্যায় ভোগেন তাঁরা। নানারকম রাসায়নিক প্রোডাক্ট ব্যবহার করেও কোনওভাবেই তাঁরা কোনও ফল পান না। আপেল সাইডার ভিনিগার (apple cider vinegar) ব্যবহারে খুব সহজেই খুশকির সমস্যা নিয়ন্ত্রণে আসতে পারে।

কীভাবে আপেল সাইডার ভিনিগার (apple cider vinegar) ব্যবহার করবেন

আপেল সাইডার ভিনিগার হেয়ার রিন্স – দুই টেবিল চামচ আপেল সাইডার ভিনিগার (apple cider vinegar) নিন। এক কাপ জল নিন। জলের মধ্যে ভিনিগার মিশিয়ে নিন। স্নান করার পর কন্ডিশনার লাগিয়ে নিন। চুল ভাল করে পরিষ্কার করে ওই মিশ্রণ দিয়ে চুল ধুয়ে নেবেন। সেই ভিনিগার যেন স্ক্যাল্পে ও চুলে ভাল ভাবে লেগে যায়। এরপর আর চুল ধোবেন না। দুই সপ্তাহে একবার করতেই পারেন।

আপেল সাইডার ভিনিগার মাসাজ – স্ক্যাল্পে আপেল সাইডার ভিনিগার মাসাজ করলে স্ক্যাল্পের পিএইচ লেভেল ঠিক থাকে। স্ক্যাল্পে বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশন নিয়ন্ত্রণ করে ভিনিগার। তিন টেবিল চামচ আপেল সাইডার ভিনিগার নিন। ভাল ভাবে আঙুল দিয়ে স্ক্যাল্পে (apple cider vinegar to cure dandruff)মাসাজ করবেন। ১০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন। কন্ডিশনার লাগিয়ে নেবেন। সপ্তাহে দুই দিন ব্যবহার করবেন।

কেন আপেল সাইডার ভিনিগার ব্যবহার করবেন

  • আপেল সাইডার ভিনিগার (apple cider vinegar) চুলের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করে। যেমন স্ক্যাল্প অ্যাকনে, চুল পড়ে যাওয়ার মতো সমস্যা ও অন্যান্য স্ক্যাল্পের সমস্যাও সমাধান করে। একইসঙ্গে ডগা চেরা চুলকেও স্বাস্থ্যকর করে তোলে আবার।
  • স্ক্যাল্প ও চুল পরিষ্কার রাখে আপেল সাইডার ভিনিগার (apple cider vinegar) । খুশকির সমস্যা নিয়ন্ত্রণ করে।
  • খুশকির সমস্যায় আপেল সাইডার ভিনিগার কীভাবে সাহায্য করে

খুশকির সমস্যায় আপেল সাইডার ভিনিগার কীভাবে সাহায্য করে

এর মধ্যে আছে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টি ফাঙ্গাল প্রপার্টিস (apple cider vinegar)। যার কারণে খুশকির সমস্যা সমাধান করে। কারণ, বিভিন্ন ফাঙ্গাসের কারণেই স্ক্যাল্পে খুশকি হয়।

আপেল সাইডার ভিনিগার (apple cider vinegar) ব্যবহারের সময় কী কী বিষয় মাথায় রাখবেন

  • পরিমাণ মতো আপেল সাইডার ভিনিগার (apple cider vinegar) ব্যবহার করবেন। বেশি পরিমাণে ব্যবহার করলে তা স্ক্যাল্পকে আরও বেশি রুক্ষ করে দিতে পারে। যদি ভিনিগার ব্যবহারে আপনার স্ক্যাল্প রুক্ষ হয়ে যায়, তবে এই ভিনিগার ব্যবহার বন্ধ করে দিন।
  • আপেল সাইডার ভিনিগার ট্রিটমেন্ট(apple cider vinegar to cure dandruff) করার সময় নিয়মিত চুলে তেল মাখবেন। চুল তেল মাখলে চুলের আর্দ্রতা ঠিক থাকবে। এবং আপেল সাইডার ভিনিগার ট্রিটমেন্টও ঠিকঠাক হবে। না হলে স্ক্যাল্প আরও রুক্ষ হতে পারে।

POPxo এখন চারটে ভাষায়!ইংরেজিহিন্দিমারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন
#POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন
নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

28 Sep 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text