Advertisement

Natural Care

যে-কোনও ধরনের ত্বকের সৌন্দর্য রক্ষায় কাজে আসবে এই ১০টি ঘরে তৈরি ওভারনাইট ফেস মাস্ক

Parama SenParama Sen  |  Oct 23, 2019
যে-কোনও ধরনের ত্বকের সৌন্দর্য রক্ষায় কাজে আসবে এই ১০টি ঘরে তৈরি ওভারনাইট ফেস মাস্ক

Advertisement

ওভারনাইট ক্রিমের কথা তো আমরা সকলেই জানি, কিন্তু ওভারনাইট ফেস মাস্ক ব্যাপারটা এখনও অনেকেরই অজানা। কিন্তু ত্বকের যত্নের ক্ষেত্রে এক নতুন আবিষ্কার হল এই ওভারনাইট ফেস মাস্ক।ওভারনাইট ক্রিম যেভাবে সারা রাত ত্বকের যত্ন নেয়, ঠিক সেভাবেই এই ধরনের ফেস মাস্কও আপনি সারা রাত মুখে লাগিয়ে রাখবেন এবং এটি আপনার ত্বকের দেখভাল করবে রাতভর! আসলে রাতে যখন আমরা ঘুমিয়ে পড়ি, তখন আমাদের ত্বক (skin) নিজে-নিজেই সারা দিনের পরিবেশ দূষণজনিত কারণে এবং অন্যান্য কারণে ত্বকের যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, তা সারাই করার কাজে লেগে পড়ে। এই কাজে তাকে আরও সাহায্য করতে পারে এই ওভারনাইট (Overnight) ফেস মাস্ক। আর সবচেয়ে বড় কথা হল, এই ফেস মাস্ক কিনতে আপনাকে একগুচ্ছ টাকা খরচ করতে হবে না। আপনি নিজেই বাড়িতে অনায়াসে বানিয়ে ফেলতে পারবেন দারুণ কাজের কতগুলি ঘরোয়া ফেস মাস্ক (face mask)। সেই রেসিপিই এখানে বলে দিচ্ছি আমরা…

১. হলুদ-দুধের ফেস মাস্ক

Pixabay

একদিকে যেমন দুধের ল্যাকটিক অ্যাসিড চট করে ত্বকের গভারে ঢুকে তাকে আর্দ্র করে উজ্জ্বল করে তোলে, অন্যদিকে হলুদের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিসেপটিক উপাদান ত্বকে জমে থাকা ক্ষতিকর জীবাণুগুলিকে মেরে ফেলে ও ত্বকে কোনওরকম দাগছোপ পড়তে দেয় না। তাই সপ্তাহে দু-তিনবার দুই টেবিলচামচ দুধে এক টেবিলচামচ হলুদগুঁড়ো গুলে তা রাতে শোওয়ার সময মুখে ভাল করে মেখে ঘুমিয়ে পড়ুন, সকালে ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে নেবেন। দেখবেন, কিছুদিনের মধ্যেই ত্বক উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে। 

২. নারকেল তেল ও টি ট্রি তেলের ওভারনাইট মাস্ক

Pixabay

নারকেল তেল এবং টি ট্রি এসেনশিয়াল অয়েল, ত্বকের যত্নে এই দু’টি উপাদানেরই জু়ড়ি মেলা ভার। নারকেল তেল ঘুমিয়ে থাকা ত্বক পরিষ্কার করার কাজ করে মন দিয়ে আর টি ট্রি অয়েলের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান ব্রণ, ফুসকুড়ি ইত্যাদি কমিয়ে ত্বককে করে তোলে নিখুঁত। সপ্তাহে তিন দিন এক টেবিল চামচ নারকেল তেলে কয়েক ফোঁটা টি ট্রি অয়েল মিশিয়ে তা সারা রাত মুখে মেখে রাখুন। ত্বক তুলতুলে তো হবেই, বাড়বে গ্লো-ও।

৩. লেবু ও মধুর ফেস মাস্ক

Pixabay

লেবুতে উপস্থিত ভিটামিন সি ত্বকের যত্নের ক্ষেত্রে একটি অপরিহার্য উপাদান বলা চলে। এটি ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে ত্বককে পুষ্টি জোগায় ও তাকে আরও কোমল, সতেজ করে তোলে। একটি বাটিতে দুই টেবিলচামচ লেবুর রসের সঙ্গে এক চা চামচ মধু মেশান। তারপর একটি তুলোর বলের সাহায্যে সেই মিশ্রণটি থুপে-থুপে মুখে লাগান। সারা রাত রেখে পরদিন সকালে ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলবেন। সপ্তাহে তিনদিন এটি করতে পারলেই দেখবেন ত্বকের হারানো জেল্লা ফিরে আসছে!

৪. অলিভ অয়েল

Pixabay

ত্বকের উপর মরা কোষ সরিয়ে ফেলতে, ত্বককে ভিতর থেকে আর্দ্র করতে এই তেলের জুড়ি মেলা ভার। রোজ রাতে শুতে যাওয়ার আগে এক টেবিলচামচ অলিভ অয়েল সারা মুখে ভাল করে মেখে আলতো হাতে মাসাজ করে ঘুমোতে যান। সকালে উঠে দেখবেন ত্বক কত মোলায়েম ও কোমল হয়ে গিয়েছে!

৫. মধুর ফেস মাস্ক

Pixabay

ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে, পুষ্টি জোগাতে মধু কাজে আসে। সপ্তাহে তিন দিন রাতে শুতে যাওয়ার সময় এক টেবিলচামচ মধু সারা মুখে আলতো হাতে মালিশ করে ঘুমোতে যান। সকালে উঠে মাইল্ড কোনও ক্লেনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নেবেন। 

৬. অ্যালো ভেরা জেল ও ভিটামিন ই ক্যাপসুলের ফেস মাস্ক

Pixabay

ত্বকের যত্নে আলাদা-আলাদাভাবে এই দু’টি উপাদান তো বহু যুগ ধরে ব্যবহৃত হযে আসছে। কিন্তু এই দু’টিকে একসঙ্গে করে য়ে দারুণ একটি ওভারনাইট ফেস মাস্ক তৈরি করে ফেলা যায়, সেকথা অনেকেরই জানা নেই। এক টেবিলচামচ অ্যালো ভেরা জেল নিয়ে তাতে মেশান দু’টি ভিটামিন ই ক্যাপসুল। সেই মিশ্রণটি সারা রাত মুখে লাগিয়ে রাখুন, সকালে ধুয়ে ফেলুন ঠান্ডা জল দিয়ে। এটি সপ্তাহে প্রতিদিনই লাগাতে পারেন। ক্ষতি তো নেই-ই, উল্টে লাভ আছে! 

৭. গ্রিন টি ফেস মাস্ক

Pixabay

গ্রিন টি-এর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান ত্বকের যত্নে দারুণ কাজে আসে। ত্বকের টোনিংয়ের কাজে ও ডার্ক সার্কল দূর করতে এটির জুড়ি মেলা ভার। যেভাবে গ্রিন টি তৈরি করে আপনি বাড়িতে পান করেন, তার চেয়ে একটু ঘন করে লিকার তৈরি করুন। তারপর তাতে তুলোর বল চুবিয়ে আলতো করে চিপে নিন। এই বলটা সারা মুখে চেপে-চেপে লাগান যাতে বলের লিকারটুকু মুখের ত্বকে ভাল করে ঢুকে যায়। এভাবে সারা রাত রেখে সকালে ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন।

৮. টোম্যাটো ও মধুর ফেস মাস্ক

Pixabay

একদিকে টোম্যাটো স্বাভাবিক ব্লিচের কাজ করে, রোদে পোড়া ত্বকের হাল ফেরাতে এর জুড়ি মেলা ভার। অন্যদিকে মধু হল স্বাভাবিক ময়শ্চারাইজার। ফলে এই দু’টির কম্বিনেশন যে ফাটাফাটি হবে, তা তো বলাই বাহুল্য। সপ্তাহে তিন দিন রাতে তিন টেবিলচামচ টোম্যাটোর সঙ্গে এক টেবিলচামচ মধু মিশিয়ে সেটি ভাল করে সারা মুখে-গলায় লাগিয়ে শুতে যান। সকালে ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে নেবেন।

৯. আমন্ড ও দুধের ফেস মাস্ক

Pixabay

এই দু’টি উপাদান একসঙ্গে মিশিয়ে এমন একটি ফেস প্যাক তৈরি করে ফেলুন, যেটি ফলিক অ্যাসিড ও ভিটামিন ই-এর গুণে সমৃদ্ধ! বুঝতেই পারছেন, এই প্যাকটি নিয়মিত ব্যবহার করলে তা আপনার ত্বককে কতটা নরম করতে পারে। পাঁচটি আমন্ড সারা রাত জলে ভিজিয়ে রেখে দিন। পরের দিন সকালে সেটি মিক্সিতে গুঁড়ো করে তার সঙ্গে মেশান এক টেবিলচামচ দুধ। এই পেস্টটি রাতে ঘুমোতে যাওয়ার সময় মুখে মেখে নিন। 

১০. শসা, গ্রিন টি ও আলুর ফেস মাস্ক

Pixabay

শসা হল স্বাভাবিক কুলিং এজেন্ট, যা ত্বকের প্রদাহ কমিয়ে তাকে শান্ত করে। অন্যদিকে আলু দাগছোপ দূর করে এবং ত্বকের ফোলা ভাব কমিয়ে দেয়। আর গ্রিন টি-র অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদানের কথা তো আগেই আলোচনা করা হয়েছে। আধখানা আলু এবং আধখানা শসা একসঙ্গে গ্রেট করে নিন। এবার হাফ কাপ ঘন গ্রিন টি লিকারের সঙ্গে সেটি ভাল করে ব্লেন্ড করে নিন। এই মিশ্রণটি সারা রাত মুখে মেখে রাখুন। সপ্তাহে তিন বার এই প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty – POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়…