home / ওয়েলনেস
শীত পড়তেই কি চেপে ধরে মন খারাপ? এর কারণ জানেন কি

শীত পড়তেই কি চেপে ধরে মন খারাপ? এর কারণ জানেন কি

রাজ্য়ে অল্প অল্প করে শীত পড়ছে। এই শীতে কারও কারও সময় খুব ভাল কাটে। পিকনিক থেকে শুরু করে বিভিন্ন আউটিং করেও মজা আসে এই সময়ে। কিন্তু সবারই শীতকাল একরকম যায় না। কারও কারও শীত পড়লেই খুব মন খারাপ করতে থাকে। কোনও কাজ করার মানসিকতা থাকে না। সেই শক্তি বা এনার্জি পাওয়া যায় না। আমরা অনেকেই একে ‘উইন্টার ডিপ্রেশন’ বা ‘উইন্টার ব্লুজ’ বলি। অর্থাৎ, বিশেষ ঋতুতে মানসিক সমস্য়া তৈরি হচ্ছে। বিশেষত শীতকালীন মানসিক অবসাদ (winter depression) কেই গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে এই ক্ষেত্রে। চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় বলে (seasonal affective disorder) সিজনাল অ্যাফেক্টিভ ডিসঅর্ডার (SAD ) ।

উইন্টার ডিপ্রেশন (winter depression) কি সিজলান অ্যাফেক্টিভ ডিসঅর্ডার?

সিজনাল অ্যাফেক্টিভ ডিসঅর্ডার(seasonal affective disorder) মানসিক অবসাদের একটি ধরন, SAD বলেও পরিচিত। উইন্টার ডিপ্রেশন বা সিজনাল ডিপ্রেশন বলেও পরিচিত মানসিক অবসাদের এই ধরন। ডায়গনস্টিক ম্যানুয়াল অফ মেন্টাল ডিসঅর্ডারস (DSM-5), এই মেন্টাল ডিসঅর্ডারকে মানসিক অবসাদের একটি ধরন বলে চিহ্নিত করা হয়েছে।

তাড়াতাড়ি সূর্যাস্ত হওয়াও এর কারণ হতে পারে

এটি (winter depression) কী?

সাধারণত যে ঋতুতে সূর্যালোকের প্রভাব কম, সেই সময় এই মানসিক অবসাদ বাড়তে থাকে। যেমন শীতকালেও তা হতে পারে। আবার বসন্ত আসার সঙ্গে সঙ্গে তা ঠিক হয়ে যায়। অনেকে আবার গরমকালেও এই SAD-এ আক্রান্ত হতে পারেন।

শুধুমাত্র উইন্টার ব্লুজ-এর থেকেও বেশি কিছু এই মানসিক অবসাদ। বিশেষজ্ঞদের মতে, সিজনাল অ্যাফেক্টিভ ডিসঅর্ডার মস্তিষ্কের বায়োকেমিক্যাল অসামঞ্জস্যের সঙ্গে যুক্ত। যা দিবালোকের সময়কাল এবং শীতের কম সূর্যালোকের উপরেও নির্ভর করে।

এর (winter depression) উপসর্গ কী কী

উইন্টার ডিপ্রেশনের অন্য়তম উপসর্গ হল ক্লান্তি, অতিরিক্ত ঘুম পাওয়া, খাওয়ার ইচ্ছে বেড়ে যাওয়া এবং ওজনও বাড়তে পারে। এই উপসর্গ খুব সামান্য়ও হতে পারে। আবার প্রকটও হতে পারে।

কী কী উপসর্গ লক্ষ্য করবেন

  • মন খারাপ করছে। অবসাদগ্রস্ত হয়ে আছেন।
  • কোনও কিছু থেকে আগ্রহ চলে যাচ্ছে।
  • খিদে পাওয়ার অভ্যাসে পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে।
  • ঘুমের ব্যাঘাত ঘটছে বা অতিরিক্ত ঘুমাতে ইচ্ছে করছে।
  • কাজ করার শক্তি থাকছে না।
  • নিজের কোনও কাজ নিয়ে সব সময় অপরাধ বোধ হচ্ছে।
  • ভাবনা-চিন্তা করতে সমস্য়া হচ্ছে।
  • আত্মহত্যা প্রবণ হয়ে উঠছেন।

যে কোনও বয়সেই এটি হতে পারে। কিন্তু ১৮-৩০ বছর বয়সে হওয়ার আশঙ্কা বেশি।

সব কিছুতেই কি অনিহা?

চিকিৎসা

নানারকম ভাবেই এর চিকিৎসা করা সম্ভব। লাইট থেরাপির সাহায্য়ে বা অ্যান্টি ডিপ্রেশ্যান্ট ওষুধের সাহায্য়ে কিংবা কথা বলার থেরাপির মাধ্য়মে এই অসুখের চিকিৎসা (winter depression) করা সম্ভব। তবে ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে এই উপসর্গ আস্তে আস্তে চলে যায়।

POPxo এখন চারটে ভাষায়!ইংরেজিহিন্দিমারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন
#POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন
নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

10 Nov 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text