Advertisement

ওয়েলনেস

খালি পেটে চা বা কফি খাওয়াটা কি উচিত? এই ব্যাপারে কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?

popadminpopadmin  |  Aug 22, 2019
খালি পেটে চা বা কফি খাওয়াটা কি উচিত? এই ব্যাপারে কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?

Advertisement

ঘুমের আমেজ কাটাতে সক্কাল-সক্কাল এক পেয়ালা গরম চা বা কফিতে চুমুক মারার তৃপ্তিই আলাদা। সিংহভাগ বাঙালিরই বেড টির প্রতি একটু আলাদা রকমেরই দুর্বলতা রয়েছে। কিন্তু চিকিৎসা বিজ্ঞানের কথা যদি শোনেন, তা হলে কপালে ভাঁজ পড়তে বাধ্য। কারণ, বেশ কিছু স্টাডি অনুসারে সকালে খালি পেটে চা-কফি খাওয়া নাকি উচিত নয়। কেন, তাতে কী হয়? চা-কফিতে রয়েছে Caffeine নামে একটি উপাদান, যা খালি পেটে শরীরে ঢুকলে পেটের গন্ডগোল হওয়ার আশঙ্কা যেমন থাকে, তেমনই শরীরে টক্সিক উপাদানের মাত্রাও বেড়ে যায়। চলুন, আর দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক, খালি পেটে চা-কফি খাওয়ার নানা অপকারিতা সম্পর্কে।

১. শরীরের জলের ঘাটতি দেখা দেয়

ঘুমানোর সময় শরীরের নানা ক্ষত সারাতে বিশেষ কিছু রাসায়নিকের ক্ষরণ বেড়ে যায়, যা শরীরের দেখভালের পাশাপাশি দেহে উপস্থিত নানা ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানগুলিকে ধ্বংস করে দেয়। এত সব কাজ চলাকালীন নানা কারণে শরীরে জলের ঘাটতি দেখা দেয়। তাই তো ঘুম থেকে ওঠামাত্র জল না খেয়ে যদি প্রথমেই চা-কফি (Coffee) পান করা হয়, তা হলে জলের ঘাটতি আরও বেড়ে যায়। এমনটা কেন হয়? কারণ, চা হল diuretic প্রকৃতির পানীয়, যা শরীর থেকে জল বের করে দেয়। ফলে dehydration-এর খপ্পরে পড়ার আশঙ্কা বাড়ে। শরীরে দিনের পর দিনে এই ভাবে জলের ঘাটতি দেখা দিলে ভিটামিন এবং মিনারেলের মাত্রাও কমতে শুরু করে। ফলে বারে-বারে পেশিতে cramp লাগার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে।

২. শরীরে অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যায়

পাকস্থলীতে উপস্থিত Hydrochloric acid, খাবার হজম করাতে সাহায্য করে। কিন্তু কোনও কারণে যদি এই অ্যাসিডটির উৎপাদন বেড়ে যায়, তা হলেই বিপদ! সেক্ষেত্রে পাকস্থলীর লাইনিং-এর মারাত্মক ক্ষতি হয়ে যায়, যে কারণে অ্যাসিডিটি, বুক জ্বালা এবং গ্যাস-অম্বলের মতো সমস্যা মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে। সেই সঙ্গে অ্যাসিড-অ্যালকালাইন ব্যালেন্স বিগড়ে যাওয়ার কারণে স্টমাক আলসারের মতো রোগও ঘাড়ে চেপে বসতে পারে। এখন প্রশ্ন হল, হঠাৎ করে Hydrochloric acid-এর উৎপাদন বেড়ে যায় কীভাবে? বেশ কিছু স্টাডিতে দেখা গেছে, খালি পেটে চা-কফি পান করা মাত্র এই অ্যাসিডটির উৎপাদন বাড়তে শুরু করে। সেই সঙ্গে লেজুড় হয় নানাবিধ শারীরিক সমস্যাও। তাই তো বলি, পাকস্থলীকে সুস্থ রাখতে এবং গ্যাস-অম্বলের প্রকোপ কমানোর ইচ্ছা যদি থাকে, তাহলে ভুলেও ঘুম থেকে ওঠা মাত্র চা-কফি খাবেন না যেন!

৩. ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানের মাত্রা বেড়ে যায়

বেড টির অভ্যাস ছাড়ুন, না হলে কিন্তু চিন্তার বিষয়! কারণ, খালি পেটে চা-কফি পান করলে শরীরে জলের ঘাটতি দেখা দেয়, যে কারণে রক্তের প্রবাহ বিঘ্নিত হয়, সেই সঙ্গে নানা ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানের মাত্রাও বাড়তে শুরু করে। দিনের পর দিন এমন ঘটনা ঘটলে হার্টের তো ক্ষতি হয়ই। এমনকী, লিভার, কিডনি এবং ফুসফুসেরও মারাত্মক ক্ষতি হয়ে যেতে পারে। তাই সময় থাকতে থাকতে সাবধান হওয়াটাই বুদ্ধিমানের কাজ।

৪. দাঁতের মারাত্মক ক্ষতি হয়

দাঁত না মেজে চা (Tea) বা কফি খেলে মুখগহ্বরে উপস্থিত ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াগুলি বিশেষ কিছু অ্যাসিডের উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়, যে কারণে দাঁতের উপরি অংশ, অর্থাৎ এনামেলের যেমন মারাত্মক ক্ষতি হয়, তেমনই gingivitis-এর মতো সমস্যার খপ্পরে পড়ার আশঙ্কাও বাড়ে।

৫. মাথা ঘোরা আর পেট গুড়গুড় করার মতো সমস্যা হতে পারে

চা-কফিতে থাকা caffeine নিমেষে মন-মেজাজকে চনমনে করে তোলে ঠিকই। কিন্তু এই উপাদানটির কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও রয়েছে। বিশেষ করে খালি পেটে থাকাকালীন যদি শরীরে caffeine-এর মাত্রা বাড়তে শুরু করে, তা হলে সারাদিন ধরে মাথা ঘোরা, সঙ্গে পেট গুড়গুড় করার মতো সমস্যাও হতে পারে।

ঘুম থেকে ওঠার পরে কি তা হলে চা-কফি খাওয়া একেবারেই চলবে না?

না, না, তেমন নয়! ইচ্ছা হলে খেতেই পারেন। কিন্তু খালি পেটে খাওয়া চলবে না। ঘুম থেকে ওঠার পরে এক গ্লাস জলে খেয়ে নিয়ে চা-কফি খেতেই পারেন। বা কিছু একটু মুখে দিয়ে, যেমন ধরুন, একটা কলা, নয়তো খানচারেক ভেজানো আমন্ড অথবা কিশমিশ খাওয়ার পরেও চা-কফি খাওয়া চলতে পারে। মোট কথা এক্কেবারে খালি পেটে এমন পানীয় যেন শরীরে প্রবেশ না করে, সেদিকে নজর রাখতে হবে।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!