ঝটপ্ট ওজন কমানোর সহজ উপায় - How To Loose Weight In Bengali | POPxo

ঝটপট ওজন কমানোর ১০টি অব্যর্থ উপায় - How To Loose Weight

ঝটপট ওজন কমানোর ১০টি অব্যর্থ উপায় - How To Loose Weight

মেয়েদের শরীরে একটু-আধটু মেদ খারাপ লাগে না, কারণ, তার ফলে শরীরের ভাঁজগুলো বোঝা যায়। কিন্তু মেদের পরিমাণ যদি হঠাৎ করে বাড়তে থাকে, তখন সেটা একটা বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়! বিশেষত, কর্মরত মহিলারা তো এটাও বুঝে উঠতে পারেন না যে, কখন আর কীভাবে তাদের শরীরের মেদ বাড়তে শুরু করেছে এবং তাঁরা অতিরিক্ত ওজনের শিকার হয়ে পড়েছেন! ভয় পাবেন না। এখানে আমরা কয়েকটি এমন উপায় শেয়ার করব, যেগুলো যদি রোজ মেনে চলেন, তা হলে আপনার ওজন কম হওয়া শুরু করবে! আসুন জেনে নিই সেই ১০টি উপায়!


আরো পড়ুনঃ গরমজল খাওয়ার উপকারিতা


ঝটপ্ট ওজন কমানোর সহজ উপায় - How To Loose Weight Fast In Bengali


খাবার আগে স্যুপ খান


সম্প্রতি একটা রিসার্চে জানা গেছে যে খাবার খাওয়ার ১ ঘন্টা আগে যদি একবাটি স্যুপ খেয়ে নেওয়া যায়, তাহলে খিদে কম পায়. এর ফলে আপনি প্রয়োজনের তুলনায় বেশি খান না এবং আপনার পেটও ভর্তি থাকে.


ব্রেকফাস্টটা হেলদি করুন


আজকের এই ব্যস্ততায় বেশিরভাগ মানুষই সকালের জলখাবার খান না বা খেলেও অবহেলা করে খান. আপনার জানা উচিত যে ব্রেকফাস্ট অর্থাৎ দিনের প্রথম খাবারটা আমাদের সারাদিন দৌড়োদৌড়ি করার জন্য শক্তি যোগায়. প্রতিদিন ঠিক সময়ে ব্রেকফাস্ট করলে আপনার শরীরও ভালো থাকবে এবং আপনার ওজনও বাড়বে না.


ছোট-ছোট মিল খান আর সারাদিন ধরেই অল্প-অল্প করে খেতে থাকুন


যদি আপনি মনে করেন যে সুস্থ থাকবেন, তাহলে সব সময় কিছু হেলদি স্ন্যাক্স সাথে রাখুন যাতে ২-৩ ঘন্টা অন্তর আপনি যেখানেই থাকুন না কেন, সেটা খেতে পারেন. এর ফলে শরীরের মেটাবলিসম বাড়বে এবং আপনার অতিরিক্ত ফ্যাট তাড়াতাড়ি ঝরবে.


মেনুতে লঙ্কা অ্যাড করুন


Copy of pexels-photo-48840


না, কাঁচা কাঁচা লঙ্কা চিবোতে বলছি না. আপনি যদি ঝাল খেতে পছন্দ করেন, তাহলে জেনে রাখুন, লঙ্কা কিন্তু ওজন কমাতে সাহায্য করে। ঝাল খাবার খেলে আমাদের মেটাবলিসম ৮% বেশি তাড়াতাড়ি কাজ করে. ডিনারে অন্যান্য খাবারের সাথে কাঁচা লঙ্কা খান. এতে ফ্যাট বার্ন হয়. তাছাড়া দেখা গেছে, যারা ঝাল খান, তারা আস্তে আস্তে চিবিয়ে চিবিয়ে খাবার খান যেটা ওজন কমানোর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ.


আরও পড়ুনঃ কীভাবে কম করবেন স্তনের মাপ?


শোওয়ার আগে এক কাপ গ্রিন-টি খান


শোবার আগে এক কাপ গ্রিন-টি অবশ্যই খান. গ্রিন-টি মেটাবলিসম বাড়াতে সাহায্য করে আর ঘুমের মধ্যেও ফ্যাট বার্ন হতে থাকে. শুধু যে ওজন কমাতে গ্রিন-টি সাহায্য করে তা না, ক্যান্সার প্রতিরোধেও সাহায্য করে. কিন্তু মনে রাখবেন, গ্রিন-টিতে ক্যাফেইনের পরিমান কফির থেকে বেশি থাকে. তাই প্রয়োজনের তুলনায় বেশি গ্রিন-টি খাওয়াও কিন্তু স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর.


হাসুন!


হাসা একরকমের এরোবিক এক্সারসাইজ. আপনি কি জানেন, যদি আপনি ১ ঘন্টা প্রাণখুলে হাসেন, তাতে ঠিক ততটাই ওজন কমে যতটা ৩০ মিনিট ধরে ওয়ত-লিফটিং করলে কমে? প্রতিদিন ১ ঘন্টা প্রানখুলে হাসলে আপনার প্রায় ৪০০ ক্যালোরি বার্ন হয়. ১ ঘন্টা সম্ভব না হলে অন্তত ১৫ মিনিট সময় বার করে প্রতিদিন লাফিং এক্সারসাইজ করুন.


মিষ্টি শুধু কথায়, খাবারে নয়


97-3


মিষ্টি, নাম মিষ্টি হলেও কিন্তু আপনার ওজন বাড়ার পেছনে ভিলেনের কাজ করে! আপনি যদি সত্যিই ওজন কম করতে চান, তাহলে মিষ্টিকে টাটা করুন. চায়ে চিনি দিলেও তা যেন পরিমানে সামান্য হয়. এরকম সবকিছুর থেকেই নিজেকে দূরে রাখুন, যাতে মিষ্টির পরিমান বেশি. কেক, পেস্ট্রি, ডেজার্টস, ভাজাভুজি জাতীয় খাবার, ইত্যাদির সাথে কিছুদিনের জন্য আড়ি করে দিন. দিনে একবার অন্তত একবাটি মরশুমি ফল খান.


নীল রঙের প্লেটে খাবার খান


যদি আপনি নীল রঙের প্লেটে খান, তাহলে আপনার ওজন খুব তাড়াতাড়ি কমবে. হ্যাঁ, শুনতে অবাক লাগলেও, একটা রিসার্চে দেখা গেছে যে উজ্জ্বল রঙের প্লেটে খাবার খেলে খিদে কমে যায়, যার ফলে আমরা খাবার কম খাই. নীল রং বা অন্য উজ্জ্বল রং আসলে আমাদের মস্তিষ্কে এমন একটা ইল্যুশন তৈরী করে যাতে আমরা অল্প খেয়েই সন্তুষ্টি বোধ করি আর আমাদের পেটও ভর্তি লাগে.


ঘর অন্ধকার করে ঘুমোন


Copy of 20141223161238-good-night-sleep-ditch-e-reader


আলোয় না ঘুমিয়ে অন্ধকারে ঘুমোলে ওজন কমে. আনতে অদ্ভুত লাগলেও এটা সত্যি. ওহিও ইউনিভার্সিটির একটি গবেষণায় জানা গেছে যে অন্ধকারে ঘুমোলে শরীর হালকা হতে আরম্ভ করে আর আপনার ওজনও কমতে আরম্ভ করে. যখন আমরা ঘুমোই, তখন মেলাটোনিন হরমোন আমাদের শরীরে ব্রাউন ফ্যাট তৈরী করে যা ক্যালোরি বার্ন করতে সাহায্য করে. অন্ধকারে বেশি পরিমানে মেলাটোনিন উৎপন্ন হয়. তাই আপনি যদি ওজন কম করতে চান, তাহলে ঘর পুরোপুরি অন্ধকার করে ঘুমোন.


ঘুমোন


যদি সত্যিই ওজন কমাতে চান, তাহলে ঘুম সম্পূর্ণ করুন. ঘুমোলে সারাদিনের ক্লান্তি আর অবসাদ দূর হয়. সত্যি কথা বলতে কি, ওজন কমানোর জন্য বাকি সব কিছু করার সাথে সাথে সম্পূর্ণ ঘুমটাও অতি আবশ্যক. ঘুম পুরো না হলে হাঙ্গার হরমোন পুরোপুরি ভাবে কাজ করতে পারে না, ফলে বারবার খিদে পায়. তাই নিশ্চিন্ত হয়ে ঘুমোন.