অমিতাভ-শাহরুখের পর, এবার রণবীর-আলিয়ার ব্রহ্মাস্ত্রে নাগার্জুনের চরিত্রের কথা জানা গেল

অমিতাভ-শাহরুখের পর, এবার রণবীর-আলিয়ার ব্রহ্মাস্ত্রে নাগার্জুনের চরিত্রের কথা জানা গেল

উফ, আর পারা যাচ্ছে না! বিশ্বাস করুন, মহাভারতের দুর্যোধন আর অয়ন মুখোপাধ্যায়ের ব্রহ্মাস্ত্র (Brahmastra) বিরক্তিতে ঠিক একই জায়গায় চলে যাচ্ছে আস্তে-আস্তে। প্রথমজন নাকি দু বছর ধরে মাতৃগর্ভে ছিলেন। আর দ্বিতীয়টি যে কবে সিনেমাহলের আলোর মুখ দেখবে কে জানে! যখন কুম্ভে গিয়ে ঘটা করে ছবির ফার্স্ট লুক আর লোগো লঞ্চ করেছিলেন অয়ন অ্যান্ড কোং, তখন সেখানে বড়-বড় করে লেখা ছিল যে ছবিটির প্রথম পার্ট মুক্তি পাবে ক্রিসমাস ২০১৯-এ। এর মধ্যে টলিউডের শঙ্কু রেডি হয়ে গেলেন মুক্তির জন্য, কিন্তু বলিউডের বঙ্কু, থুড়ি ব্রহ্মাস্ত্র আর রেডি হচ্ছে না। 

তা হবেটা-ই বা কী করে শুনি। নিত্যিদিন অয়ন নিত্যনতুন লোককে টানতে-টানতে নিয়ে আসছেন তাঁর ছবিতে পার্ট করানোর জন্য। আর সকলেই ভাবছেন, এই হল গিয়ে চান্স অফ দি লাইফটাইম, আম্মো বাপু পরে বাদলা দিনে, মুড়িমাখা খেতে-খেতে নাতিপুতির কাছে গপ্পো করতে পারব, 'সে একখান ছবি হয়েছিল বটেক' বলে, তাই সুড়সুড়িয়ে রাজিও হয়ে যাচ্ছেন! তা সে অমিতাভ বচ্চন থেকে শুরু করে শাহরুখ খান, মায় দক্ষিণী সুপারস্টার নাগার্জুন পর্যন্ত...আর সকলের চরিত্রই নাকি ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ! বোঝো! অমিতাভ শেখাবেন, শাহরুখ লেখাবেন, নাগার্জুন পড়াবেন, তা হলে রণবীরের (Ranbir-Alia) কৃতিত্ব কোথায় রে বাবা। আসলে বাহুবলী রমরম করে সব রেকর্ড-টেকর্ড ভেঙে দেওয়ার পর থেকেই স্টারদের এই ব্যামোটা হয়েছে। তাঁরা বুঝতে পারেন না যে কোন পিরিয়ড পিসটা হিট হবে, আর রেকর্ড গড়বে, তাতে সবেতেই হ্যাঁ বলে দেন। তারপর যা হওয়ার তা-ই হয়। আমির খানও ওসব ভেবেই বোধ হয় 'ঠগস অফ হিন্দোস্তান' করতে রাজি হয়েছিলেন। সেই ছবি পোস্টারের আঠা শুকানোর আগে হল থেকে উঠে গিয়েছিল বলে নাকি তারপর নাকখত দিয়েছেন, আর কেউ বললেও রাজি হবেন না।

যাক গে, এবার চলুন জেনে নিই, নাগার্জুন (Nagarjuna) ঠিক কী করছেন (character) এই ছবিতে। মোটামুটি অ্যাদ্দিনে যেটুকু বোঝা গিয়েছে, তাতে রণবীর হলেন ভারী বয় নেক্সট ডোর গোছের একটি শান্তিপ্রিয় লক্ষ্মী ছেলে। তাঁর নাম শিবা এবং তিনি হাত দিয়ে আগুন বের করতে পারেন। জানি, আপনার মতো আমাদেরও মনে হচ্ছে যে, এক্ষেত্রে তাঁর নাম অগ্নি হওয়াটাই উচিত ছিল, কিন্তু অয়নের তা মনে হয়নি, তাই সেটা দেননি। আলিয়া আছেন তাঁর প্রেমিকা হিসেবে। তাঁর নাম ইশা। নাগার্জুন বোধ হয় ওই ইতিহাসের শিক্ষক-টিক্ষক টাইপের কিছু। মোট কথা তিনি দলবল, ছাত্রছাত্রী নিয়ে কোনও একটি পুরনো মন্দির খুঁজে বের করতে চলেছেন। ঘটনাচক্রে শিবা আর ইশা তাঁর দলে চলে আসে। এই চরিত্রটিতে নাগার্জুনকে নেওয়ার আলাদা করে কী প্রয়োজন ছিল, সেকথা পরিচালক মশাইকে জিজ্ঞেস করলেই বোধ হয় ভাল হবে। আমাদের ধারণা, অয়ন বোধ হয় চেয়েছিলেন যে, সারা ভারতের সব প্রান্তের সুপারস্টাররা থাকুন এই ছবিতে, যাতে সর্বত্র ছবিটি হিট করে। তা অয়ন, আপনি বাঙালি হয়েও বাংলার কাউকে নিলেন না? আমরাও তো নিত্যদিন বুনিপের সঙ্গে লড়াই করে টিকে আছি, নাকি?

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়..