পরিচারিকা ও ড্রাইভারকে ৫০ লাখ টাকা উপহার দিলেন Alia Bhatt

পরিচারিকা ও ড্রাইভারকে ৫০ লাখ টাকা উপহার দিলেন Alia Bhatt

আলিয়া ভাটের (Alia Bhatt) সময়টা সত্যিই ভালো যাচ্ছে। এর আগে ভালো ব্যবসা করেছে ‘রাজি’ আর ‘গাল্লি বয়।’ হাতে পরপর রয়েছে অনেকগুলো ছবি। তার মধ্যে সাম্প্রতিকতম হল সলমান খানের বিপরীতে সঞ্জয় লীলা বনশালির ছবি ‘ইনশাআল্লাহ’ ও রয়েছে। কিন্তু আলিয়া (Alia Bhatt) জানেন ভালো সময়েও যারা সব সময় তোমার পাশে ছিল তাদের কখনও ভুলে যেতে নেই। আর তাই নিজের জন্মদিনের আগে নিজের অনেক দিনের পুরনো পরিচারিকা ও ড্রাইভারকে দুর্দান্ত উপহার দিয়ে চমকে দিলেন তিনি (Alia Bhatt)।


ab 4


জন্মদিনে সবাই উপহার আশা করে। এটাই তো স্বাভাবিক। সকলেই চায় ছোট বড় নানা উপহারে ভরে যাক জন্মদিনের ঝুলি। স্পটবয়ই’র রিপোর্ট অনুযায়ী আলিয়ার জন্মদিন অর্থাৎ ১৫ই মার্চের দু’দিন আগেই তিনি নিজের অনেকদিনের পুরনো ড্রাইভার সুনীল আর পরিচারিকা আনমোলকে পঞ্চাশ লাখ টাকার চেক দিয়েছেন। যাতে তারা দুজনেই মুম্বাইতে বাড়ি কিনতে পারে। সুনীল এবং আনমোল আলিয়ার সঙ্গে প্রায় ৭ বছর কাজ করছেন। করণ জোহারের ছবি ‘স্টুডেন্ট অফ দা ইয়ার’ দিয়ে ২০১২ সালে নিজের কেরিয়ার শুরু করেছিলেন আলিয়া। আর সেই তখন থেকেই আলিয়ার গাড়ি চালাচ্ছেন সুনীল এবং তার দেখাশোনার দায়িত্বে আছেন আনমোল। সূত্রের খবর আলিয়ার দেওয়া উপহারের টাকায় ইতিমধ্যেই জুহু গলি আর খার দান্দা অঞ্চলে বাড়ি বুক করেছেন সুনীল ও আনমোল।


ab5


সম্প্রতি আলিয়ার নতুন কেনা বাড়ি নিয়ে মিডিয়ায় চর্চার শেষ ছিল না। এই বাড়ির মূল্য প্রায় তেরো কোটি টাকা। তবে জুহুর অভিজাত অঞ্চলে কেনা এই বাড়িটি শুধু এই কারণেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে ওঠেনি। মিডিয়ার কল্যাণে ইতিমধ্যেই এই খবর সবাই জেনে গেছে যে আগামী এপ্রিল মাসে পারিবারিক পণ্ডিতের সঙ্গে আলিয়া ও রনবীরের বিয়ে নিয়ে আলোচনায় বসবে কাপুর ও ভট পরিবার। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী বছরেই গাঁটছড়া বাঁধবেন দুজনে। তাই সকলেই ধারণা করছেন রণবীরের সঙ্গে একসাথে থাকবেন বলেই এই বাড়ি কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আলিয়া।


ab 6


যদিও নিন্দুকের সব কথা হাওয়ায় উড়িয়ে দিয়েছেন আলিয়া। কিছুদিন আগেই তিনি নিজের প্রযোজনা সংস্থা খুলেছেন। যার নাম ইটারনাল সানশাইন প্রোডাকশান। আর এই সংস্থার অফিসের জন্য বেশ খানিকটা বাড়তি জায়গার প্রয়োজন নায়িকার। সেই কারণেই তিনি এই বাড়িটা কিনেছেন বলে দাবি। তার সঙ্গে আদৌ রণবীর থাকবেন কি থাকবেন না সেটা এখন অনেক দূরের প্রশ্ন বলে মনে করেন আলিয়া। তার মতে এই নতুন কেনা বাড়ি আর তার বাবা মা ও বোন যেখানে থাকেন সেই বাড়ি, দুটোই খুব কাছাকাছি। সুতরাং আলাদা থেকেও পরিবারের কাছাকাছি থাকবেন বলেই তিনি এই বাড়ি কিনেছেন। আলিয়া ছোট থেকেই স্বাবলম্বী। আর তাই তিনি চেয়েছিলেন তার নিজস্ব বাড়ি। এমন একটি বাড়ি যার প্রতিটা ইঁট থেকে শুরু করে দেওয়ালের রঙ পর্যন্ত তার পছন্দের হবে। আর এক্ষেত্রেও একদম তাই হয়েছে। বাড়ির প্রতিটা আসবাব ও ঘর সাজানোর জিনিস সব আলিয়ার পছন্দে কেনা হয়েছে। ‘আমার বাড়ি’ এটা বলার মধ্যে একটা তৃপ্তি আছে, একটা সুখ আছে আর সেই সুখ তিনি ভাগ করে নিলেন অন্য দুজন মানুষকে মাথা গোঁজার ঠাঁই উপহার দিয়ে।


Picture Courtsey: Instagram 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!