ডিজাইনার সব্যসাচীর কাছ থেকে লেহঙ্গার অর্ডার দিলেন আলিয়া! বিয়ের ফুল ফুটতে আর দেরি নেই!

ডিজাইনার সব্যসাচীর কাছ থেকে লেহঙ্গার অর্ডার দিলেন আলিয়া! বিয়ের ফুল ফুটতে আর দেরি নেই!

হবে কী হবে না, হবে কী হবে না, কিছুই বোঝা যাচ্ছে না! এই মনে হচ্ছে হয়ে গেল, পরের মুহূর্তেই মনে হচ্ছে এই যাহ ফস্কে গেল। কী বলছি কিছুই বুঝতে পারছেন না তো? আসলে বলছি আলিয়া ভট্ট (Alia Bhatt) আর রনবীর কপূরের (Ranbir Kapoor) কথা। এই তাঁদের প্রেম তুঙ্গে, নিউ ইয়র্ক যাচ্ছেন আর আসছেন, যাচ্ছেন আর আসছেন। বাবা অসুস্থ সেটা বুঝলাম। কিন্তু তাঁকে একশবার করে দুজনে দেখতে যাচ্ছেন। তাপ্পর ঝপাং ঝপাং করে সেলফি তুলে টপাং টপাং করে দিয়ে দিচ্ছেন। তারপরেই শোনা যাচ্ছে যে এ নাকি ওকে চোখ রাঙিয়েছে। আবার দুজনের মুখ ভার হয়ে গেছে। সম্পক্ক ভাঙল বলে। তখনই দু'জনে তেড়েফুঁড়ে উঠে বলছেন যে মোটেও না, উই আর ভেরি মাচ টুগেদার। মাঝখানে আমাদের প্রতিভাবান নায়িকা আলিয়া একখানা জবরদস্ত বাড়ি কিনলেন। কেন গো খুকি? মায়ের সঙ্গে ঝগড়া না বাবা বকেছে? নিন্দুকেরা বলল, ও আর রনবীর আসলে বিয়ে করবে। বিয়ে না করুক একসঙ্গে থাকবে। নায়িকা মুখ ফুলিয়ে বলল, তোমরা ভারি দুষ্টু। আমি এখন স্বয়ংসিদ্ধা হয়েছি। নিজের পায়ে দাঁড়িয়েছি। তাই একটু হাত পা ছড়িয়ে থাকতে চাই। আর আমার বাড়ি থেকে মায়ের বাড়ি এই টুকুন দুরত্বে। এই যাচ্ছি আর আসছি। সে ভাল কথা। তবে কী জানেন তো, রনবীরের বাড়ির উপর শনির নজর আছে। না সত্যি বলছি বিশ্বাস করুন। যখনই রনবীর বাড়ি কেনেন প্রেমিকা পালিয়ে যায়। দীপিকা গেছে, ক্যাটরিনা গেছে, আলিয়া এখনও আছে। সেই ভয়েই বোধহয় বাড়ি কিনলেও দুজনে আলাদাই আছেন। তবে ওই টুকুই। এমনিতে দুজনে সারাক্ষণ চুইং গামের মতো একে অপরের সঙ্গে চিপকে আছেন। এত কথা কেন বলছি বলুন দেখি। কথা হচ্ছে এই যে আগামী বছর মানে ২০২০তে গরমকালে ওরা হাতি নাচছে ঘোড়া নাচছে করতে পারেন। মানে বিয়ে করতে পারেন। শোনা যাচ্ছে যে বিখ্যাত ডিজাইনার সব্যসাচীর (Sabyasachi) কাছ থেকে একটা লেহেঙ্গার (lehenga) অর্ডার দিয়েছেন। বুঝতে পারছেন কিছু?  

instagram

সব্যসাচীর লেহেঙ্গা বলে কথা! অনুস্কা এই লেহেঙ্গা পরে বউ সেজেছেন, দীপিকা সেজেছেন, তাহলে আলিয়া কেন বাদ যান। সূত্রের খবর ইতিমধ্যেই স্পেশ্যাল লেহেঙ্গার অর্ডার দিয়ে রেখেছেন। মানে ঋষি কপূর, যদিও তিনি অসুস্থ মানুষ, তবুও হাজার গণ্ডা ছবি তুলে সময় পেয়ে দেশে ফিরলেই পোঁ পোঁ করে বিয়ের সানাই বাজবে বলেই মালুম হচ্ছে। সামনেই আবার তাঁরা ব্রহ্মাস্ত্র ছাড়বেন! না, না মিসাইল নয় রে বাপু। সিনিমার কথা বলছি। এখন ওইটা নিয়ে এমনিতেই যা তাক ঝুমাঝুম চলছে। ও সিনিমা আদৌ চলবে কিনা কে জানে বাপু। আর সেইজন্যই এই বিয়ে বিয়ে খেলা কিনা কে জানে! তবে আমরাও তো চাই চার হাত এক হোক। তবে কী তারকাদের ব্যাপার। না আঁচিয়ে বিশ্বাস নেই। এখন শুধু ওয়েট অ্যান্ড ওয়াচ! 

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!
আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!