করোনা সতর্কতায় অঙ্কুশকে ঝাঁটা দিয়ে পেটালেন ঐন্দ্রিলা!

করোনা সতর্কতায় অঙ্কুশকে ঝাঁটা দিয়ে পেটালেন ঐন্দ্রিলা!

করোনা ভাইরাসের (coronavirus) আতঙ্কে গৃহবন্দি গোটা দেশ। আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে লকডাউন। সচেতনতা প্রচারে বিভিন্ন ভিডিও বার্তা দিচ্ছেন সেলেবরা। কেউ বা মজার মোড়কে পৌঁছে দিচ্ছেন সচেতনতার বার্তা। এবার তেমনই একটি ভিডিও শেয়ার করলেন অঙ্কুশ।

ভিডিওতে রয়েছেন অঙ্কুশ (Ankush) এবং ঐন্দ্রিলা (Oindrila)। তাঁদের সম্পর্কের কথা টলি মহলে কারও অজানা নয়। মজা করে ঐন্দ্রিলার কাছে আসার চেষ্টা করছেন অঙ্কুশ। কিন্তু ঐন্দ্রিলা ঝাঁটাপেটা করলেন তাঁকে। এমনকি মজা করে খালপাড়ের শাহরুখ খানও বললেন অভিনেত্রী। আসলে করোনা আতঙ্কের কারণে এখন দূরে থাকাই শ্রেয় বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। সে কথাই আরও একবার মনে করিয়ে দিলেন এই তারকা জুটি।

দিন কয়েক আগে ঐন্দ্রিলার জন্মদিন ছিল। কথা ছিল, আল্পসের বুকে অঙ্কুশের সঙ্গে জন্মদিন কাটাবেন ঐন্দ্রিলা সেন। তবে সে ইচ্ছেপূরণ অধরা থেকেছে এবার। করোনার দাপটে জন্মদিনে সুইৎজ়ারল্যান্ড যাওয়ার পরিকল্পনা আগেই বাতিল হয়ে গিয়েছে অভিনেত্রীর। কিন্তু ঐন্দ্রিলার জন্মদিনে অঙ্কুশের বাড়িতেই সেলিব্রেশন হয়েছে। নায়িকার পছন্দের খাবার ছিল সেদিনের মেনুতে।   

 

কেউ রান্না করছেন, কেউ বিউটি রুটিন মেনে চলছেন, কেউ ঘর পরিষ্কার করছেন, কেউ বা বই পড়ছেন, এভাবেই নিজেদের ভিডিও শেয়ার করেছেন সেলেবরা। তবে সকলের মধ্যেও অঙ্কুশ, ঐন্দ্রিলার ভিডিও একটু অন্যরকম তা এক কথায় মেনে নিয়েছেন সোশ্যাল অডিয়েন্সের একটা বড় অংশ। তা শেয়ারও করেছেন অনেকেই। 

অন্যদিকে, দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। ইতিমধ্যেই ওই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১৯৬৫ জন। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, বুধবার রাত পর্যন্ত দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৮৩৪ জন। বৃহস্পতিবার সকালে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, আক্রান্তের সংখ্যা এখন ১৯৬৫ জন। অর্থাৎ ১৩১ জন নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন। এ দিন আরও ৯ জনের মৃত্যুও হয়েছে। ফলে এখনও পর্যন্ত গোটা দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫০। তবে আশার কথা, এর মধ্যেই চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৫১ জন। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের হিসেব অনুযায়ী, আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। সেখানে ৩৩৫ জন করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যুও হয়েছে ১৩ জনের। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কেরল। সেখানে ২৬৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এর পরে যথাক্রমে রয়েছে তামিলনাড়ু (২৩৪), দিল্লি (১৫২), উত্তরপ্রদেশ (১১৩)-এর মতো রাজ্য। পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এখনও পর্যন্ত ৩৭। মৃত্যু হয়েছে তিন জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ছ’জন। এর মধ্যেই উদ্বেগ বাড়িয়ে দিয়েছে মুম্বইয়ের ধারাভি বস্তিতে এক করোনা আক্রান্তের মৃত্যু। তিনি যে বাড়িতে থাকতেন, তা সিল করে দেওয়া হয়েছে। তাঁর পরিবারের সাত জনকে কোয়রান্টিনে পাঠানো হয়েছে। দিল্লির নিজামউদ্দিনের তাবলিঘি জামাতে যোগদানকারীদের নিয়েও আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।