ছপাকের নতুন লুকে একদমই অচেনা দীপিকা পাড়ুকোন! (chapak movie first look)

ছপাকের নতুন লুকে একদমই অচেনা দীপিকা পাড়ুকোন!  (chapak movie first look)

অ্যাসিড আক্রমণের বিরুদ্ধে আন্দোলন নামা লক্ষ্মী আগরওয়ালের (Laxmi Agarwal) জীবনকে পর্দায় তুলে ধরতে চলেছেন দীপিকা পাড়ুকোন। পরিচালনায় মেঘনা গুলজার (meghna gulzar)। 


ছবির নাম "ছপাক" (chapak movie first look)। নাম থেকেই বুঝতে অসুবিধা হয় না যে এই মুভিতে এক নির্মম মুহূর্তকে তুলে ধরতে চলেছেন পরিচালক (meghna gulzar), যে মুহূর্তের সাক্ষী থাকতে চায় না কোনও মেয়েই। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে অ্যাসিড অ্যাটাকের (acid attack) ঘটনা থেমে নেই। বরং দিল্লি, উত্তর প্রদেশ সহ উত্তর ভারতের একাধিক রাজ্যে আজও কোনও না কোনও মহিলা এমন ভয়ঙ্কর আক্রমণের শিকার হচ্ছেন। তাই এমন সিনেমা কিছুটা হলেও যে সমাজের সেই অন্ধকার দিকে একটু আলোকপাত করবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু প্রশ্ন হল সিনেমার মতো এমন জনপ্রিয় একটি গণমাধ্যম কি পারবে পুরুষদের এমন বর্বরোচিত মানসিকতাকে বদলে দিতে, সেটাই এখন লাখ টাকার প্রশ্ন।


laxmi-2


২০০৫ সালে মাত্র ১৫ বছরে বয়সে লক্ষীর (Laxmi Agarwal) শরীর তাক করে ছুড়ে দেওয়া হয়েছিল অ্যাসিড বোতল। তার দোষ ছিল সে ৩২ বছর বয়সী এক পুরুষের প্রেম নিবেদন অস্বীকার করেছিল। তার ফল যে এমন ভয়ঙ্কর হবে, তা হয়তো স্বপ্নেও ভাবেনি লক্ষ্মী। তবে এমন ভয়ঙ্কর অবস্থাতেও ভেঙে পরেননি এই যোদ্ধা। নিজে পায়ে দাঁড়িয়ে আরও এক নতুন লড়াই শুরু করেছিলেন। প্রায় ২৭,০০০ স্বাক্ষর সংগ্রহ করে সুপ্রীম কোর্টে পিটিশান দাখিল করেছিলেন অ্যাসিডের বিক্রির উপর যাতে সরকারি নজরদারি থাকে, সে বিষয়ের উপর। দীর্ঘ লড়াইয়ের পর জয় মিলেছিল বটে! সুপ্রিম কোর্ট কেন্দ্রীয় এবং রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছিল অ্যাসিড বিক্রির উপর নজর রাখার জন্য। তবে এখানেই থেমে যায়নি লক্ষ্মীর লড়াই। নিজের এবং বাকি অ্যাসিড অ্যাটাক আক্রান্ত মহিলাদের (acid attack victim) জীবন সংগ্রমের ছবি তুলে ধরার জন্য শুরু করেছিলেন "স্টপ সেল অ্যাসিড" নামক ক্যাম্পেন (stop sell acid movement)। আর আজ তো একজন আইনজীবী হিসেবে সেই আন্দোলনকে এক অন্য মাত্রায় নিয়ে গেছেন লক্ষ্মী (Laxmi Agarwal)। আর সেই লড়াকু মহিলার জীবনই ছবির পর্দায় তুলে ধরবেন আরেক লড়াকু মহিলা দীপিকা।


laxmi-1


পদ্মাবতীর পরে কোনও নতুন ছবি করেননি রনবীর ঘরণী। তবে এবার ফিরছেন একেবারে তাক লাগিয়ে দেওয়া এক চরিত্রকে সঙ্গী করে, আর তার প্রমাণ মেলে ছপাক ছবিতে দীপিকার ফাস্ট লুক দেখলেই (deepika padukone and chapak movie)। তবে শুধু মুখ্য ভূমিকাতেই নেই দীপিকা, সেই সঙ্গে সহ প্রযোজনাও করছেন। তাই তো সব মিলিয়ে মিস পাড়ুকোনের আগামী ভেঞ্চার নিয়ে আমজনতার মধ্যে উৎসাহ কম নেই। বিশেষত টুইটারে দীপিকার ফাস্ট লুকের (chapak movie first look) ছবি ছড়িয়ে পরার পর থেকে তো ছপাক ছবিকে নিয়ে আলোচনা একেবারে তুঙ্গে।



 


বাদ যাননি কঙ্গনা রানাওয়াতের বোন রাঙ্গলিও। তিনি এক টুইটের মাধ্যমে প্রশংসা করেছেন দীপিকা এবং মেঘনার (meghna gulzar) এই প্রয়াসকে...



দীপিকার বিপরীতে, লক্ষ্মীর স্বামীর চরিত্রে অভিনয় করতে চলেছেন অ্যামাজন প্রাইমের ওয়েব সিরিজ "মিরজাপুর" খ্যাত বিক্রান্ত মাসেই, যার অভিনয় শৈলী ইতিমধ্যেই সারা ফেলে দিয়েছে ছবি প্রেমীদের মাঝে। তাই দীপিকা-বিক্রান্তের জড়ি যে কম চমকপ্রদ হবে না, তা তো বলাই বাহুল্য! ছপাক রিলিজ হতে চলেছে আগামী বছর জানুয়ারি মাসে।


ছবির কৃতজ্ঞতা স্বীকার: wikipedia,instagram


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!