পরের সপ্তাহে আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড় যশ, কী কী সতর্কতা মেনে চলবেন আপনি

পরের সপ্তাহে আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড় যশ, কী কী সতর্কতা মেনে চলবেন আপনি

আমফানের সবে এক বছর হয়েছে। গত বছর ২০মে ল্যান্ডফল করেছিল ওই বিধ্বংসী সাইক্লোন। তার ক্ষত এখনও রাজ্যবাসীর মনে দগদগে। বিশেষ করে এই কয়েক বছরে একের পর এক ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি সুন্দরবন। একটি ঝড়ের ক্ষতি সামলে উঠতে না উঠতে আরও একটি ঘূর্ণিঝড় এসে লন্ডভন্ড করে দিয়েছে সুন্দরবনবাসীর জীবন। এক বছরের মাথায় আবার আছড়ে পড়তে চলেছে 'যশ' ঘূর্ণিঝড়। আগামী ২৫-২৬মে-তেই ল্য়ান্ডফল হবে (cyclone yasa) এই ঝড়ের। আমফানের থেকেও বেশি গতিবেগ থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে। একেই করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ, তার উপর ঘূর্ণিঝড়ের প্রকোপ। কোন ক্ষতির মুখোমুখি আমাদের দাঁড় করিয়ে দেবে, সেই আশঙ্কা পূর্ব অভিজ্ঞতা থেকে করতে পারছি আমরা।

যশ - জেনে নিন যাবতীয় তথ্য

  • আবহাওয়া দপ্তরের তরফে জানানো হয়েছে, ২২মে অর্থাৎ আগামীকাল আন্দামানের উত্তরে এবং পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরের কাছে একটি নিম্নচাপ তৈরি হবে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে শক্তিশালী হবে সেই নিম্নচাপ।
  • ২৪মে একটি ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়ের আকার নেবে। কোনও যদি উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন না হলে ঘূর্ণিঝড়টি উত্তর-পশ্চিমে এগিয়ে আসবে।
  • এখনও পর্যন্ত আবহাওয়া দপ্তরের তরফে মনে করা হচ্ছে, যশ-এর ল্যান্ডফল হতে পারে ২৫ মে মধ্যরাত থেকে ২৬ মে ভোরের মধ্যে।
  • এখনও ঘূর্ণিঝড়ের গঠন সম্পূর্ণ হয়নি তাই এর অভিমুখ এখনও স্পষ্ট নয়। সুন্দরবন উপকূলবর্তী এলাকায় ল্য়ান্ডফল হতে পারে।
  • ল্যান্ডফলের সময় এর সর্বোচ্চ গতিবেগ থাকবে ১৩৫ থেকে ১৪০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা। আমফানের গতিবেগ ছিল প্রতি ঘণ্টায় ১২১ কিলোমিটার।

তার মানে বোঝাই যাচ্ছে ২৫ ও ২৬মে আমাদের কত সাবধানে থাকতে হতে পারে। বিশেষ করে দুই মেদিনীপুর ও দুই ২৪ পরগনার বাসিন্দাকে বেশি সতর্ক থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করেছে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। তবে আমাদের নিজেদেরও কিছু সতর্কতা আগে থেকেই নিয়ে রাখতে হবে। যাতে ল্যান্ডফলের দিন আমরা বিপদ থেকে কিছুটা হলেও নিজেদের বাঁচিয়ে রাখতে পারি।

কী কী করবেন

সব প্রয়োজনীয় ওষুধ কিনে রাখুন

যশ ঘূর্ণিঝড়ের কারণে বেশ কিছু পরিষেবা ওদিনের জন্য বন্ধ থাকতে পারে। তাই আপনার প্রয়োজনীয় ওষুধ আগে থেকেই কিনে রাখুন। এছাড়াও জ্বরের, পেট খারাপের ওষুধ কিনে রাখবেন। জীবনদায়ী যে ওষুধ আপনার প্রয়োজন, সেটিও হাতের কাছে রাখবেন। যাতে কোনও অসুবিধায় না পড়তে হয়।

পাওয়ার ব্যাঙ্ক, মোবাইল চার্জ করে রাখবেন

বিপর্যয়ের কারণে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই কঠিন পরিস্থিতিতে মোবাইলের প্রয়োজন রয়েছে সব সময়। তাই মোবাইল ও আপনার পাওয়ার ব্যাঙ্কগুলি চার্জ করে রাখুন। যাতে মোবাইল কোনওভাবে না বন্ধ হয়ে যায়।

এমার্জেন্সি আলো এবং ইনভার্টার ব্যাটারি চার্জ করবেন

মোবাইলের পাশাপাশি এমার্জেন্সি আলো চার্জ করে রাখবেন। যাতে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হলে প্রয়োজনে আলো পেতে পারেন। একইসঙ্গে ইনভার্টার ব্যাটারি চার্জ করে রাখবেন।

 

Beauty

Ultimate Germ Defence 35 Sanitizing Wipes + 30 Sanitizing Towels + 4 Moisturizing Hand Sanitizers

INR 999 AT MyGlamm

দেশলাই, মোমবাতি হাতের কাছে রাখবেন

বেশ কয়েকটি মোমবাতি ও দেশলাই কিনে রাখবেন।

ট্যাঙ্কে ব্যবহারের জল ভর্তি রাখবেন

বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আগে ও বিপর্যয় শুরুর আগে জলের ট্যাঙ্ক ভরে নেবেন।

পানীয় জল ও শুকনো খাবারের জোগান রাখবেন

বিপর্যয়ের পরবর্তী সময়ে এই দুই জিনিসের খুবই প্রয়োজন। পানীয় জল ও শুকনো খাবার যেন আপনার হাতের কাছে থাকে।

তথ্য সৌজন্য - জি ২৪ ঘণ্টা, নিউজ ১৮ বাংলা, আবহওয়া দপ্তর

মূল ছবি  -  (প্রতীকী) ইনস্টাগ্রাম

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!