কপূরদের সঙ্গে নিউ ইয়র্কে দীপিকা পাডুকোন: কতই রঙ্গ দেখি দুনিয়ায়!

কপূরদের সঙ্গে নিউ ইয়র্কে দীপিকা পাডুকোন: কতই রঙ্গ দেখি দুনিয়ায়!

শ্রীরাধিকা না চন্দ্রাবলী, কারে রাখি কারে ফেলি! এহেন অবস্থা রণবীর কপূরের যে কত বার হয়েছে তার ইয়ত্তা নেই! দীপিকা (Deepika Padukone) থেকে ক্যাটরিনা সেখান থেকে আরও দু-একটা খুচরো খেপ খেলে শেষে আলিয়ায় এসে আপাতত থিতু হয়েছেন তিনি! অবিশ্যি ভবিষ্যতে কী হবে তা, আমি জানি না। যাক গে, পয়েন্টে আসা যাক। যখনই ছেলে এদিকওদিক গেছেন, তাঁকে পক্ষীমাতার মতো আগলে রেখেছেন নীতু কপূর। তাঁর ছেলে দুধের শিশু, বড়ই অবোধ এবং সব দোষ ওই বজ্জাত মেয়েদের গোছের হাবভাব করে তিনি বোঝাতে চেয়েছেন যে, তাঁর ছেলের বিয়ের সিদ্ধান্ত তিনি নিজেই নেবেন। তা বেশ! 


দীপিকার সঙ্গে যখন খুল্লামখুল্লা আশনাই চালাচ্ছেন রণবীর, মায়ের মুখ চিমনির কালি! কেন? এ মেয়ে তাঁর না-পসন্দ। মাকে শুধু দোষ দিয়ে লাভ কী? ঋষি কপূরও কিছু কম যান না। তিনি এমনিতেই আজকাল উল্টোপাল্টা মন্তব্য করার একটা কোর্স শুরু করেছেন। ফলে 'কফি উইথ করণ'-এ এসে দুম করে বলে দিয়েছিলেন, দীপিকা নেহাতই অপরিণত একটি মেয়ে, যে কিনা রণবীরকে কব্জা করে ফেলেছেন। এরপর আর কোনও কথা হয় বলুন তো? দীপিকা হল শান্ত মাথার মেয়ে। সে দেখল বাবা, এ তো দেখছি আমার এ কূল-ও কূল দুকুলই যাবে। না হবে সংসার আর না হবে কেরিয়ার। তার চেয়ে মটর পনির থুড়ি... অন্য রণবীরে কনসেনট্রেট করা যাক। তারপর যা হল সে তো ইতিহাস। সিংহ মশাইয়ের সঙ্গে তাঁর প্রেম, একটু বেশি-বেশি কান এঁটো করা হাসি আর লোকজনের সামনে গা-জ্বলানো ভাব-ভালবাসার আদিখ্যেতার পর চার হাত এক হল। দেখা গেল, ব্যক্তিগত জীবনে যাই হোক না কেন, পেশাগত জীবনে দু'জনেই একদম দশে দশ। পরের পর হিট ছবি দিয়ে দু'জনেই প্রমাণ করলেন যোগ্যতা। এদিকে রণবীরের প্রায় ডুবন্ত কেরিয়ার কোনওরকমে বাঁচল 'Sanju' দিয়ে। এরপর অবশ্য দু'-একটা ছবি করছেন, তবে উনি যেরকম খামখেয়ালি মানুষ, সেই ছবির কী হাল হবে, সেটা এখনই বলা যাচ্ছে না। 


deepika n rishi 3


কথায় বলে, বলিউড আর আবহাওয়া, কখন যে পাল্টে যায়, কেউ বলতে পারে না! যে দীপিকাকে এক সময় সিনিয়র কপূর দম্পতি দু' চক্ষে দেখতে পারতেন না, আজ তাঁদের সঙ্গেই আহ্লাদে আটখানা হয়ে গলা জড়িয়ে ছবি দিয়েছেন দীপিকা। অসুস্থ ঋষির সঙ্গে আর বোধ হয় পুরনো মনোমালিন্য বজায় রাখতে চান না তিনি। আর ঋষি আর নিতুও এদ্দিনে বুঝেছেন যে দীপিকা কতটা পরিশ্রমী, তাই তিনি আজ সাফল্যের শিখরে। তা ছাড়া মেয়ের এখন বিয়ে-থাওয়া হয়ে গেছে, এখন আর ছেলে ফস্কে যাওয়ার চান্স নেই! আর এই কথাটা হাড়ে-হাড়ে বুঝেছেন রণবীরও। তাই তো কেমন সোনা মুখ করে করণ জোহরের পার্টিতে প্রাক্তন প্রেমিকাকে বগলদাবা করে ছবি তুললেন, একটা বিজ্ঞাপনও করলেন একসঙ্গে। মনে-মনে কী আছে জানি না, তবে কাজের জায়গায় দু'জনে হাত মিলিয়ে নিয়েছেন, সেটা পষ্ট! এর পর দু'জনে ছবিও করবেন আবার হয়তো! আর তাই মাম্মি ডিয়ার বলেছেন, দারুণ উষ্ণ এক সন্ধে নাকি দীপিকা উপহার দিয়েছেন তাঁদের। মেট গালা সেরে-টেরে দীপিকা গিয়েছিলেন দেখা করতে, গালাও হল আবার বরফও গলে গেল! এক ঢিল মেঁ দো পাখি! বলিউডের ছলনা কোথায় যে রাখি! 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!