একটি স্যানিটারি ন্যাপকিন চলবে ১২০ দিন! চমকপ্রদ আবিষ্কার দিল্লি আইআইটির দুই ছাত্রের

একটি স্যানিটারি ন্যাপকিন চলবে ১২০ দিন! চমকপ্রদ আবিষ্কার দিল্লি আইআইটির দুই ছাত্রের

একজন সফল প্যাডম্যানকে আমরা ইতিমধ্যেই চিনে ফেলেছি। পর্দায় যার উজ্জ্বল জীবন তুলে ধরেছিলেন অক্ষয়কুমার। সেই অরুণাচলম মুরুগান্থমের পথে হাঁটলেন দিল্লি (Delhi) আইআইটির (IIT) দুই কৃতি ছাত্র। গতকাল অর্থাৎ মঙ্গলবার তাঁরা সকলের সামনে তুলে ধরেছে তাঁদের এই আশ্চর্য আবিষ্কার। কলা গাছের ফাইবার দিয়ে তাঁরা তৈরি করেছেন রিইউজেবল (reusable) স্যানিটারি (sanitary) ন্যাপকিন (pads)। দিল্লি আইআইটির দুই কৃতী ও মেধাবী ছাত্র অর্চিত অগ্রবাল ও হ্যারি শেরাওয়াত পরামর্শ নিয়েছেন তাঁদের শিক্ষকদের। তারপর নিজেদের অক্লান্ত প্রচেষ্টায় তাঁরা এই স্যানিটারি ন্যাপকিন আবিষ্কার করেছেন। দু'জনেই দাবি করেছেন, এক-একটি স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহারের পর ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে নিলে ১২০ বার ব্যবহার করা যাবে! এটা সত্যিই ভাবা যায় না। একজন মহিলার কাছে এটা দারুণ একটা খবর। আর সবচেয়ে ভাল খবর তাঁদের কাছে, যাঁরা বাড়ির বউ বা মেয়ের জন্য এক প্যাকেট স্যানিটারি ন্যাপকিন কেনাকে বাড়তি খরচ বলে মনে করেন! আপনি হয়তো এই কথা শুনে অবাক হচ্ছেন, কিন্তু এটাই সত্যি। ভারতবর্ষের অসংখ্য গ্রামে, এমনকী শহরেও কিছু-কিছু অঞ্চলে ঋতুস্রাব নিয়ে এখনও অনেক ভুল ধারণা আছে। একজন প্যাডম্যানের পক্ষেই কি সেগুলো দূর করা সম্ভব? তাই এগিয়ে এসেছেন অর্চিত আর হ্যারি। 

pexels

অর্চিত আর হ্যারি এ-ও বলেছেন যে, এই একটি প্যাডের প্যাকেট একবার কিনলে সেটা প্রায় দুই বছর চলবে। মিডিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎকারে অর্চিত বলেন যে, এই প্যাড রিইউজ করা যাবে এবং এটি আলট্রা থিন অর্থাৎ এতটাই পাতলা যে খুবই আরামদায়ক হবে মহিলাদের জন্য। এই প্যাড তৈরির সময় কোয়াড্রান্ট ট্রু লক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে যাতে কোনওরকম লিকেজ না হয় এবং এই প্যাড সব রকম ত্বকের জন্য মানানসই। ফলে এটি ব্যবহার করলে র‍্যাশ হওয়ার কোনও আশঙ্কা নেই। ইতিমধ্যেই এই প্যাডের জন্য পেটেন্ট ফাইল করেছেন দু'জন। স্যাম্পল প্রোডাক্ট পাঠানো হয়েছে নেপাল, আফ্রিকা ও আরব দেশগুলিতে। দুই প্যাকেট প্যাডের দাম ধার্য করা হয়েছে ১৯৯ টাকা। নেপালের সঙ্গে ফাইনাল হয়েছে তাঁদের চুক্তি। তাই নেপালেই আগে এই প্যাড তাঁরা সরবরাহ করেছেন। আফ্রিকা ও আরবেও কিছু স্যাম্পল প্রোডাক্ট পাঠানো হয়েছে। আফ্রিকায় এই প্যাড এখন পরীক্ষার স্তরে আছে। যদিও অর্চিত ও হ্যারি তাঁদের এই প্যাড নিয়ে যথেষ্ট আশাবাদী। তাঁরা অপেক্ষা করছেন, খুব তাড়াতাড়িই আফ্রিকা মহাদেশ থেকে একটা ভাল খবর তাঁদের জন্য আসবে।

আফ্রিকাকে কেন তাঁরা এই প্যাড বিক্রির জন্য বেছে নিলেন এই প্রশ্ন অনেকের মনে জাগতে পারে। সেটা সম্ভবত এই কারণে যে ভারতের মতো আফ্রিকাতেও এই ঋতুস্রাব নিয়ে কিছু ভ্রান্ত ধারণা রয়েছে। রয়েছে এমন কিছু ট্যাবু, যা আজকের দুনিয়ায় শুনতে খুব অদ্ভুত ও হাস্যকর লাগতে পারে। অর্চিত আর হ্যারির এই প্রয়াস নিঃসন্দেহে প্রশংসা করার মতো। আগামী দিনে তাঁদের এই পরিকল্পনা সফল হোক সেটাই আশা করি।  

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!