পাঁচ বছর সংসারের পর বিচ্ছেদ দিয়া মির্জা ও সাহিল সঙ্ঘের! নেপথ্যে অন্য সম্পর্ক?

পাঁচ বছর সংসারের পর বিচ্ছেদ দিয়া মির্জা ও সাহিল সঙ্ঘের! নেপথ্যে অন্য সম্পর্ক?

বন্ধুত্ব, প্রেম, বিয়ে ...দিয়া মির্জা (Dia Mirza) এবং সাহিল সঙ্ঘর (Sahil Sangha) জীবন চলছিল ফর্মুলা মেনেই। হঠাৎই ছন্দপতন। গতকাল বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা করেছেন এই দম্পতি! তা বলি (Bollywood) পাড়ায় সেপারেশন বা ডিভোর্স (Divorce), কোনওটাই নতুন নয়। বরং ডিভোর্স করেই হেডলাইনে চলে আসেন বহু তারকা। এ হেন ইন্ডাস্ট্রিতে দিয়া-সাহিলের ডিভোর্সের খবরে কিন্তু আলোড়ন তৈরি হয়েছে। আর তা হয়েছে পাত্রীর নাম দিয়া বলেই বোধ হয়।

না, খুব একটা জমকালো কেরিয়ার দিয়ার নয়। অভিনয়ের নিরিখে ফার্স্ট বেঞ্চার নন তিনি। তবে তাঁর মিষ্টি স্বভাবের গুণে সকলেই তাঁকে ভালবাসেন। বন্ধু বা সহকর্মী সকলেরই মুখে দিয়ার প্রশংসা। এ হেন দিয়া বেশ কয়েক বছর সাহিলের সঙ্গে চুটিয়ে প্রেম করেছেন। তারপর বিয়ে। কোমর বেঁধে সংসারও করছিলেন। অন্তত তাঁদের দাম্পত্যে যে মেঘ ঘনিয়েছে, বৃষ্টিও হতে পারে, সে আশঙ্কা কথা ঘুণাক্ষরেও কেউ আঁচ করতে পারেননি। তাই দিয়ার ডিভোর্সের খবরে ছন্দপতন হবে তো বটেই।

দিয়ার সোশ্যাল ওয়াল খুঁজলে প্রমাণ পাওয়া যাবে, মাসখানেক আগেও সাহিলের সঙ্গে লাভি-ডাভি ছবি দিয়েছেন নায়িকা। প্রেম যে বিয়ের কয়েক বছর পরেও জমে রয়েছে, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ প্রকাশের জায়গাই তৈরি হয়নি। এমনকী, দু' সপ্তাহ আগেও সাহিলের জন্মদিনে দিয়া ছবি পোস্ট করে লিখেছিলেন, ‘প্রেশাস ওয়ান’। তা হলে হঠাৎ কী এমন হল, যাতে বিয়ে ভেঙে দিতে হচ্ছে? কোনওভাবেই আর টিকিয়ে রাখা গেল না দাম্পত্য? 

বলিউডে গুঞ্জন, সাহিল নাকি সম্প্রতি নতুন সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন! প্রথম দিকে নাকি তা জানতেই পারেননি দিয়া। কিন্তু যখন কানে খবর এল, প্রমাণ পেলেন সাহিলের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে, তখন ভেঙে গিয়েছিল দিয়ার বিশ্বাস। এতদিনের গড়ে তোলা সম্পর্কের ভিত আলগা হতে খুব দেরি হয়নি। আর সেই ভেঙে যাওয়া বিশ্বাসের উপর নির্ভর করে লোক দেখানো সম্পর্ক টেনে নিয়ে যেতে কোনওভাবেই আগ্রহী ছিলেন না দিয়া। ফলে যা হওয়ার তাই হল। মার্জিত ভঙ্গিতে দুনিয়াকে জানিয়ে দিলেন, আর কোনওভাবেই সাহিলের সঙ্গে থাকা সম্ভবই নয়!

View this post on Instagram

Happy Birthday precious one 💖

A post shared by Dia Mirza (@diamirzaofficial) on

শোনা যাচ্ছে, জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া ছবির চিত্রনাট্যকার কণিকা ধিলোঁর সঙ্গেই নাকি সম্পর্কে জড়িয়েছেন সাহিল। গত ছ' মাস ধরে তাঁরা ডেট করছিলেন বলে খবর। সেই গোপন তথ্য দিয়া জানতে পারার পরই সাহিলের সঙ্গে বিবাহিত জীবনে সমস্যা শুরু হয়। ধীরে-ধীরে তিনি দূরে সরে যেতে থাকেন। শেষ পর্যন্ত বিবাহবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন। আর তাতে সায় দেন সাহিলও। ২০১৪-এ বিয়ে করেন দিয়া-সাহিল। তার আগে তাঁরা লিভ টুগেদারও করতেন। তবে বিবাহিত সম্পর্ক শেষ করে দিলেও তাতে কোনও তিক্ততা আনতে চান না কেউই। অন্তত প্রকাশ্যে। সোশ্যাল বার্তায় তাঁরা স্পষ্ট জানিয়েছেন, বিয়ে ভাঙলেও বন্ধুত্ব থাকবে।

সত্যিই কি বিয়ে ভাঙার পরও বন্ধুত্বের সহজ সম্পর্ক বজায় রাখা সম্ভব? নাকি তা কেবলই ভদ্রতার খাতিরে বজায় রাখা শীতল বন্ধুত্ব?

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!