লুকোচুরি খেলেই চলেছেন সারা আলি খান ও কার্তিক আরিয়ান! লোকে বিরক্ত হলে হোক!

লুকোচুরি খেলেই চলেছেন সারা আলি খান ও কার্তিক আরিয়ান! লোকে বিরক্ত হলে হোক!

বিশ্বাস করুন, আপনারা গোটা ব্যাপারে ঠিক যতটা বিরক্ত, আমরাও ঠিক ততটাই! কিন্তু তাতে সারা আলি খান (Sara Ali Khan) আর কার্তিক আরিয়ানের (Kartik Aryan) কিছু যায়-আসে বলে মনে হয় না! তাঁরা সেই জোর করে লুকোচুরি খেলবেনই! আর কী বাজে খেলুড়ে রে বাবা! খালি ধরা পড়ে যান আর অমনই মুখ লুকিয়ে ফেলেন! আসলে সারা আলি খান জন্মসূত্রে ফিল্মি বটে, কিন্তু কার্তিক আরিয়ানের বংশে তিনি জন্মানোর আগে পর্যন্ত সকলে সিনেমা দেখতে যেত, করতে নয়! তাই এখনও বেচারা কায়দাটা ঠিক রপ্ত করে উঠতে পারেননি! ফলে একটু-একটুতেই বোঝা যায় যে, বেচারা আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। কিন্তু বাস্তবে তো আর পরিচালক-স্ক্রিপ্ট রাইটার নেই, তাই কিছুতেই ব্যাটে-বলে হচ্ছে না! 

এই তো গতকাল হপ্তাখানেক মা-ভাইকে নিয়ে লন্ডনে ছুটি কাটিয়ে এলেন সারা আলি খান। সেখানে দেদার ছবি তুললেন, সেলফি তুলতে দিলেন, ভাইয়ের সঙ্গে আদিখ্যেতা, সাইকেল চালানো, সবই করলেন! তারপর আবার সপরিবারে দেশে ফিরলেন। কার্তিক আরিয়ানও এর মধ্যে বৃষ্টিভেজা মুম্বইয়ে জিম-টিম করছিলেন আর যথারীতি ফোটোগ্রাফাররা জানতেও পেরে যাচ্ছিল যে, তিনি কখন জিম থেকে বেরবেন আর সেই মতো সেখানে গিয়ে তাঁর ছবিও তুলে ফেলছিল! যাই হোক, সারা দেশে ফিরলেন আর কার্তিকও তাঁকে রিসিভ করতে এয়ারপোর্টে (Airport) গেলেন। না, যাওয়ার খুব একটা প্রয়োজন ছিল না। সারা তো আর কচি খুকিটি নন যে, পথ হারিয়ে ফেলবেন কিংবা আমার-আপনার মতো তাঁকে রাত্তিরে প্রি-পেড ট্যাক্সির লাইনে দাঁড়াতে হবে! কিন্তু তবুও কার্তিকবাবু গেলেন...ওই যে বললুমা না, কাঁচা খেলুড়ে এখনও...গেলেন, আর অমনই পটাপট ছবি উঠল আর অমনই পাক্কা সেলেব্রিটিসুলভ কায়দায় কার্তিক মুখখানি লুকিয়ে ফেললেন! তা-ও এমনভাবে, যাতে দেখে বেশ বোঝা যায় যে, ইনিই কার্তিক আরিয়ান! বিশ্বাস না হলে এই নীচে ছবিটি রইল নিজেরাই দেখে নিন...

Instagram

এবার বিশ্বাস হল তো! আপনারাই বলুন, এমন করে মুখ লুকানোর কোনও প্রয়োজন ছিল কি? আমার কিন্তু কার্তিকের চেয়েও বেশি রাগ হচ্ছে সারার উপর! তিনি তো ভাই পাকা খেলোয়াড়! সেই কেদারনাথ আর সিম্বা-র প্রচারের সময় থেকে সর্বত্র ঢাক পিটিয়ে বলে আসছেন যে, তিনি নাকি কার্তিক আরিয়ানকে ডেট করতে চান! তখন লোকে ভেবেছিল, আহা, কী সরলমতি মেয়ে হয়েছে সেফের, একদম পেটের কথা লুকিয়ে রাখতে পারে না! যখন কফি উইথ করণ-এ গিয়েও কার্তিক আরিয়ানের নাম করলেন, তখন করণও চোখ-টোখ কপালে তুলে এইসা অ্যাক্টো করলেন, যেন সারা সত্যিই কোনও বোমা-টোমা ফেলেছেন! সেফও পাশে বসে যোগ্য সঙ্গত করলেন মেয়ের নাটকে! ওমা, এদিকে তলায়-তলায় তো সব ঠিকই ছিল। সিম্বা-কেদারনাথ-এর পর আগে থেকে ঠিক করা শেডিউল অনুযায়ী সারা-কার্তিক নতুন ছবির শুটিং শুরু করলেন আর অমনই শুরু হল তাঁদের লুকোচুরির গল্প! 

তারপর থেকেই তাঁরা সর্বত্র দুটিতে-জুটিতে হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন আর ভাজা মাছটি উল্টে খেতে জানি না টাইপের মুখ করে বলছেন, যাঃ বাবা, আমরা তো কো স্টার! তা ভাই সারা, আপনি যখন খেলাটা জানেন, তখন কার্তিককে একটু ভাল করে শিখিয়ে-পড়িয়ে নেবেন তো! আপনি কী সুন্দর গটমটিয়ে এয়ারপোর্ট থেকে বেরিয়ে এলেন মা-ভাইয়ের সঙ্গে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে, যাতে ছবিতে শুধু আপনাকেই পায় ফোটোগ্রাফাররা...আর কার্তিক কিনা সেই বোকার মতো ধরা পড়ে গেলেন! 

নীচে দেখে নিন সারা আলি খানের এয়ারপোর্ট থেকে বেরনোর ভিডিয়ো। দেখলেই বুঝবেন, এই মেয়ে অনেক দূর যাবেন! 

আর আপনাদের মন ভরিয়ে তোলার জন্য রইল আরও একটি ভিডিয়ো! এটি কিছুদিন আগে তোলা, কার্তিক আরিয়ানের জন্মদিন সেলিব্রেশনের! কিন্তু PDA-র বহরটা একবার দেখে নিন প্লিজ!

এবার কহানি মেঁ টুইস্ট! এই লেখা শেষ হওয়ার সঙ্গে-সঙ্গে খবর এল যে, এবার সারা আলি খান মুখ ঢেকেছেন! তা-ও কার্তিক আরিয়ানকে এয়ারপোর্টে সি-অফ করতে গিয়ে! কার্তিক রওনা দিলেন লখনউ, পতি, পত্নী অউৎ উয়ো ছবির আউটডোরে! তাঁর দুই কো-স্টার অনন্যা পাণ্ডে এবং ভূমি পেডনেকর আগেই চলে গিয়েছেন সেখানে। কার্তিক একা অপেক্ষা করছিলেন সারার শহরে ফেরার। নইলে তাঁকে এয়ারপোর্টে সি-অফ করতে কে যেত শুনি!

মূল ছবি সৌজন্য: ইনস্টাগ্রাম

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!