ধর্ষককে যোগ্য শাস্তি দিতে সৌদি আরব পর্যন্ত ধাওয়া করলেন মহিলা আইপিএস মেরিন জোসেফ

ধর্ষককে যোগ্য শাস্তি দিতে সৌদি আরব পর্যন্ত ধাওয়া করলেন মহিলা আইপিএস মেরিন জোসেফ

কিরণ বেদী বা আমাদের বাংলার দময়ন্তী সেন, ভারতীয় মহিলা পুলিশদের ইতিহাস রচিত হলে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে এই দু'জনের নাম। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হল আরও এক সুপারকপের নাম। মেরিন জোসেফ (Merin Joseph)। কেরলের (Kerala) অসম সাহসী এবং দৃঢ়চেতা এই আইপিএস অফিসারকে (supercop) নিয়ে এই মুহূর্তে চর্চায় গোটা দেশ। অনেকেই তাঁকে অভিহিত করেছেন অগ্নিকন্যা নামে। কিন্তু কেন? এমন কী করেছেন মেরিন যার জন্য তাঁকে ধন্য-ধন্য করছেন সকলে? আসুন, আগে ঘটনাটা জেনে নেওয়া যাক।

ঘটনাটা একটু পুরনো। সেই ২০১৭ সালের কথা। কেরলের কোল্লাম অঞ্চলের এক ১৩ বছরের কিশোরীকে ক্রমাগত ধর্ষণ করছিলেন বছর আটত্রিশের সুনীল কুমার ভদ্রন। আপনারা শুনলে অবাক হবেন, এই সুনীল ছিলেন আদতে মেয়েটির বাবার বন্ধু। সুনীল সৌদি আরবে থাকতেন এবং ভারতে কিছুদিন ছুটি কাটাতে এসেছিলেন। যখন সাহস করে মেয়েটি সব জানাল পরিবারকে, তখন অনেক দেরি হয়ে গেছে! মেয়েটির পরিবার যখন পুলিশের কাছে যায় তখন সুনীল সৌদি আরব ফিরে গেছেন। মেয়েটিকে একটি হোমে পাঠানো হয়। কিন্তু লজ্জায়, ঘৃণায় এবং হতাশায় যে সুনীল কোনওদিনই শাস্তি পাবে না, মেয়েটি হোমেই আত্মহত্যা করে। আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় মেয়েটির কাকাও। কারণ, এই কাকাই ঘটনাচক্রে সুনীলের সঙ্গে মেয়েটির পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন!  

twitter

এত বড় অপরাধ করেও সৌদি আরবে বহাল তবিয়তে ঘুরে বেড়াচ্ছিলেন সুনীল। তিনি পেশায় একজন রাজমিস্ত্রি। যদিও কেরলে সুনীলের নামে তখনও অ্যারেস্ট ওয়ারেন্ট বহাল ছিল। কারণ, একজন নাবালিকাকে ধর্ষণের মতো জঘন্য অপরাধ করেছিলেন তিনি। কিন্তু সুনীল অন্য দেশে থাকায় এই কেস আস্তে-আস্তে চাপা পড়ে যাচ্ছিল। অবশেষে এই কেসের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিলেন মেরিন। এই বছরেই জুন মাসে কমিশনারের পদে যোগদান করেন মেরিন। দায়িত্ব নিয়েই তিনি কেরলের পুরনো কেসগুলো একের পর এক ফয়সালা করতে থাকেন। মেয়েটির পরিবারকে তিনি কথা দেন যে, সুনীলকে তিনি যোগ্য শাস্তি দেবেন। 

প্রথমে সিবিআইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেন মেরিন। তারপর সিবিআই ইন্টারপোলের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে পারে যে, সুনীল এখন রিয়াধে আছেন। নিজের টিম নিয়ে রিয়াধে পৌঁছে গেছেন মেরিন। তাঁর নিজে না গেলেও চলত। তবে মেরিন অন্য ধাতুতে গড়া! তিনি ভারতের তরুণ অফিসারদের মধ্যে অন্যতম, যিনি মহিলাদের উপর অত্যাচার নিয়ে সরব। কোল্লামের আন্তর্জাতিক অপরাধ দমন শাখা রিয়াধের পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। যাতে মেরিন ওখানে যাওয়ার আগেই সুনীলকে তাঁরা গ্রেফতার করেন। সুনীল ভদ্রন হবেন প্রথম অপরাধী যাকে ভারতে অপরাধ করার জন্য সৌদি আরব থেকে গ্রেফতার করা হবে। ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়া মেরিন জোসেফের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। অনেকেই তাঁকে 'সিংঘম' ডাকনাম দিয়েছেন। তিনি সত্যিই সিংহহৃদয়। মেরিন জোসেফকে আমাদের কুর্নিশ!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!