সম্পর্কের বরফ গলছে, কথা শুরু করলেন টলিউডের দুই নায়িকা মিমি ও শুভশ্রী, নেপথ্যে কে?

সম্পর্কের বরফ গলছে, কথা শুরু করলেন টলিউডের দুই নায়িকা মিমি ও শুভশ্রী, নেপথ্যে কে?

প্রেমের ফাঁদ পাতা ভুবনে। কে কোথা ধরা পড়ে, কে জানে? সত্যিই তো। কে কখন কার প্রেমে পড়বে, তা আগাম বুঝতে পারা যায় নাকি? 'দো দিল' মিলেছিল টলি পাড়ায়। না, চুপকে চুপকে নয়। বেশ শোরগোল করেই মিলন হয়েছিল মনের মানুষের সঙ্গে। হঠাৎই থার্ড পার্সনের এন্ট্রি। এ বলে, ওর জীবনে নতুন মানুষ এসেছে। তো ও বলে, ওর জীবনে এখন অন্য কেউ! রেজাল্ট? প্রেমে ভাঙন। সম্পর্কে ইতি। আর পুরুষটির জীবনে সশব্দে আরও এক টলি সদস্যের এন্ট্রি...। 

ঘটনাটি চেনা-চেনা লাগছে? আপনি যদি টলিউডের রেগুলার ফলোয়ার হন, তাহলে কয়েকমাস আগের এই ঘটনা নিশ্চয়ই মনে করতে পারবেন। ঠিকই ধরেছেন ত্রিকোণ প্রেম। পাত্র পরিচালক তথা প্রযোজক রাজ চক্রবর্তী। পাত্রী দুই নায়িকা মিমি (mimi) চক্রবর্তী এবং শুভশ্রী (Subhashree)গঙ্গোপাধ্যায়! 

মিমি, রাজের প্রেমের খবর টলিউডে (tollywood) কারও অজানা ছিল না। একসঙ্গে ঘোরাফেরা কারও নজর এড়ায়নি। হঠাৎই ছন্দপতন। ছবির শুটিংয়ে তুরস্ক গিয়েছিলেন মিমি। তখনই হঠাৎ ভেঙে যায় প্রেম। শোনা যায়, মিমির জীবনে নতুন কেউ এসেছিলেন। যদিও সে খবর জল্পনার স্তরেই থেকে গিয়েছে। বরং রাজের জীবনে এসেছেন নতুন মানুষ। তিনি আরও এক নায়িকা। শুভশ্রী। শুধু প্রেম নয়, ধুমধাম করে বিয়ে করেন রাজ, শুভশ্রী। বাওয়ালি রাজবাড়িতে বিয়ের রাজকীয় অনুষ্ঠানের পর কলকাতার রিসেপশনে হাজির ছিল প্রায় গোটা টলিউড ইন্ডাস্ট্রি। কিন্তু মিমির অনুপস্থিতি চোখে পড়েছিল সকলের।

 

তখন থেকেই মিমি, শুভশ্রীর বাক্যালাপ কার্যত বন্ধ ছিল। কোনও অনুষ্ঠানেও এড়িয়ে যেতেন একে অপরকে। সেই পর্বের পর অবশ্য অনেকটা সময় কেটে গিয়েছে। অনেক পরিবর্তন এসেছে সকলেরই। অভিনয়ের পাশাপাশি মিমি পুরোদস্তুর রাজনীতিতে এসেছেন। তিনি এখন নির্বাচিত সাংসদ। পরিচালনা, প্রযোজনার পাশাপাশি কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন রাজ। আর শুভশ্রী এখন রাজের স্ত্রী। রাজের পরিচালনায় বিয়ের পর প্রথম কামব্যাক করলেন 'পরিণীতা' দিয়ে। সদ্য মুক্তি পেয়েছে এই ছবি। আর 'পরিণীতা'ই বদলে দিয়েছে অনেক সমীকরণ। সোশ্যাল মিডিয়ায় হলেও কথা শুরু করেছেন দুই নায়িকা।

 

'পরিণীতা'র জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় শুভশ্রী, ঋত্বিক এবং রাজ চক্রবর্তী প্রোডাকশন হাউজের সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মিমি। ছবিটা যাতে ব্লকব্লাস্টার হয়, তিনি উইশ করেছেন। উত্তরে শুভশ্রীও ধন্যবাদ জানিয়েছেন মিমিকে। তিনি লিখেছেন, 'পারলে দেখিস ছবিটা।' অর্থাৎ সম্পর্কের বরফ গলছে। যদিও মিমি কাছে রাজ এখনও ব্রাত্যই। কারণ রাজকে আলাদা করে শুভেচ্ছা জানাতে দেখা যায়নি তাঁকে। 

কিন্তু সত্যিই কি স্বাভাবিক হচ্ছে সম্পর্ক? এর প্রশ্নের উত্তরে টলি মহলের অনেকেই বলছেন, এ সম্পর্ক ঠিক হওয়ার নয়। বরং সৌজন্য বলতে পারেন। অনেকে আবার গোটা বিষয়টি পজিটিভ ভাবে দেখতে চান। কারণ ছোট্ট একটা ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ হয়। ফলে আজ না হোক কাল, একে অপরকে দরকার হতেই পারে। তাই সোশ্যাল মিডিয়াতে হলেও দুই নায়িকা যে কথা শুরু করেছেন, এতেই খুশি অনুরাগীদের একটা বড় অংশ। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!