ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করতে নাকি আপত্তি আছে মিমি চক্রবর্তীর! তাই ছেড়ে দিচ্ছেন ছবির অফার?

ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করতে নাকি আপত্তি আছে মিমি চক্রবর্তীর! তাই ছেড়ে দিচ্ছেন ছবির অফার?

মিমি (Mimi) চক্রবর্তী। না! এখন আর শুধুমাত্র অভিনেত্রী নন তিনি। নির্বাচিত সাংসদও বটে। ফলে ফিল্মি কেরিয়ারেই আটকে নেই জীবন। দায়িত্ব বেড়েছে। শুরু হয়েছে রাজনৈতিক জীবনও। ফলে যে কোনও সিদ্ধান্ত আগের তুলনায় অনেক বেশি ভেবে-চিন্তে নিতে হয় তাঁকে। অনেক মানুষকে নিয়ে পথ চলায় যাতে কোনও ভুল পদক্ষেপ না হয়, সেদিকে কড়া দৃষ্টি থাকে তাঁর। সেই কারণেই সম্ভবত অনেক বেছে ছবি নিচ্ছেন মিমি।

প্রতিম ডি গুপ্তর পরের ছবি 'লাভ আজ কাল পরশু'তে নাকি যিশু সেনগুপ্তর বিপরীতে মিমিকে অভিনয়ের অফার দেওয়া হয়েছিল। অর্থাৎ মুখ্য ভূমিকায় যিশু-মিমির জুটি। কিন্তু ছবিতে বেশ কিছু ঘনিষ্ঠ দৃশ্য (intimate scenes) রয়েছে। যে সব দৃশ্যে অভিনয় করতে স্বচ্ছন্দ নন তিনি। সে কারণেই ফিরিয়ে দিয়েছেন ছবির অফার! মিমির ব্যখ্যা, এখনও পর্যন্ত কেরিয়ারে তিনি ইন্টিমেট সিন করেননি। সে সব দৃশ্যে কখনও তিনি স্বচ্ছন্দ ছিলেন না। ফলে এতদিন পরে এসে কেন করবেন? মিমির বদলে প্রতিম এখন লিড কাস্টের জন্য অন্য অভিনেত্রীর নাম ভাবছেন বলে খবর।

আপাতত তাঁর প্রথম মিউজিক অ্যালবামের রিলিজ নিয়ে ব্যস্ত মিমি। আগামী রবিবার তাঁর অ্যালবামের লঞ্চ। সম্প্রতি নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলও খুলেছেন তিনি। বিদেশে শুট করেছেন। ভাষাও বাংলা নয়। বরং ইংরেজি। অর্থাৎ গোটা প্রোডাকশনকেই আন্তর্জাতিক মানে নিয়ে যেতে চাইছেন তিনি। যাতে শুধুমাত্র বাংলার দর্শক নন, জাতীয় বা আন্তর্জাতিক দর্শকের সঙ্গেও তিনি একইভাবে কানেক্ট করতে পারেন। তাহলে আপাতত সিনেমা কি ব্যাকফুটে? না! অভিনয় তিনি করবেন। তবে বেছে বেছে। বেশ কিছু প্রজেক্ট নিয়ে কথা চলছে। কিন্তু এখনও কোনওটাই ফাইনাল হয়নি বলে জানিয়েছেন। অরিন্দম শীল মিমিকে নিয়ে 'খেলা যখন' ছবিটি শুরু করতে চান। আগেই  জানিয়েছিলেন পরিচালক। সেই ছবির কাজ আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই শুরু হবে বলে খবর।

ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয়ের আপত্তির কারণ হিসেবে প্রকাশ্যে মিমি তাঁর রাজনৈতিক কেরিয়ারের কথা বলেননি ঠিকই। কিন্তু ইন্ডাস্ট্রির একটা বড় অংশ মনে করছেন, রাজনৈতিক কেরিয়ারই এর অন্যতম কারণ। বহু মানুষকে নিয়ে এখন কাজ করেন তিনি। ফলে পর্দার ইমেজ কিছুটা বাস্তব জীবনেও পড়ে। সে কারণেই অনস্ক্রিন এমন কোনও ইমেজ তিনি তৈরি করতে চান না, যা তাঁর রাজনৈতিক কেরিয়ারকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। সদ্য তিনি নির্বাচনে জিতেছেন। তৃণমূল সুপ্রিমো অর্থাৎ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়ের গুডবুকে রয়েছেন তিনি। ফলে সেই আস্থা, ভরসা বা বিশ্বাসের জায়গাটা কোনও ভাবেই তাঁর ফিল্মি ইমেজ দিয়ে যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেদিকে লক্ষ্য রাখতে গিয়েই এই সিদ্ধান্ত বলে মনে করছেন অনেকে। যদিও প্রকাশ্যে মিমি এ কথা স্বীকার করেননি একেবারেই। তবে রাজনৈতিক কেরিয়ারই এখন তাঁর প্রায়োরিটি কিনা, প্রশ্ন উঠছে তা নিয়েও। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...