নতুন খবর: এবার ডেট করছেন মৌনী রায় এবং পরিচালক অয়ন মুখোপাধ্যায়!

নতুন খবর: এবার ডেট করছেন মৌনী রায় এবং পরিচালক অয়ন মুখোপাধ্যায়!

খবরটা কিন্তু জম্পেশ! ভারতীয় টেলিভিশনের সার্টিফায়েড নাগিন, যিনি এর আগে স্বয়ং মহাদেবের কণ্ঠলগ্না হয়ে ঘুরে বেড়াতেন, এখন প্রেম (Dating) করছেন ব্রহ্মাস্ত্রের (Brahmastra) পরিচালকের সঙ্গে! অমন না বোঝার মতো মুখ করে তাকিয়ে থাকার কিচ্ছুটি নেই! আমরা মৌনী রায় (Mouni Roy) আর অয়ন মুখোপাধ্যায়ের (Ayan mukherjee) কথা বলছি। মৌনী, মানে হিন্দি টেলিভিশনের হিসহিসে সুন্দরী, যাঁকে দেখে নাকি সারা ভারতবাসী সাপকে আর ভয় পায় না, উল্টে ভালবাসে, তিনি নিজ ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে সম্প্রতি দুইখান ভারী প্রেমে গদগদ পোস্ট করেছেন, দুটিতেই তিনি এক্কেবারে লজ্জাবনত মুখে মিষ্টি করে ফোলা ঠোঁট নিয়ে হাসছেন আর অয়ন পুরো বাজপাখিটির মতো তাঁকে দু হাত দিয়ে জড়িয়ে ধরে আছেন! তা তো থাকবেনই, মৌনী তো ছোট্ট, মিষ্টি ঘুঘু পাখিটিই কিনা! আবার ওরকম করে তাকাচ্ছেন যে? ভাবছেন, আমরা খালি নিন্দেমন্দ করি? ঠিক আছে, আগে তো ছবি দেখে নিন, তারপরে না হয় বাকি গপ্পোটা বলছি জম্পেশ করে!  

ইনস্টাগ্রাম

অয়ন একটু গোমড়াথেরিয়াম মার্কা মুখ করে বসে থাকলেও, মৌনীর এক্সপ্রেশনখানা একবার লক্ষ করুন! পুরো বউভাতের পরের দিন হনিমুনের জন্য সুটকেস গোছানো টাইপের হয়েছে কিনা! 

ইনস্টাগ্রাম

মজার ব্যাপার হল, এই ছবিগুলি প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই মৌনী এক্কেবারে মৌনীবিবিটি হয়ে গিয়েছেন! মানে, নিজের সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট তিনি প্রাইভেট করে দিয়েছেন! তা ভাল, নতুন প্রেম গোড়ার দিকে একটু গোপন থাকাটাই ভাল! তাঁর জন্য প্রেম ব্যাপারটা নতুন না হলেও, এই প্রেমিকপ্রবরটি তো নতুন!

যাঁরা জানেন না এবং নিয়মিত আমাদের গসিপ কলাম ফলো করেন না, তাঁদের জন্য একটু আগের গল্প বলে দেওয়া যাক। মৌনী আদতে শিলিগুড়ির মেয়ে। তিনি বরাবরই পড়াশোনায় ভাল ছিলেন, ক্লাস টেন পাশ করার পর দিল্লির খ্যাতনামা মিরান্ডা হাউজে পড়তে যান তিনি। তারপর সেখানকারই জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া ইউনিভার্সিটিতে যখন মাস কমিউনিকেশন নিয়ে পড়াশোনা করছেন, তখন একতা কপূরের দলবল তাঁদের ক্যাম্পাসে অডিশন নিতে আসে এবং তিনি সিলেক্টেড হন কিঁউ কী সাস ভি কভি বহু থি-র জন্য, কৃষ্ণ তুলসী হিসেবে।

তারপর আরব সাগর দিয়ে অনেক ঢেউ বয়ে গিয়েছে! মৌনী প্রথমে গৌরব চোপড়া, তারপর মোহিত রায়নাও ঘুরে নিয়েছেন! মজার ব্যাপার হল, এঁরা আবার কেউই বুক ফুলিয়ে স্বীকার করেন না যে, এঁরা প্রেম করছেন! এঁরা তো বরাবরই জাস্ট গুড ফ্রেন্ডস থাকেন! এই যেমন ধরুন না, গৌরব চোপড়া! ইনি ছিলেন মৌনীর বে-এ-স্ট ফ্রেন্ড নারায়ণী শাস্ত্রীর অনেকদিনের পুরনো বয়ফ্রেন্ড। হঠাৎ করে কী যে হল, মৌনী বন্ধুর বয়ফ্রেন্ডকে নিয়ে জাস্ট গুড ফ্রেন্ড করে ফেললেন! তারপর তো রিয়্যালিটি শো, নাচের শো, হ্যান শো, ত্যান শো করে শেষে লোকে যখন ধরেই নিয়েছে যে, মৌনী এবার রায় থেকে চোপড়া হলেন বলে, ঠিক তখনই মহাদেব আবির্ভূত হলেন! মহাদেব, মানে মোহিত রায়না। এঁর সঙ্গেও মৌনী জাস্ট গুড ফ্রেন্ডস হয়ে গেলেন আবার! তারপর সেই বার্থ ডে পার্টি, নিউ ইয়ার পার্টি, বন্ধুদের পার্টি, চ্যানেলের পার্টি, অ্যাওয়ার্ড ফাংশনের পার্টি...দুজনের ভক্তরাই নিশ্চিন্ত হলেন, যাক বাবা, মহাদেব-পার্বতী বাস্তবেও এক হয়ে গেলেন তা হলে...ব্যস, অমনই ছন্দপতন! এবার এন্টার ব্রহ্মাস্ত্র! মানে, অয়ন মুখোপাধ্যায়!

এসব আগের কথা বললে মৌনী নিশ্চয়ই এখন স্বীকার করবেন না। কিন্তু ছবি তো অনেক কথাই বলে! তাই আসুন, দেখে নিই মৌনীর সেরকমই কিছু ওল্ড ইজ গোল্ড মার্কা ছবি!    

 

আশা করি, আমরা নিজেদের বক্তব্যের স্বপক্ষে যথেষ্ট যুক্তি রাখতে পেরেছি! 

এবার আসি অয়ন মুখোপাধ্যায়ের কথায়। এঁর মনের সাদা শ্লেটে এখনও কেউ দাগ কাটতে পেরেছে কিনা, তা সঠিক করে কেউ বলতে পারে না। তবে এঁরও এককালে গুড ফ্রেন্ড ছিল, তিনি প্রযোজক মনমোহন শেট্টির নাতনি। এঁকে নিয়েই অয়ন তখন প্রিমিয়ার থেকে শুটিং, সর্বত্র যেতেন! যাই হোক, অয়ন কোনও সোশ্যাল মিডিয়াতেই কখনও বিশেষ অ্যাক্টিভ নন, কাজেই তাঁর অ্যাকাউন্টে কখনও কিছু পোস্টও করা হয়নি। 

তবে আমরা কিন্তু এই অল বাঙালি জুটি পেয়ে ভারী খুশি। আপনারা অনেক দিন ধরে জাস্ট গুড ফ্রেন্ডস হয়ে থাকুন আর তারপর হাতে হাত রেখেই এগোন, এই কামনাই করি!

 

 

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও! 

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!