রিসেপশনের দিনও ইসকনের রথযাত্রায় নববধূর সাজে স্বামীকে পাশে নিয়ে হাজির নুসরত!

রিসেপশনের দিনও ইসকনের রথযাত্রায় নববধূর সাজে স্বামীকে পাশে নিয়ে হাজির নুসরত!

একেই বলে ডেডিকেশন। আপনিই বলুন তো, নুসরত জাহান রুহি জৈনের জায়গায় আর পাঁচজন বাঙালি কনে হলে কী করতেন? আপনাকে যদি বলা হত, যান তো, বউভাতের দিন সকালে টুক করে একবার পাশের পাড়ার বুড়োশিবতলায় একটা পুজো দিয়ে আসুন তো? আপনি মোট্টেও যেতেন না! ওমা, নতুন বউ আবার তখন পাড়া বেড়াতে বেরবেন কী! আর এদিকে দেখুন আমাদের নুসরতকে! সেই যে তুরস্ক থেকে বিয়ে করে ফিরেছেন, একদণ্ডও বসার সময় পাচ্ছেন না। সমানে হাট্টিমাটিম টিমের মতো চরকিপাক খেয়েই চলেছেন! এই সংসদে গিয়ে শপথ নিচ্ছেন, বক্তব্য পেশ করছেন, গুচ্ছ-গুচ্ছ চ্যানেলের আবদার মেটাচ্ছেন হাসিমুখে, তো ওই ফোটোশুট করছেন, স্বামীর (husband) জন্য ডাল রাঁধছেন, সন্দেশখালিতে গন্ডগোলের খবর পেয়ে রাত-বিরেতে সেখানে দৌড়চ্ছেন! একেই বলে ঘরে-বাইরে সমান তালে, বুঝলেন? আমি-আপনি শুধু ছবি দেখে আর মন্তব্য করেই খালাস!

তা এবার কী করেছেন তিনি? আজ যেখানে মুখে ফেস প্যাক, শাসা-টসা লাগিয়ে বাড়িতে আরাম করবেন, রাতে পার্টিতে যাতে আরও চোখধাঁধানো লাগে তাঁকে, তা নয়, তিনি সক্কাল-সক্কাল হাজির হলেন অ্যালবার্ট রোডে, ইসকনের (ISKCON) আমন্ত্রণে, তাঁদের রথযাত্রা (Rathyatra) উৎসবের প্রধান অতিথি হতে!

জি নিউজ
আজ রিসেপশন উপলক্ষে উপহার পাওয়া বিশেষ কেক

আপনি ভাবছেন, এতে আবার এত বড় করে খবর করার কী আছে! এরকম আমন্ত্রণ তো অনেকের কাছেই পৌঁছয়, তাঁরা তা রক্ষাও করে থাকেন, তাতে আশ্চর্য হওয়ার আছেটাই বা কী! আছে, আছে, অনেক কিছুই আছে। নুসরতের পুরো নামটা আরও একবার বলছি আপনাদের জন্য, তা হলেই বুঝতে পারবেন! বিয়ের পর নুসরত হয়েছেন নুসরত জাহান রুহি জৈন! তিনি তাঁর শ্বশুরবাড়ির নিয়মমতো হাতে NJ লেখা চূড়া পরছেন, সিঁথিতে সিঁদুর, গলায় মঙ্গলসূত্রও পরছেন। মানে, একটি লক্ষ্মীমন্ত পঞ্জাবি বাড়ির নতুন বউ হিসেবে তাঁর যা-যা করণীয়, নিষ্ঠাভরে সবই করছেন। আর এতেই বিলক্ষণ চটে গিয়েছেন অনেকে! অনেকে মানে, নেটিজেনরা, যাঁদের জীবনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হল অন্যরা কী করছেন তা নিয়ে সমালোচনা করা, তাঁরা খেপে গিয়ে যা-তা মন্তব্য করতে শুরু করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়! তা করতেই পারেন, তাতে পয়সা লাগে না, একটু সময় খরচ হয় মাত্র আর এই সময় বস্তুটি তাঁদের জন্য একটুও দামি নয়! 

তা কী বলেছিলেন তাঁরা? তাঁদের বক্তব্য হল, কী করে মুসলমান হয়েও সিঁদুর পরেন নুসরত (Nusrat), হিন্দুধর্মমতে বিয়ে করেন, আবার রথের দড়ি টানার আমন্ত্রণ পেলে তা রক্ষা করতেও যান...বে-এ-শ করেন। নুসরত স্বাধীন ভারতের একজন ধর্মনিরপেক্ষ নাগরিক, তাঁর যেখানে খুশি সেখানে যাবেন! গিয়েছেনও। আজই সকালবেলা স্বামীকে সঙ্গে করে লাল পাড়-হলুদ শাড়িতে পরিপাটি সেজে অ্যালবার্ট রোডে ইসকনের মন্দিরে তাঁদের রথযাত্রা উৎসবে সামিল হয়ে নুসরত জাহান রুহি জৈন বুঝিয়ে দিয়েছেন যে, তিনি প্রকৃতই ধর্মনিরপেক্ষতায় বিশ্বাসী। সেখানে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিনেতা সোহমও। কিন্তু তাঁদের উপস্থিতিকে কার্যত ম্লান করে দিয়েছিলেন নুসরত! তাঁকে দেখে হামলে পড়ে উপস্থিত মিডিয়া ও ভক্তবৃন্দ! পরে মিডিয়ার সামনে কথা বলার সময় নুসরত স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন যে, তিনি মোটেও ইসলাম ত্যাগ করেননি এবং তিনি সব ধর্মে সমান বিশ্বাস করেন ও তার সম্মান করতেও জানেন। আর তিনি কখন কী পরবেন না পরবেন, সেটা একান্তই তাঁর ব্যক্তিগত ব্যাপার। তা নিয়ে কথা বলার অধিকার তিনি আর কাউকে দেননি! 

হক কথা, কি বলেন আপনারা?

মূল ছবি সৌজন্য: ইনস্টাগ্রাম

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!