ফের শুটিংয়ে ফিরলেন নুসরত জাহান রুহি জৈন, কীভাবে সামলাচ্ছেন সংসার ও কেরিয়ার?

ফের শুটিংয়ে ফিরলেন নুসরত জাহান রুহি জৈন, কীভাবে সামলাচ্ছেন সংসার ও কেরিয়ার?

লাইট, ক্য়ামেরা, অ্যাকশন - এই তিনটে শব্দের সঙ্গেই তো তাঁর সবচেয়ে বেশি বন্ধুত্ব। হ্যাঁ, এখন আরও নানা বিষয়ে তিনি ব্যস্ত বটে। আরও নানা কাজে সময় দিতে হচ্ছে। কিন্তু সেই পুরনো বন্ধুত্বের কাছে তো তাঁকে ফিরতেই হত। তিনি, অর্থাৎ নুসরত জাহান। বিয়ের পর ফের ফিরলেন শুটিংয়ে (Shooting)। 

বিয়ের পর প্রথম শুটিং ফ্লোরে ফিরলেন নুসরত (Nusrat)। ফিরলেন পরিচালক পাভেলের হাত ধরে। ইন্ডাস্ট্রি সূত্রে খবর, ছবির (Cinema) নাম 'অসুর'। নুসরতের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করবেন জিৎ এবং আবীর চট্টোপাধ্যায়। চলতি সপ্তাহে কলকাতার এক হোটেলে এবং নন্দন চত্বরে শুটিং করেন নায়িকা। সবার শেষে নাকি সেট থেকে বেরচ্ছেন তিনি। শিল্পী রামকিঙ্কর বেজকে শ্রদ্ধা জানাতেই পরিচালক এই চিত্রনাট্য সাজিয়েছেন বলে শোনা গিয়েছে। 

এখনও পর্যন্ত এ ছবির কোনও চরিত্রের লুকই প্রকাশ হয়নি। তবে নুসরত আদ্যন্ত বাঙালি মেয়ের চরিত্রেই দেখা যাবে বলে খবর। বিয়ের পর শুটিং সেটে কামব্যাক করে বেজায় খুশি নায়িকা। সহ অভিনেতারা তো বটেই গোটা ইউনিটই নাকি খুব প্যাম্পার করছে নায়িকাকে। অন্যদিকে সকলের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ ব্যবহার বজায় রাখতেও কোনও ত্রুটি রাখছেন না নুসরত। 

১৫ অগস্ট শুটিং ছিল না নায়িকার। একইসঙ্গে স্বাধীনতা দিবস এবং রাখি সেলিব্রেট করেছেন তিনি। প্রথমেই সোশ্যাল ওয়ালে স্বাধীনতা দিবসের মেসেজ দেন। তার পর বাড়িতে শাশুড়ি তাঁর এবং নিখিলের হাতে রাখি পরিয়ে দেন। উপস্থিত ছিলেন অন্যান্য আত্মীয়রাও। পরে তাঁর নির্বাচন কেন্দ্র বসিরহাটে গিয়ে ফুটবলার দীপেন্দু বিশ্বাসের হাতেও রাখি পরিয়ে দেন নায়িকা। ফুটবলেও শট নিতে দেখা গিয়েছে তাঁকে।

টলিউড অভিনেত্রী। এটাই ছিল নুসরতের প্রথম পরিচয়। মূলত বাণিজ্যিক ছবিতেই তাঁকে নায়িকা হিসেবে দেখেছেন দর্শক। রোম্যান্স, নাচ, গান মিলিয়ে জমজমাট এন্টারটেনমেন্ট উপহার দিতে দক্ষ তিনি। বিভিন্ন সময় তাঁর অভিনীত ছবি বক্স অফিসেও অন্যদের তুলনায় এগিয়ে থেকেছে। এক পথে চলছিল জীবন। হঠাৎই রাজনীতির ময়দানে কোমর বেঁধে নেমে পড়বেন, এ আন্দাজ হয়তো অনেকেরই ছিল না।

তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বরাবরই সুসম্পর্ক ছিল নুসরতের। তার জেরেই গত লোকসভা নির্বাচনে বসিরহাট থেকে তৃণমূলের টিকিটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন তিনি। বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে লোকসভায় যাওয়ার ছাড়পত্র পান। এখন তিনি নির্বাচিত সাংসদ। নির্বাচনী প্রচারেও এক অন্য নুসরতকে দেখেছে ইন্ডাস্ট্রি। সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিশে গিয়েছিলেন অনেকটাই। তার পরই জীবনের আরও একটা ইনিংস শুরু করেন নুসরত।

পেশায় ব্যবসায়ী নিখিল জৈনকে বিয়ে (wedding) করেন নায়িকা। তুরস্কের বোদরুমে বিয়ের রাজকীয় অনুষ্ঠান হয়। তাঁর হাত ধরেই প্রথম ডেস্টিনেশন ওয়েডিং দেখল টলিউড। মেহেন্দি, সঙ্গীত, হোয়াইট ওয়েডিং সহ একগুচ্ছ অনুষ্ঠান হয়। ঘনিষ্ঠ আত্মীয় এবং বন্ধুরা উপস্থিত ছিলেন সেই অনুষ্ঠানে। টলিউড থেকে একমাত্র হাজির ছিলেন নুসরতের বেস্ট বাডি মিমি চক্রবর্তী। কলকাতায় ফিরে ফিল্ম এবং রাজনীতির সতীর্থদের নিয়ে গ্র্যান্ড রিসেপশনের আয়োজন করেছিলেন তিনি। 

এসব ব্যস্ততার মধ্যে ফিল্মি কেরিয়ার কিছুটা ব্যাকফুটে ছিল। কিন্তু বিয়ে বা রাজনীতির জন্য কখনও সিনেমা থেকে দূরে সরে যাওয়ার কথা বলেননি তিনি। সময় এসেছে। ফের শুটিং ফ্লোরে ফিরেছেন নায়িকা। আফটার অল, সব দিক সমান দক্ষতায় ব্যালেন্স করতে জানেন নুসরত জাহান। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!