শপথগ্রহণের পর নাকি মেজাজ হারিয়েছিলেন মিমি ও নুসরত! সত্যিই কি তাই?

শপথগ্রহণের পর নাকি মেজাজ হারিয়েছিলেন মিমি ও নুসরত! সত্যিই কি তাই?

মিমি চক্রবর্তী (Mimi Chakraborty) আর নুসরত জাহান (Nusrat Jahan) – সারাক্ষণ খবরে থাকবেনই থাকবেন! সেই যেদিন থেকে রাজনীতিতে এসেছেন, সেদিন থেকে তাঁদের নিয়ে ছড়িয়েছে নানা বিতর্ক, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে নানা ট্রোল। মিমি আর নুসরতের টিকটক ভিডিও নিয়ে যেমন মজা করা হয়েছে, তেমনই নুসরতের সংখ্যাতত্বের জ্ঞান নিয়েও তাঁকে কম ট্রোলের মুখোমুখি হতে হয়নি! বিতর্কে জড়িয়েছেন মিমিও, কেন, না তিনি নির্বাচনী প্রচার করতে বেরিয়েছিলেন রিক্সা চেপে। তা ভাল কথা, রিক্সা চেপে বেরিয়েছেন, কিন্তু রিক্সার সিটে তোয়ালে পেতে কেন বসলেন তা নিয়েই ফেসবুকে নানা পোস্ট! নির্বাচন হওয়ার আগেই যখন এরকম অবস্থা, তাহলে নির্বাচনে যদি মিমি জেতেন তা হলে তাঁর এলাকার বাসিন্দাদের কী অবস্থা হবে সেটা ভেবেই অনেকে আবার অবাক হয়েছিলেন। তাতেও শান্ত হননি প্রার্থী, এই বিতর্ককে আবার উস্কে দিয়েছিল মিমির আরও একটি ‘ভুল’ পদক্ষেপ! নির্বাচনী প্রচারে বেরিয়ে জনগনের সঙ্গে হ্যান্ডশেক করছিলেন তিনি কিন্তু হাতে পরা ছিল গ্লাভস, যেন সাধারণ মানুষের হাত তাঁর হাতে লাগলে মিমির হাতে নোংরা লেগে যাবে! ও বাবা সে আবার কি গো? যারা তোমাকে ভোট দিয়ে ক্ষমতায় আনবে, তাঁদের সঙ্গেই এমন অচ্ছুৎ আচরণ?

যাই হোক, ‘ঠাকুরের’ কৃপায় (কী জানি কার কৃপায়) টলিউডের দুই অভিনেত্রীই ভোটে জিতেছেন এবং নিজেদের নেত্রী-জীবন শুরু করতে যাবেনই, এমন সময়ে একজনের মনে একটু বিয়েটা টুক করে সেরে ফেলি! ফট করে একটা ছবি ছেড়ে দিলেন ইনস্টাগ্রামে! বেশ গদ্গদ ভাবে এনগেজমেন্ট রিং পরে ছবি দিলেন নুসরত আর কদিনের মধ্যেই নিয়ে করবেন ঘোষণাও করে ফেললেন! হ্যাঁ, নায়িকা বলে কি মানুষ নন? একটু সংসারধর্ম করতে কি মনে সাধ জাগে না? কিন্তু তাই বলে পার্লামেন্টে শপথগ্রহণ না করেই???

 

 

ইনস্টাগ্রাম

দেশে বিয়ে না করে তুরস্কে পাড়ি দিলেন নুসরত এবং তাঁর স্বামী নিখিল জৈন বিয়ের জন্য, সঙ্গে গেলেন প্রিয় বন্ধু মিমিও। সে’সব ছবি তো আমরা আপনাদের দেখিয়েছি। বেশ ভালই দেখতে লাগছিল নুসরতকে বধূবেশে। গত রবিবার নিখিল আর নুসরত কলকাতায় ফিরেছেন তুরস্ক থেকে। সঙ্গে ফিরেছেন মিমিও। আর ফিরেই কিন্তু দায়িত্বশীল সাংসদের মতো চটপট চলে গিয়েছেন শপথ নিতে। যাই হোক, দেরি করে হলেও অবশেষে সব কাজ সেরে এই কাজটা করার সময় পেয়েছেন দুই নায়িকা!

কিন্তু গোল বেঁধেছে অন্য জায়গায়! সংসদে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের পর দুজনে যখন বাইরে এসেছেন, সাংবাদিকেরা তাঁদের নানা প্রশ্ন করছিলেন। তাঁরাও বেশ সহযোগিতা করেছিলেন প্রথমদিকে সাংবাদিকদের সঙ্গে কিন্তু ভিড়ের মধ্যে একজনের সঙ্গে ধাক্কা লেগে যায় মিমির। ব্যস! আর যায় কোথায়? ধৈর্য হারান মিমি এবং নুসরত দু’জনেই। রেগে গিয়েই নুসরত বলেন যে এভাবে কেউ কাউকে ধাক্কা দিতে পারেন না এবং তারপর তাঁরা সেখান থেকে নিজের গাড়িতে বেরিয়ে যান।

সাধারণ মানুষের সঙ্গে এতটা দুরত্ব বজায় রেখে চললে তাঁদের সমস্যা বুঝবেন কীভাবে আর তা সমাধানই বা করবেন কীভাবে এই দুই সাংসদ, সেটাই এখন দেখার বিষয়!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!