সব ধর্ম সমান, তাই ISKCON-এর রথযাত্রায় সামিল হবেন নুসরত জাহান রুহি জৈন

সব ধর্ম সমান, তাই ISKCON-এর রথযাত্রায় সামিল হবেন নুসরত জাহান রুহি জৈন

কিছুদিন আগেই ‘আমার ধর্ম বিপন্ন’ বলে যথেষ্ট শোরগোল ফেলে দিয়েছেন দঙ্গল কন্যা জায়রা ওয়াসিম। সেই তরজা এখনও চলছে। তার মধ্যেই রথযাত্রা উপলক্ষে নুসরত জাহানকে (Nusrat Jahan) বিশেষ আমন্ত্রণবার্তা (invitation) পাঠিয়ে ইস্কন (ISKCON) প্রমাণ করে দিল সব ধর্মই সমান এবং ধর্মের চেয়ে বড় হল মানবিকতা। বলাই বাহুল্য নুসরত (Nusrat Jahan) নিজেও বারবার সেটাই বলতে চেয়েছেন। তিনি বলেছেন তিনি একজন ভারতীয় আর এটাই তাঁর সবচেয়ে বড় পরিচয়। তিনি হিন্দু না মুসলমান, এই বিষয়ে তর্ক করা বৃথা। ইস্কনের এই আমন্ত্রণ খুশি মনেই গ্রহণ করেছেন নায়িকা। শুধু তাই নয়, তিনি কাল ৪৮ তম রথযাত্রা (Rathyatra) উপলক্ষ্যে পার্ক স্ট্রিট ময়দানে উপস্থিত থাকবেন বলে একটা ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তার সঙ্গে-সঙ্গে ইস্কনকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন তিনি। 

কিছুদিন আগে নুসরত জাহান রুহি থেকে মিসেস নুসরত জাহান রুহ জৈন হয়েছেন নায়িকা। সংসদে শপথও নিয়েছেন এই নামেই! সংসদে তাঁর সিঁদুর ও চূড়া পরা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠছে। মুসলমান হয়েও কেন তিনি সিঁদুর পরেছেন এই প্রশ্ন তাঁকে কড়া হয়েছে। আর সেই জন্য একটি কট্টরপন্থী সংগঠন তাঁর নামে ফতোয়াও জারি করেছে। তবে একটা কথা মানতেই হবে এত ট্রোল হওয়ার পরেও এবং এসব অস্বস্তিকর প্রশ্নের সম্মুখীন হওয়া সত্ত্বেও নুসরত বিষয়টি খুব ঠান্ডা মাথায় সামলেছেন। হয়তো বিষয়টি একটু স্পর্শকাতর বলেই এই ধৈর্যটুকু তাঁর কাছ থেকে আমাদের প্রাপ্য ছিল। তাঁর সিঁদুর পরার অধিকার আছে না নেই, সেই বিতর্কিত প্রশ্নে না গিয়ে নুসরত সংসদে তাঁর মতামত জানিয়ে বলেছেন যে, তিনি ঐক্যবদ্ধ ভারতের নাগরিক আর ভারতীয় হওয়াটাই তাঁর প্রথম পরিচয়। প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য যে, এর আগে গায়ে হলুদের সময়ও একইভাবে ট্রোল করা হয় তাঁকে। মুসলমান হয়ে কেন তিনি হিন্দু বিয়ের আচার অনুষ্ঠান করছেন, তা সোশ্যাল মিডিয়ায় জানতে চান অনেকেই। তবে সেই সব প্রশ্নের কোনও উত্তর দেননি তিনি। 

আগামীকাল ৪ জুলাই নুসরতের কলকাতার রিসেপশন পার্টি আছে। তা স্বত্তেও তিনি ইস্কনের তরফ থেকে এই আমন্ত্রণবার্তা গ্রহণ করেছেন। ইস্কনের তরফ থেকে রাধারমণ দাস টুইট করে জানিয়েছেন যে রথযাত্রা সবার উৎসব। ইস্কন বরাবরই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করে এসেছে। মহাপ্রভু জগন্নাথের রথ থেকে পোশাক সবটাই তৈরি করতে হাত লাগান সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ভাইবোনেরা। এই রথযাত্রায় কেউই ব্রাত্য নয় বলেই জানিয়েছেন তিনি।

সন্দেশখালিতে যখন তুমুল সমস্যা হচ্ছে, তখন নুসরত তুরস্কের বোদরুমে নিজের বিয়ে সম্পন্ন করছিলেন। এই নিয়েও অনেকে সরব হয়েছিলেন। কাল মধ্যরাতে ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজে গিয়ে এক আহত বধূর সঙ্গে দেখা করেন তিনি। প্রশ্নের উত্তরে পাল্টা প্রশ্ন নয়, বরং কাজে করে দেখানোয় বিশ্বাসী তিনি। নুসরত জাহান রুহি জৈন যে রাজনীতির লম্বা রেসের ঘোড়া, এটা নিয়ে কোনও সংশয় নেই। 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!