দ্বিতীয় ইনিংস শুরু নুসরতের, সঙ্গী জিৎ ও আবির, গল্প বিখ্যাত ভাস্কর রামকিঙ্কর বেজকে নিয়ে

দ্বিতীয় ইনিংস শুরু নুসরতের, সঙ্গী জিৎ ও আবির, গল্প বিখ্যাত ভাস্কর রামকিঙ্কর বেজকে নিয়ে

যাক বাবা, এতদিনে তা হলে নুসরত-ভক্তদের অপেক্ষা শেষ হল! নির্বাচনের ধকল সামলে, ডেস্টিনেশন ওয়েডিংয়ের হ্যাপা পুইয়ে, মিডিয়ার ভালবাসা ও আদিখ্য়েতার বহর দেখে মুখ টিপে হেসে অবশেষে অভিনেত্রী নুসরত আবার ফিরছেন রুপোলি পর্দায়, তা-ও আবার তাঁর জীবনের প্রথম নায়ক জিতের সঙ্গে! এবার তাঁর সঙ্গী হতে চলেছেন আবির চট্টোপাধ্যায়ও (Abir Chatterjee)। অন্তত সেরকমটাই বাজারে খবর। যদিও এঁদের তিনজনের কেউই এখনও এই বিষয়ে সরাসরি মুখ খোলেননি, কিন্তু হবু ছবিটির পরিচালক আহ্লাদে আটখানা হয়ে মিডিয়ায় ইয়া ব্বড় সাক্ষাৎকার দিয়ে এক্কেবারে একাক্কার কাণ্ড করেছেন! তা করবেনই বাপু, এটা কি কম বড় খবর! এমনিতেই তো নুসরত এখন যা করছেন, সেটাই খবর হয়ে যাচ্ছে! তার উপর ২১ জুলাই, তৃণমূল কংগ্রেসের শহিদ দিবসের আগে এমন খবর সামনে আসা মানে হটকেকের মতো তা বিকোবে এবং বিকোচ্ছেও! এই দেখুন না, আমরাও আপনাদের এই ব্যাপারে সব তথ্য জানাতে চলে এসেছি এই ভরা রবিবারের সকালে!

তা নুসরত (Nusrat) অবশ্য কোথাও বলেননি যে, বিয়ের পর বা জনপ্রতিনিধি হওয়ার পর তিনি তাঁর আসল প্রেম অভিনয়কে বাক্সবন্দি করে ফেলবেন। আর করবেনটাই বা কেন? কই দেব, যিনি পুরনো সাংসদ, তাঁকে তো কেউ এই প্রশ্ন করেছেন না! তিনি তো শুনেছি কাজের চাপে ঘাটালে যাওয়ারই সুযোগ পান না! পুনঃনির্বাচিত হওয়ার পরেই কোনওমতে দিল্লি গিয়ে, বান্ধবীকে পাশে নিয়ে ছবি তুলে, বিদেশ ভ্রমণ করে এসেই তিনি আবার নিজের হোম প্রোডাকশনের কাজ নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন! তাঁর বেলায় তো কেউ বলে না যে, ও দেব দা, ঘাটাল নিয়েই থাকুন না এট্টু! শুধু দোষ মেয়েদের সময়! ভারী ইয়ে কিন্তু! যাক গে, নুসরত খুব শিগগিরই ফ্লোরে নামতে চলেছেন আবার। জিতের সঙ্গে বসে চিত্রনাট্যের প্রাথমিক খসড়া নাকি শুনেও ফেলেছেন তিনি। যদিও এই ব্যাপারে পরিচালক ছাড়া কেউই কিছু বলেননি এখনও।

তবে সবচেয়ে বড় চমক থাকছে ছবির গল্পে। এটি গতানুগতিক ধাঁচের, মানে, ওই যাকে কমার্শিয়াল মেনস্ট্রিম ছবি বলে, সেই রকম বাংলা ছবির গল্প নয়। ছবিটির গল্প এগোবে বিখ্যাত ভাস্কর রামকিঙ্কর বেজকে (Ramkinkar Beige) নিয়ে! ইনি চরিত্র হিসেবেই বিতর্কিত। স্বয়ং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্নেহধন্য, আর্টিস্ট নন্দলাল বসুর শিক্ষকতার ছায়ায় ভরা রামকিঙ্করের ছাত্রজীবন। কিন্তু জাতে সাঁওতাল এই খামখেয়ালি ভাস্কর কোনওদিনই প্রথাগত পথে এগোননি। তাঁর কাজ যত প্রশংসিত হয়েছে, ততই নিন্দিত হয়েছে তাঁর ব্যক্তিগত জীবন! এহেন ব্যক্তিত্বকে বড় পর্দায় ধরাটা বেশ কষ্টসাপেক্ষ ব্যাপার। আশা করা যায়, পরিচালক পাভেল, যিনি এর আগে রসগোল্লা কিংবা বাবার নাম-এর মতো ছবি পরিচালনা করেছেন, তিনি ভেবেচিন্তেই বিষয়বস্তু ও কাস্টিং করেছেন। "আমার ছবির গল্পের মূল চরিত্র রামকিঙ্কর, কিন্তু এটি সরাসরি তাঁর বায়োপিক নয়। বরং তিনটি সমকালীন চরিত্র কীভাবে রামকিঙ্কর বেজকে আবিষ্কার করে নিজেদের জীবনের মাধ্যমে, সেটিই গল্পের বিষয়বস্তু। ছবির নাম ঠিক করেছি অসুর (Asur)," জানিয়েছেন পাভেল, একটি সাক্ষাৎকারে।তাঁর চরিত্র নির্বাচন অনেকেরই ভুরু কুঁচকে দিয়েছে। কিগান (জিৎ), বোধি (আবির চট্টোপাধ্যায়) ও অদিতি (নুসরত) তিনজনে সেই স্কুল লাইফের বন্ধু। কিগান-আদিতি পড়াশোনা করত আর্ট নিয়ে আর বোধি ইংরেজি সাহিত্য নিয়ে। পরে বিভিন্ন ঘটনায় তাদের তিনজনের জীবন আর রামকিঙ্কর কোথাও যেন এক হয়ে যান!

পাভেল মনে করেন, নুসরতের অভিনয়ক্ষমতাকে এখনও ঠিক করে ব্যবহারই করতে পারেননি কোনও পরিচালক! একই কথা সত্যি জিতের (Jeet) জন্যও। দুজনেই নাকি এই ছবিতে সকলকে চমকে দেবেন। ছবিতে সঙ্গীত পরিচালনার দায়িত্বে থাকছেন নচিকেতা ও অমিত-ঈশান, শিল্প নির্দেশনায় আনন্দ আঢ্য। কিছুদিনের মধ্যেই শুটিং শুরু হবে ছবিটির আর সবকিছু ঠিকঠাক চললে এবছরের শেষেই মুক্তি পাবে বিয়ের পরে নুসরতের প্রথম ছবি!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!