সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের বায়োপিকে অভিনয়ের জন্য আজগুবি কাস্টিং করে ট্রোলড পরিচালক পরমব্রত

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের বায়োপিকে অভিনয়ের জন্য আজগুবি কাস্টিং করে ট্রোলড পরিচালক পরমব্রত

যদি উপরওয়ালা সত্যিই থাকতেন, তা হলে এই দিন দেখতে হত না! নেহাত গোলোযোগ সইতে না পেরে তিনি নিদ্রা গিয়েছেন, তাই সেই সুযোগে নেপোয় দই মেরে দিচ্ছে আর পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় সৌমিত্রর বায়োপিক (Biopic) বানাচ্ছেন। তা বায়োপিক বানাচ্ছেন ভাল কথা, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের (Soumitra Chatterjee) জীবনে বলার মতো ঘটনা তো সাকুল্যে একখানা, সত্যজিৎ রায়! ওই ভদ্রলোকের সংস্পর্শে না এলে পুলুও অপু হত না, আর পরমব্রতও (Parambrata Chatterjee) বায়োপিক বানাতে পারতেন না! না, পরমব্রত বায়োপিক বানাচ্ছেন বলে রেগে গিয়ে তোম্বা হয়ে যায়নি সকলে। যাঁদের মাথায় তিলমাত্র বুদ্ধি-বিবেচনা মজুত আছে, যে বাঙালি এখনও রকে বসে রাজনীতি থেকে অর্থনীতি, জীবনবিজ্ঞান থেকে মহাকাশ বিজ্ঞান পর্যন্ত সবকিছু নিয়ে এক্সটেম্পো তর্ক চালিয়ে যেতে পারে, সেই বাঙালি পর্যন্ত এই বায়োপিকের কাস্টিং শুনে না রাম না গঙ্গা হয়ে ঘাবড়ে বসে আছে!

আরও আলোচনায় যাওয়ার আগে পরমবাবুর ছবির কাস্টিংটা শুনুন মন দিয়ে। নামভূমিকায় আছেন যিশু সেনগুপ্ত। তা ঠিক আছে, ভদ্রলোকের অভিনয়টা মন্দ নয়, ভাল হাতে পড়লে আর ঠিকঠাক ডাবিং করলে উতরে যাবেন। সুচিত্রা সেন সাজবেন পাওলি দাম! অবশ্যি তিনি আগেও ছোট পর্দায় সুচিত্রা সেজেছেন। পাওলির অভিনয়ের কথা বলছি না, কিন্তু মিসেস সেনের ওই চোখভোলানো-মনভরানো হাসি আর সৌন্দর্য তিনি পাবেন কোত্থেকে? এবার দু'-একটা খুচরো চরিত্রের কথা বলে নিই। বোমা মারব শেষ পাতে! মাধবী মুখোপাধ্যায় সাজবেন সোহিনী সরকার। পরিচালক দাঁতে-দাঁতে মিলিয়েছেন বোধ হয়! মাধবীরও গজদাঁত ছিল, সোহিনীরও! অবিশ্যি সে তো আমারও দুটো হাত আছে, গব্বর সিংয়েরও ছিল। এবার পরের কাস্টিং। রুদ্রনীল ঘোষকে দেখা যাবে রবি ঘোষের ভূমিকায়। এখানে বোধ হয় ঘোষ-ঘোষ মিলিয়েছেন! পরমবাবু, জানেন তো, রবি ঘোষ আসলে পালোয়ান ছিলেন? কমেডিয়ানের ভূমিকায় অভিনয় করতেন বটে, কিন্তু তাঁর সিক্স প্যাক অ্যাবস ছিল? জানেন তো?

আরও পড়ুন: ‘লাভ আজ কাল পরশু’র টিজারে সাহসী দৃশ্যে অর্জুন-মধুমিতা, ভ্যালেন্টাইনস্ ডে-তে মুক্তি

 

কৌশিক মুখোপাধ্যায়, কিউ (Instagram)

অবশ্য বিশ্বাস করুন, পরম ছেলেমানুষ, বিখ্যাত হওয়ার শখ হয়েছে, তাই এট্টু বাড়াবাড়ি করে ফেলেছেন, এসব ভেবে বাঙালি ক্ষমা করে দিত। কিন্তু বাধ সাধল ওই যে বোমা...কিউ বলে একজন কুরোসাওয়া-ঋত্বিক-রোসেলিনির কম্বিনেশন পরিচালক ছিলেন, মনে পড়ে? নিন্দুকে বলে, যাঁর ছবি দেখতে গেলে টিকিট চেকার পকেটে হেলথ ইনশিওরেন্স আছে কিনা দেখতে চাইত? কারণ, সেই শিল্প যদি প্রথম আধঘণ্টা বরদাস্ত করতে পারেন, তা হলে নাকি আপনার স্বর্গবাস অবধারিত, স্বয়ং দেবরাজ ইন্দ্র অমরাবতীর গেটে দাঁড়িয়ে থাকবেন আপনাকে রিসিভ করার জন্য...এখনও মনে পড়ছে না? তা হলে একটিবার, শুধু একটিবারের জন্য ইউ টিউবে 'গাণ্ডু' বলে সার্চ দিন। গালি দিচ্ছি না, কিউয়ের প্রতিভার সঙ্গে আপনার পরিচয় করাচ্ছি, ওটাই ওঁর কালজয়ী সিনেমার নাম! এই Q-এর অন্নপ্রাশনালব্ধ নাম কৌশিক, যদিও সেটা নিতান্তই গাঁইয়া বলে উনি নিজেই নিজের নতুন নামকরণ করেছিলেন এবং সেই নামেই সিনেমা বানাতেন! যাক গে, অ্যাদ্দিন সকলের কাছে অপশন ছিল, কিউয়ের ছবি দেখবেন নাকি দেখবেন না। এবাক আর রইল না। সৌজন্যে পরমব্রত! ইনি এই বায়োপিকে কিউকে সত্যজিৎ রায় সাজাচ্ছেন! 

এই পর্যন্ত পড়ার পরেও যদি আপনি বেঁচে থাকেন, তা হলে জানাই, এই কাস্টিংয়ের স্বপক্ষে পরমব্রত বড় গলা করে জানিয়েছেন যে, মানিকবাবু আর কিউয়ের মধ্যে নাকি অ-নে-ক মিল, তাই পরমব্রত তাঁকে এই চরিত্রে কাস্ট করে একটুও ভুল করেননি!

এর পর দরকার তিনটি জিনিসের। একটা প্ল্যানচেট, সেখানে প্রোফেসর শঙ্কুর উপস্থিতি এবং তাঁর কাছ থেকে অ্যানাইহিলিন পিস্তলটা। ব্যস, তা হলেই হবে...

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম...আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার এই বছরটা POPup করে ফেলুন!