করোনা আক্রান্তের গুজব, কেমন আছেন রচনা?

করোনা আক্রান্তের গুজব, কেমন আছেন রচনা?

গত চার-পাঁচ মাস ধরে আমাদের রুটিনের সঙ্গে জুড়ে গিয়েছে করোনা (corona)। এই ভাইরাসের কারণে অতিষ্ট জীবন। বহু ক্ষতি হচ্ছে সকলের। প্রতিদিন মৃত্যুভয় গ্রাস করছে। তবে এর মধ্যেই যেন করোনা আতঙ্ক সঙ্গে নিয়ে বাঁচতে শিখেছেন অধিকাংশ মানুষ।

ধীরে ধীরে শুরু হয়েছে অনেক কাজ। টলি পাড়ায় শুরু হয়েছে শুটিং। সমস্ত রকম সতর্কতা মেনেই চলছে শুটিং। ড্রইংরুমের সন্ধে যেন আবার প্রাণ ফিরে পেয়েছে। বাঙালির প্রিয় নন ফিকশন দিদি নম্বর ওয়ান-এর নতুন এপিসোডের টেলিকাস্ট শুরু হয়েছে বেশ কয়েকদিন। আবার চেনা ফর্মে ফিরেছেন রচনা (Rachana) বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু তিনি সুস্থ তো?

এই প্রশ্নের কেন্দ্রে রয়েছে ভাইরাল হয়ে যাওয়া একটি গুজব। দিন কয়েক আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় রচনাকে নিয়ে একটি গুজব ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে বলা হয়, রচনা নাকি গুরুতর অসুস্থ। করোনা আক্রান্ত। বন্ধ রয়েছে তাঁর যাবতীয় কাজ। এই রটনা যে গুজব তা স্পষ্ট করে দিলেন রচনা স্বয়ং। দিদি নম্বর ওয়ান-এর শুটিংয়ের ফাঁকে ফেসবুক লাইভে জানিয়ে দিলেন তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ রয়েছেন।

রচনা জানিয়েছেন, ইউটিউবে তাঁর সম্পর্কে একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে দাবি করা হয়, তিনি অসুস্থ। করোনা আক্রান্ত। কথার টানে বাংলাদেশী বলে মনে হয়েছে তাঁর। যদিও বাংলাদেশের মানুষকে তিনি খুব ভালবাসেন। বাংলাদেশের দর্শকেরও ভালবাসা রয়েছে তাঁর প্রতি। এই ধরনের মিথ্যে গুজব না ছড়াতে অনুরোধ করেছেন তিনি। কারণ তাঁর কাজ সাধারণ মানুষের সঙ্গে। দিদি নম্বর ওয়ান-এ আমজনতা প্রতিযোগী হিসেবে যোগ দেন। ফলে এ হেন গুজব ছড়িয়ে পড়লে সকলে আতঙ্কিত হয়ে পড়বেন। রচনার অনুরোধ, কোনও শিল্পীর সম্পর্কেই যাতে এই ধরনের গুজব না ছড়ানো হয়। 

 

রচনার কথায়, "আমি একেদম সুস্থ। ভীষণ ভাল আছি। চুটিয়ে শুটিং করছি। আমি কখনওই খারাপ থাকতে পারি না, কারণ এত মানুষের স্নেহ ভালবাসা পাই, ভাল থাকি সব সময়। ঈশ্বরের আশীর্বাদও রয়েছে আমার উপর, আমি ঠিক ভাল থাকব। আমি সবাইকে অনুরোধ করব কোনও মানুষের শরীর স্বাস্থ্য নিয়ে এরকম মিথ্যে খবর ছড়াবেন না! যে বা যাঁরা আমার শরীর খারাপের গুজব ছড়িয়েছেন, ঠিক করেননি।"

করোনা আতঙ্ক এখন আমাদের সকলকে গ্রাস করেছে। এই কারণে এ হেন গুজব মানুষকে আরও দিশেহারা করে তোলে। পাশাপাশি যিনি সুস্থ, তাঁকে নিয়ে এ হন রটনা তাঁর ও তাঁর পরিবারের জন্যও খুব খারাপ। এই পরিস্থিতিতে যে কোনও খবরের সত্যতা যাচাই করে নিন। সব খবর বিশ্বাসযোগ্য নয়। ফলে কোনটা বিশ্বাস করবেন, আর কোনটা করবেন না, তা যাচাই করে নিয়ে তবে সিদ্ধান্ত নিন। বিশেষত সেলেবদের সম্পর্কে নানা খবর তৈরি হয়। তার সবই যে বিশ্বাসযোগ্য, তা কিন্তু নয়। রচনার ঘটনা তা আরও একবার প্রমাণ করে দিল।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!