ছেলের নামে ভুয়ো প্রোফাইল করবেন না, সোশ্যাল মিডিয়ায় অনুরোধ করলেন রাজ

ছেলের নামে ভুয়ো প্রোফাইল করবেন না, সোশ্যাল মিডিয়ায় অনুরোধ করলেন রাজ

মাত্র তিনদিন বয়স তার। সে অর্থাৎ ইউভান। রাজ (Raj) চক্রবর্তী এবং শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়ের একমাত্র ছেলে। আর এর মধ্যেই সে কেড়ে নিয়েছে লাইমলাইট।

জন্মের আগে থেকেই ইউভান ছিল চর্চার কেন্দ্রে। না! তখন অবশ্য জানা ছিল না ইউভান আসছে। তবে তার মা-বাবাকে নিয়ে নিরন্তর চর্চা হয়েছে। ইউভান স্টার কিড। সে কতটা ফোকাসে রয়েছে, জন্মের পরই মিলল তার প্রমাণ।

মাত্র তিনদিনের মধ্য়ে তৈরি হল ইউভানের ফ্যান পেজ। এমনকি ভুয়ো প্রোফাইলও তৈরি হয়ে গেল সোশ্যাল মিডিয়ায়। তা নিয়ে এতটাই বাড়াবাড়ি শুরু হয়েছে, যে ইউভানের বাবা অর্থাৎ রাজ রীতিমতো পোস্ট করে ছেলের নামে ভুয়ো প্রোফাইল তৈরি না করার অনুরোধ জানালেন। 

ইউভানের ফ্যান পেজ নিয়ে অবশ্য আপত্তি করেননি রাজ-শুভশ্রী। ইতিমধ্যেই ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ার সংখ্যা প্রায় ২০০০। সেখানে রয়েছে ইউভানেরই ছবি। ফলোয়ারের তালিকায় বেশ কিছু সেলেবও রয়েছেন। জন্মের পরই বলি স্টার কিড তৈমুর আলি খান, আরাধ্যা বচ্চন বা আব্রাম খানের সঙ্গে প্রায় পাল্লা দিচ্ছে একরত্তি ইউভান। কারণ টলি মহলেও তাকে নিয়ে উন্মাদনা তুঙ্গে।

কয়েক মাস আগেই পুত্র সন্তানের বাবা-মা হয়েছেন নিসপাল সিং এবং কোয়েল মল্লিক। ধারে ও ভারে তাঁরাও টলিউডের প্রথম সারির দম্পতি। কিন্তু এখনও পর্যন্ত ছেলের কোনও ছবি সোশ্যাল ওয়ালে শেয়ার করেননি কোয়েল। ফলে সেই স্টার কিডকে নিয়ে এখনও কোনও উন্মাদনা তৈরি হয়নি। 

ইউভানের জন্মের আগেই পর পর বিপর্যয় এসেছে রাজ-শুভশ্রীর পরিবারে। বাবাকে হারিয়েছেন রাজ। নিজে বাবা হওয়ার মুহূর্তে তাঁংর বারবার মনে পড়ছে নিজের বাবার কথা। করোনা আক্রান্তও হয়েছিলেন পরিচালক। নিজেকে কোয়ারেন্টাইন করে রেখেছিলেন। তবে তাঁর পরিবারের আর কেউ আক্রান্ত হননি। 

 

নিজেদের দ্বিতীয় বিবাহবার্ষিকীতে প্রথম সন্তান আসার খবর শেয়ার করেছিলেন রাজ-শুভশ্রী। তখন করোনার আতঙ্ক যেমন ছিল, তেমনই চলছিল লকডাউন। গৃহবন্দি রাজ অনেকটা সময় শুভশ্রীর সঙ্গে কাটাতে পেরেছিলেন। পুরো প্রেগন্যান্সি পিরিয়ডে সুস্থ ছিলেন শুভশ্রীও।

ইউভানের জন্ম মুহূর্ত থেকেই সোশ্যাল ওয়ালে তার লাইমলাইটে থাকা নিয়ে আবার প্রশ্ন তুলেছেন দর্শকের একটা অংশ। একদিকে যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এ যেমন দারুণ বিষয়, সেটা মেনে নিয়েছেন তাঁরা। আবার প্রথম থেকেই লাইমলাইটে থাৃকার কিছু সমস্যাও রয়েছে। যা একটু বড় হওয়ার পরেই প্রতি মুহূর্তে ফেস করেন স্টার কিডরা। ভবিষ্যতে সেই সম্ভবনার কথাও ভুলে গেলে চলবে না বলে মনে করছেন কেউ কেউ। সাম্প্রতিক অতীতে উদাহরণ হিসেবে উঠে আসছে তৈমুর আলি খানের নাম। তার এত লাইমলাইটে থাকা নিয়ে মতভেদ রয়েছে পরিবারের অন্দরেই। আবার কেউ কেউ গোটা বিষয়টি রাজ-শুভশ্রীর উপরই ছেড়ে দিতে চান। ইউভানের জন্য কোনটা ভাল হবে, কোনটা নয়, তা সবথেকে ভাল তাঁরাই সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!