প্রমিস করেও সেরা অভিনেতার অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হল না, রেগে পারফর্ম করলেন না শাহিদ কপূর!

প্রমিস করেও সেরা অভিনেতার অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হল না, রেগে পারফর্ম করলেন না শাহিদ কপূর!

দেখেছেন তো, সকলেই করেন, দোষটা শুধু দেখা হয় কঙ্গনা রানাওয়াতের বোন রঙ্গোলি চান্দেলের! সেদিন আলিয়া ভট্ট একটি অ্যাওয়ার্ড ফাংশনে পুরস্কার ঘোষণা হওয়ার আগেই ট্রোফি হাতে ছবি তুলেছিলেন বলে রঙ্গোলি মুচকি হেসে টুইট করে বলেছিলেন, বাঃ, এই তো কেমন সুন্দর পুরস্কার ঘোষণা হওয়ার আগেই ট্রোফি হাতে পোজ দেওয়া হচ্ছে, এর পরেও সকলে বলবে বলিউডের অ্যাওয়ার্ড শো-গুলি কারচুপিতে ভরা নয়। তখন বলিউডের সকলে এবং বিশেষত আলিয়ার ভক্তরা রে-রে করে তাঁকে দু'খানি মন্দ কথা শুনিয়ে দিয়েছিল। তাতে অবশ্য রঙ্গোলির কচুপোড়া। তিনি স্বাধীন দেশের নাগরিক, নিজের মতামত প্রকাশের পূর্ণ অধিকার আছে তাঁর আর সেই অধিকার তিনি যত্ন করে মাঝেসাঝেই ফলিয়ে থাকেন এবং থাকবেন, তা কারও ভাল লাগুক ছাই না লাগুক। যাই হোক, লোকে তখন ভুলে গেল যে, এই অ্যাওয়ার্ড (Award) শো নিয়ে সন্দেহবাতিক হয়েই আমির খান পর্যন্ত সেখানে যাওয়া এবং নমিনেশন পাঠানো বন্ধ করে দিয়েছেন। এবার শাহিদ কপূরও (Shahid Kapoor) সেই রাস্তায় হাঁটলেন। 

Instagram

সম্প্রতি মুম্বইয়ে বসেছিল একটি ফিল্মি অ্যাওয়ার্ডের আসর। এই বছরের কাজকর্ম নিয়ে প্রথম অ্যাওয়ার্ড, কাজেই যাঁরা ভাল কাজ করেছেন, যাঁদের ছবি বক্স অফিসে খেল দেখিয়েছে, তাঁরা সকলেই হাজির ছিলেন এখানে। শাহিদ কপূর এবং রণবীর সিংহ, দু'জনেরই বছরটা ভাল গিয়েছে। 'কবীর সিং' এবং 'পদ্মাবত'-'গালি বয়' সমালোচকদের প্রশংসা থেকে মা লক্ষ্মীর কৃপা, দুটোই পেয়েছে। তাই দু'জনেই সেজেগুজে বউদের বগলদাবা করে হাজির হয়েছিলেন সেখানে। শাহিদকে নাকি আগে থেকে প্রমিস করা হয়েছিল যে, 'কবীর সিং'য়ের দৌলতে এবার সেরা অভিনেতার শিরোপাটি তাঁরই ঝুলিতে জমা হবে। তাই কপূরবাবা নাকি রাজিও হয়ে গিয়েছিলেন পারফর্ম করবেন বলে। এমনকী, রিহার্সাল-টালও দিয়ে ফেলেছিলেন। কিন্তু গিয়ে দেখেন, পাশা উল্টে গিয়েছে। তাঁর বদলে রণবীর সিংহকে দেওয়া হচ্ছে সেই পুরস্কারটি। এরপর শাহিদ রেগেমেগে পারফর্ম না করেই সেখান থেকে বেরিয়ে যান (walks out)। তাঁর জায়গায় এখন ওই স্লটে পারফর্ম করেছেন বরুণ ধাওয়ান, সেই সিকোয়েন্সটি শুট করাও হয়ে গিয়েছে।

Instagram

তা বেশ করেছেন। যদি বলেকয়ে নিয়ে এসে তারপর এভাবে অপমান করা হয়, তা হলে সেই চৌকাঠ আর কস্মিনকালেও মাড়ানো উচিত নয়। আসলে শাহিদের কপালটাই পোড়া। তিনি 'কপূর' হয়েও 'কুলীন কপূর' (পড়ুন, রাজ কপূর পরিবারের কেউ) নন। তাঁর বউ যতই ফ্যাশনিস্তা হোন না কেন, ফিল্মি পরিবারের নন। তাই যতই তাঁর ছবি ২৮০ কোটি টাকা কামাক, রণবীর সিং কিংবা রণবীর কপূরের মতো প্রচার এবং রেকগনিশন, কোনওটাই যে তাঁর কপালে জুটবে না, তা তিনি বিলক্ষণ জানেন। তাই মহাভারতের কর্ণের মতো দীর্ঘশ্বাস ফেলে, আমি রব নিষ্ফলে হতাশের দলে... ব্যাপারটাকে যখন প্রায় নিজের জীবনের ট্যাগলাইন করে ফেলে বাঁচতে শিখে গিয়েছিলেন এবং ঘনিষ্ঠ মহলে বলেওছিলেন যে, যতই ভাল অভিনয় করুন না কেন, ওসব পুরস্কার-টুরস্কার তাঁর কপালে নেই। কিন্তু তা সত্ত্বেও যখন এই সুখবরটি এল, তখন শাহিদ চওড়া হেসেই যেতে রাজি হয়েছিলেন। কিন্তু শেষরক্ষা সেই হল না...

Instagram

এই ঘটনা কিন্তু নিন্দুকদের অনেকগুলো বক্তব্য সত্যি প্রমাণ করে দিল। এক, বলিউড এখনও নেপোটিজমে আক্রান্ত, তেলা মাথাতেই তেল দিতে ভালবাসে। দুই, অ্যাওয়ার্ড শো-গুলির সত্যতা নিয়ে সত্যিই সন্দেহ আছে। একজনকে অ্যাওয়ার্ড দেব বলেও দেয় না, অন্যজন ঘোষণার আগেই অ্যাওয়ার্ডে চুমু খান! তিন, রঙ্গোলি চান্দেল সব সময় ভুলভাল বকেন না!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়..