হিন্দুশাস্ত্র বলে মহালয়ার পুণ্য তিথিতে তর্পণের মাহাত্ম্য গভীর! In Bengali | POPxo

মহালয়ার গল্প: এই বিশেষ দিনে তর্পণ করার রীতি জড়িয়ে আছে মহাভারতের গল্পের সঙ্গে

মহালয়ার গল্প: এই বিশেষ দিনে তর্পণ করার রীতি জড়িয়ে আছে মহাভারতের গল্পের সঙ্গে

মহালয়ার (Mahalaya) দিন অনেকেই আপনাকে মোবাইলে শুভেচ্ছা বার্তা জানাবেন। এটা কোনও দোষের নয়। তবে আপনার জ্ঞাতার্থে জানিয়ে রাখা ভাল যে মহালয়া কোনও শুভেচ্ছা জানানোর দিন নয়। আশ্বিন মাসের কৃষ্ণ পক্ষের তিথি হল মহালয়া। এই তিথিকেই পিতৃপক্ষ বলা হয়। পিতৃপক্ষে তর্পণের এই রীতি জড়িয়ে আছে মহাভারতের সঙ্গে। কথিত আছে মহাবীর কর্ণ মৃত্যুর পর যখন স্বর্গে গেলেন তাঁকে শুধু সোনা খেতে দেওয়া হল। দেবরাজ ইন্দ্র তাঁকে বললেন জীবিত থাকাকালীন তিনি শুধু সোনা দান করেছেন, পিতৃপুরুষকে জলদান করেননি। স্বর্গের এটাই নিয়ম যা তুমি করবে সেরকমই ফল পাবে। অবশেষে কর্ণকে পনেরো দিন সময় দেওয়া হয়। যাতে তিনি মর্তে গিয়ে তাঁর প্রয়াত পিতৃপুরুষের উদ্দেশ্যে জলদান (tarpan) করেন। যে পক্ষে এই কাজটি করা হয়েছিল তাকেই পিতৃপক্ষ আখ্যা দেওয়া হয়। আবার অন্য এক কাহিনি অনুযায়ী শ্রীরাম লঙ্কা জয়ের আগের দিন তাঁর পিতৃপুরুষকে খুশি করার জন্য তর্পণ করেছিলেন। হিন্দু ধর্মের বিশ্বাস অনুযায়ী সূর্য কন্যারাশিতে প্রবেশ করলে পিতৃপক্ষের সূচনা হয়। এই সময় আমাদের প্রয়াত পিতৃপুরুষরা আমাদের গৃহে বা আমাদের আশেপাশে অবস্থান করেন। সূর্য যখন বৃশ্চিক রাশিতে প্রবেশ করে তখন তাঁরা আবার ফিরে যান। 

মহালয়ার দিন চক্ষুদান হয় দেবীর
মহালয়ার দিন চক্ষুদান হয় দেবীর

মহালয়ার পনেরোটি তিথি আছে। কৃষ্ণপক্ষের পর প্রতিপদ দিয়ে এই তিথি শুরু হয় এবং শেষ হয় অমাবস্যায়। প্রতিপদ থেকে দেবীবন্দনা শুরু হয় বলে অনেকেই বলেন পিতৃপক্ষের অবসান ও দেবীপক্ষের সূচনা। তবে আক্ষরিক অর্থে কথাটি ঠিক নয়। মহালয়ার দিন দেবীর চক্ষুদান হয় বলে এরকম একটি কথা প্রচলিত আছে। পিতৃপুরুষদের জলদানের মাহাত্ম্য হিন্দু শাস্ত্রে অপরিসীম। কারণ আমাদের হিন্দু শাস্ত্র বলে মৃত্যুর পর শুধু দেহেরই বিনাশ হয়। আর দেহ কেবলমাত্র একটি খোলস। আত্মা হল অবিনশ্বর ও অজেয়। তার কোনও ক্ষয় নেই, জন্ম নেই, মৃত্যু নেই। তাই আত্মার পিপাসা বোধও আছে। কাছের মানুষদের ছেড়ে যাওয়া পিতৃপুরুষরা তাই জল চান। সেই জল পান করে আত্মার তৃপ্তি হয়। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য তর্পণ কথাটির অর্থও তাই, তৃপ্ত করা। 

অনেকে মনে করেন মেয়েদের তর্পণে কোনও অধিকার নেই। তবে এই কথা সত্যি নয়। হিন্দু ধর্ম এবং বিভিন্ন শাস্ত্রাদি মেয়েদেরও তর্পণ করার অধিকার দিয়েছে।  

গুপ্তপ্রেস পঞ্জিকা মতে মহালয়া শুরু হচ্ছে ২৭ তারিখ বা ৯ই আশ্বিন, রাত ২টো বেজে ৪৭ মিনিটে। আবার বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত পঞ্জিকা মতে মহালয়ার শুরু হচ্ছে ১০ই আশ্বিন শুক্রবার ২৭ তারিখ রাত্রি ৩টে ৪৬ মিনিট থেকে। মা-বাবা ও অন্যান্য আত্মীয় ছাড়া যদি আপনার চেনা এমন কেউ থাকে যাঁর বাবা মা কেউ নেই, তাঁর জন্যও আপনি তর্পণ করতে পারেন।

Featured Images: railyatri blog , Calcutta_chitrakathaa, the_tapajyoti

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...