মুক্তি পেল 'পরিণীতা'র ট্রেলার, দর্শককে চমকে দিতে অচেনা লুকে আসছেন শুভশ্রী

মুক্তি পেল 'পরিণীতা'র ট্রেলার,  দর্শককে চমকে দিতে অচেনা লুকে আসছেন শুভশ্রী

সে পরিচালকের অনেক বদনাম ছিল অ্যাদ্দিন। পেশার জগতে আর ব্যক্তিগত জীবন দু'দিক থেকেই নানা জনের নানা কথা। দক্ষিণের ছবি কপি করতে-করতে মনের দুঃখে দক্ষিণ কলকাতায় বাড়িই কিনে ফেললেন পরিচালক। তাও বদনাম যায় না। কত করে সব্বাইকে বললেন, "দেখো ভাই, আমি অমুক লেখকের তমুক গপ্পো নিয়ে ছবি করতে চাই, একদম অজ্জিনাল!" কিন্তু কেউ সে কথা পাত্তা দেয়নি কো। অ্যাদ্দিনে বুঝি ভগবান মুখ তুলে চেয়েছেন। আবিশ্যি স্ত্রী ভাগ্যে লোকের অনেক কিছুই হয়। আরে বাবা, এতক্ষণেও বুঝলেন না যে কার কথা বলছি? বলছি আমাদের দাদা-বউদির কথা। আরে না, যাঁরা হরিদ্বারে হোটেল চালান সেই দাদা-বউদি নয় রে বাবা। আমাদের রাজ চক্রবর্তী আর শুভশ্রীর কথা বলছি। মিমি না তুমি না আমি করে রাজ অনেক টুকি-টুকি খেললেন। তারপর টুক করে শুভশ্রীকে বিয়ে করে ফেললেন। তবে ওই যা বললাম। স্ত্রী ভাগ্যে কিনা হয়। রাজের আগের ছবি 'জোজোর অ্যাডভেঞ্চার' বেশ ভালই ব্যবসা করেছে। আর এটা মা শেতলার দিব্যি একদম অজ্জিনাল ছবি। অবিশ্যি সবাই বলছিল বটে যে জোজোর গা দিয়ে কেমন যেন 'মোগলি মোগলি' গন্ধ বেরচ্ছিল। সে যাক গে, অমন একটু-আধটু হয়। তবে রাজ যে বিষয়ে হানড্রেড পার্সেন্ট পেয়ে প্রতিবার পাশ করে যান সেটি হচ্ছে লাভ লাভ লাভ! ইয়ে মানে প্রেমের ছবি আর কী। তাই এবারে কোমর বেঁধে লেগে পড়ে তৈরি করে ফেললেন 'পরিণীতা' (Parineeta)। না শরতবাবুর পরিণীতা নয়, এ হল রাজবাবুর পার্সোনাল পরিণীতা মানে আমাদের শুভশ্রী (Subhasree Ganguly)। কাল এই ছবির ট্রেলার মুক্তি পেয়েছে। আগে সেইটা দেখে নেওয়া যাক। 

কেমন লাগল ট্রেলার? তা এমনিতে আমাদেরও মন্দ লাগেনি। মাসল ফোলানো তথাকথিত নায়কের চেয়ে ঋত্বিক যে দুঁদে অভিনেতা সে আর আলাদা করে বলার অপেক্ষা রাখে না। শুভশ্রীও বেশ রোগা হয়ে ছোট্ট ফ্রক পরে খুকিটি সেজেছেন। অভিনয় কেমন করবেন সে জানি না। তবে লুকের দিক থেকে একশোয় একশো। এমনিতেই তিনি নানা রূপে অবতীর্ণ হয়ে কয়েকদিন ধরেই ফ্যাশনিস্তা হয়ে উঠছেন। কিন্তু গপ্পে যে হেব্বি দুঃখ। আর দুঃখ হলেই আমার মনে পড়ে যায় কাল নুসরতের রিসেপশন হয়ে গেছে আর সেখানে আমায় কেউ ডাকেনি। ও হরি! রাজ আর শুভশ্রীকেও বোধ হয় ডাকেনি। না, ওঁরা তো সেলিব্রিটি। ওঁদের ডেকেছে। কিন্তু ওঁরা যাননি। বেশ করেছেন যাননি। কাল রথ ছিল না? ওঁরা রথ টানছিলেন। দেখুন নিজের চক্ষে। 

View this post on Instagram

জয় জগন্নাথ 🙏

A post shared by Subhashree Ganguly FC Howrah (@subhashreegangulyfanclubhowrah) on

তা হলে এবার? এটা কি কাজ নয়। আপনাদের দেব দ্বিজে ভক্তি না থাকতে পারে। ওঁদের আছে। বাড়িতেও গুটি গুটি পায়ে শুভশ্রীর দিদির ছেলের সঙ্গে সকলে রথ টেনেছে। জগ্ননাথ মাসির বাড়ি যায় কিনা। তাই শুভশ্রীও মাসি সেজে হাসিমুখে ছিলেন। কিন্তু নিন্দুকের মুখে নকুলদানা দিলে তারা কি আর চুপ থাকবে। সবাই ফিকফিক করে হাসছে আর বলছে ওরা কেন যায়নি আমরা জা-আ-আ-নি! আসলে নুসরত আমাদের মেয়ে খারাপ নয়। কিন্তু মুশকিল হচ্ছে তাঁর আশেপাশে নিখিল ছাড়াও ফুরফুর করে ঘুরে বেড়ায় আরও একজন। ওই তাঁর সঙ্গে মুখোমুখি হবেন না বলেই কর্তা-গিন্নি নাকি জয় জগ্ননাথ বলেই ক্ষান্ত দিয়েছিলেন! 

রাজের আগের ছবি 'শেষ থেকে শুরু' শুরুর আগেই শেষ হয়ে গেছে। এখন ঘরের লক্ষ্মী ঘরে লক্ষ্মী আনতে পারেন কিনা সেইটা দেখার। আর কী জানতে চান? নুসরতের চারপাশে কে ঘুরঘুর করে? না বুঝতে পারলে বুঝব যে আপনি মোটেও আমাদের পেজ ফলো করেন না! 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!


আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!